ধর্মান্ধ সন্ত্রাসবাদ উত্থানের ইতিকথা-১


ধর্মান্ধ সন্ত্রাসবাদ উত্থানের ইতিকথা-১
আল ইহসান ডেস্ক:
*****************************************************
দেশে ধর্মান্ধ সন্ত্রাসবাদের ব্যাপক উত্থান ঘটে ২০০৪ সালে। অভয়ারণ্য হিসেবে ধর্মান্ধ সন্ত্রাসীগোষ্ঠী বেছে নেয় চট্টগ্রামের দুর্গম পাহাড়ি জনপদকে। গড়ে তোলে ঘাঁটি। জামা’আতুল মুজাহিদীন বাংলাদেশ (জেএমবি) এ এলাকায় গড়ে তোলে ৭টি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র। বিদেশী গেরিলাদের সহায়তায় ধর্মান্ধ সন্ত্রাসীরা যুদ্ধের নানা কৌশল রপ্ত করে। সেই সঙ্গে আফগানফেরত যোদ্ধা মুফতে আবদুল হান্নান দায়িত্ব নেয় ধর্মান্ধ সন্ত্রাসীদের প্রশিক্ষণের। ছাত্র শিবিরের সাবেক তরুণ নেতা সিদ্দিকুল ইসলাম ওরফে তথাকথিত বাংলাভাই ওরফে বাংলাসন্ত্রাসী গ্রহণ করে অপারেশন পরিচালনার সার্বিক দায়িত্ব। সমুদ্রপথে অস্ত্র, বোমা, গ্রেনেড সংগ্রহ করা, বিদেশী প্রশিক্ষিত কমান্ডারদের সঙ্গে প্রশিক্ষণ শেয়ার করাসহ বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধার কারণে চট্টগ্রামের পাহাড়ি অঞ্চলকে বেছে নেয় তারা। খাগড়াছড়ির পানছড়ি, চেংড়াছড়ি, বান্দরবানের ফাইতং, চকরিয়া, রাঙ্গামাটির লংগদু, ভূষণছড়া, মহালছড়ি ও বরকল এলাকায় গড়ে উঠে ধর্মান্ধ সন্ত্রাসীদের ঘাঁটি। সুযোগ বুঝে ধর্মান্ধ সন্ত্রাসীরা পাহাড় থেকে নেমে আসে সমতলে।
২০০৪ সালের মার্চ মাসে সিদ্দিকুল ইসলাম ওরফে বাংলাসন্ত্রাসীর নেতৃত্বে চট্টগ্রাম থেকে রাজশাহীতে চলে যায় একটি দল। সেখানেই শুরু হয় অপারেশনাল কর্মকা-।
শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে