নামায পরিত্যাগকারী কবরের মধ্যে কঠিন আযাবে গ্রেফতার হবে!


মুসলমান মাত্রই পবিত্র কুরআন শরীফ কম-বেশী তেলওয়াত করে থাকেন। পবিত্র কুরআন শরীফ উনার মধ্যে পবিত্র সালাত তথা নামায আদায় করার ব্যাপারে অনেক আয়াত শরীফ নাযিল হয়েছে। নামায পরিত্যাগকারীর শাস্তি সম্পর্কেও পবিত্র কুরআন শরীফ ও পবিত্র সুন্নাহ শরীফ উনাদের মধ্যে বহু বহু সতর্কবানী ঘোষিত হয়েছে। কিন্তু এরপরও দেখা যায়, মুসলমান ঈমানদার দাবী করার পরও বহু মানুষ নামায আদায় করা থেকে অত্যন্ত গাফিল উদাসীন। তবে কি তাদের মৃত্যুভীতি নেই? তারা কি বেনামাযী হওয়ার অপরাধে কবরে কি বা কেমন আজাবে গ্রেফতার হবে সেটা জানে না?
এসম্পর্কে পবিত্র হাদীছ শরীফ উনার মাঝে বর্নিত আছে- “পবিত্র কুরআন শরীফ উনাকে অর্থাৎ উনার মাঝে বর্নিত আদেশ নিষেধকে অবহেলাকারী ও বেনামাযীকে মাটিতে আছাড় মেরে ফেলা হবে। এরপর একজন আজাবের ফেরেশতা তিনি দাঁড়িয়ে পাথর দিয়ে আঘাত করে তার মাথাকে চূর্ণ-বিচূর্ণ করা হবে। যে পাথর দিয়ে আঘাত করা হবে সেটি দূরে গড়িয়ে যাওয়ার কারণে তা ফের তুলে নিয়ে আবারো আঘাত করার আগেই ভেঙ্গে চুরমার হয়ে যাওয়া মাথা আগের মতোই জোড়া লেগে যাবে। আযাবের ফেরেশতা তিনি পুনরায় বেনামাযীর মাথায় পাথর নিক্ষেপ করে চুরমার করে দিবেন। এভাবেই বেনামাযীদেরকে ক্বিয়ামত পর্যন্ত শাস্তি অব্যাহত রাখা হবে।’ নাউযুবিল্লাহ!
অতএব, হে নামায পরিত্যাগকারী! অতিসত্বর খালিছ তওবা করতঃ স্বীয় নামায সম্পর্কে সর্তক সচেতন হও। পাঁচ ওয়াক্ত পবিত্র নামায আদায়ের ব্যাপারে যতœবান হও। তাহলেই কবরের ভয়াবহ আযাব থেকে মুক্তি পাওয়া সহজে সম্ভব হবে।

Views All Time
1
Views Today
1
শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে