ধর্মব্যবসায়ী ও বিধর্মীদেরকে গুরুত্বপূর্ণ পদগুলো থেকে অপসারণ জরুরী 


আমাদের দেশের প্রশাসন ও সরকার অনেক সময় হাক্বীকত না জেনে, না বুঝে বিধর্মী, মুশরিক, অমুসলিম, জামাতী খারেজী, ওহাবী, ধর্মব্যবসায়ীদেরকে গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব ও পদে বসিয়ে থাকে। অথচ তারা এরপর যে দলীয়করণ ও স্বজনপ্রীতির ফলে প্রশাসন, সরকার ও দেশকে হুমকির মুখে ফেলে দেয় তার দিকে কতটুকু নজর রাখা হয়।
১৯৬৫ সালে ঢাকা ক্যান্টনমেটের মসজিদের মতো একটি গুরুত্বপূর্ণ পদে ইমামতির পদে ঘাপটি মেরে ছিলো এক শিখ। সে সেখানে থেকে গুরুত্বপূর্ণ সামরিক তথ্যাবলী মুশরিকদের কাছে পাচার করে। এমনকি সে তথ্য ইহুদীদের হাতে পর্যন্ত পৌঁছে যায়। তাই ছুরতান অনেকেরই পোশাক আশাক ভালো মানুষী হতে পারে কিন্তু এটা মনে রাখতে হবে- যাদের আদর্শের মাঝে রয়ে গেছে ধর্মব্যবসা, প্রতারনা ও বিভ্রান্তি তারা কখনোই প্রকৃত দেশপ্রেমিক হতে পারে না, দেশপ্রেমিক সাজতে পারে। মহান আল্লাহ পাক ও দ্বীন ইসলাম উনাকে যারা অস্বীকার করতে পারে, যারা এসব নিয়ে ব্যবসা করতে পারে তারা অবশ্যই মুনাফিক। আর মুনাফিকরাই একটি জাতি ও দেশকে ধ্বংস করার জন্য যথেষ্ট।
সুতরাং এদেরকে বরখাস্ত করে আক্বীদা বিশুদ্ধ রয়েছে, ধর্মব্যবসার সাথে জড়িত নয়, দেশপ্রেমিক এ রকম যাচাই-বাছাই করে নিয়োগ দিতে হবে।

Views All Time
2
Views Today
2
শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে