নবীজির শান মুবারকে অবমাননাকারীদের ঘরবাড়ি পুড়িয়ে দিল স্থানীয় ধর্মপ্রাণ মুসলমানরা


নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার মুবারক শানকে অবমাননা করে সাতক্ষীরার কালিগঞ্জে ইসলাম বিদ্বেষী নাটকের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ প্রদর্শন করেছে স্থানীয় ধর্মপ্রাণ মুসলমানরা। এসময় স্থানীয় ধর্মপ্রাণ মুসলমানরা নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম  উনার মুবারক চরিত্রকে ব্যঙ্গ করে অভিনয়কারী ছাত্র শাহিনুর আলমের ঘর-বাড়ি জ্বালিয়ে দেয়। একই সাথে ভেঙ্গে দিয়েছে ইসলাম বিদ্বেষী নাটকটির পরিচালনাকারি হিন্দু শিক্ষিকা মিতা রানী হাজরার বাড়ি ও নাটক মঞ্চস্থ করার অনুমতি প্রদানকারী বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সদস্য আব্দুল হাকিমের বাড়ি। গতকাল শনিবার দুপুরে সাতক্ষীরার কালিগঞ্জ উপজেলার ফতেপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।
উল্লেখ্য, নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার মুবারক শানকে অবমাননা করে স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে গত ২৭ মার্চ রাতে কালিগঞ্জ উপজেলার ফতেপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের মাঠে ‘হুজুর কেবলা’ নামে একটি ইসলাম বিদ্বেষী নাটক মঞ্চস্থ করা হয়। নাটকে নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার মুবারক শানকে চরমভাবে অবমাননা করা হওয়ায়  দর্শকদের একাংশ নাটকটি তৎক্ষণাৎ বন্ধ করে দেয়। বিষয়টি ধর্মপ্রাণ মুসলমানদের মধ্যে তীব্র ক্ষোভ সৃষ্টি করে। তারা সংশ্লিষ্ট অপরাধীদের গ্রেফতার ও শাস্তির দাবীতে শুক্রবার বিক্ষোভ মিছিল এবং প্রতিবাদ সমাবেশ করা হয়। পুলিশ ওই বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রেজাউন হারুন ও সহকারি শিক্ষিকা মিতা রানী হাজরাকে আটক করেছে। তাদের বিরুদ্ধে স্থানীয় মেম্বর ও আওয়ামীলীগ নেতা আবু জাফর বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেন। আটককৃতদের শনিবার সকালে জেলা কারাগারে প্রেরণ করেছে পুলিশ।

 

সূত্র : দৈনিক আল-ইহসান শরীফ 01.04.2012

Views All Time
1
Views Today
1
শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+