নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার সুমহান শানে দায়িমীভাবে ছানা-ছিফত বা প্রশংসা মুবারক করার পদ্ধতি বা নিয়ম মুবারক


কোন পদ্ধতি বা নিয়মে মহান আল্লাহ পাক উনার শ্রেষ্ঠতম রসূল, সাইয়্যিদুল আম্বিয়া ওয়াল মুরসালীন, রহমতুল্লিল আলামীন, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার সুমহান শানে দায়িমীভাবে ছানা-ছিফত মুবারক করতে হবে সে ব্যাপারে কাউকে কোনরূপ চিন্তা-ফিকির করার কোনই প্রয়োজন নেই। কেননা সে বিষয়টি যিনি খালিক্ব মালিক মালিক রব মহান আল্লাহ পাক তিনি উনার সম্মানিত কিতাব পবিত্র কুরআন শরীফ উনার মধ্যে স্পষ্ট করে জানিয়ে দিয়েছেন। স্বয়ং খালিক্ব মালিক রব মহান আল্লাহ পাক তিনি নিজেই উনার পেয়ারা হাবীব নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার সুমহান শানে যে নিয়মে দায়িমীভাবে ছানা-ছিফত মুবারক করে যাচ্ছেন উক্ত নিয়মে উম্মত তথা কায়িনাতবাসী ছানা-ছিফত মুবারক করলেই নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার সুমহান শানে দায়িমীভাবে ছানা-ছিফত মুবারক করা হয়ে যাবে। সুবহানাল্লাহ!
এখন তাহলে আমাদেরকে প্রথমে জানতে হবে যে, মহান আল্লাহ পাক তিনি উনার সম্মানিত হাবীব নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার সুমহান শানে কিভাবে ছানা-ছিফত মুবারক করেন। এ প্রসঙ্গে পবিত্র সুরা আহযাব শরীফ উনার ৫৬ নং পবিত্র আয়াত শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক হয়েছে-
إِنَّ اللَّـهَ وَمَلَائِكَتَهُ يُصَلُّونَ عَلَى النَّبِيِّ
অর্থ:- নিশ্চয়ই মহান আল্লাহ পাক তিনি এবং উনার ফেরেশতা আলাইহিমুস সালাম উনারা নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার প্রতি অর্থাৎ উনার সুমহান শানে ছলাত শরীফ পেশ করেন। সুবহানাল্লাহ!
অর্থাৎ নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার ছানা-ছিফত মুবারক দায়িমীভাবে করতে হলে পবিত্র ছলাত শরীফ পেশ করার মাধ্যমে করতে হবে।
উল্লেখ্য, ছলাত শরীফ উনার অর্থ ব্যাপক। মহান আল্লাহ পাক উনার সুমহান শানে সম্মানিত যিকির শরীফ উনার অর্থ যেমন ব্যাপক তেমনি নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার সুমহান শানে সম্মানিত ছলাত শরীফ উনার অর্থও ব্যাপক।
মহান আল্লাহ পাক উনার সুমহান শানে যেরূপ দায়িমীভাবে যিকির করার জন্য আদেশ মুবারক করা হয়েছে তদ্রƒপ নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার সুমহান শানে পবিত্র ছলাত শরীফ পেশ করার জন্য আদেশ মুবারক করা হয়েছে। যেমন মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন-
يَا أَيُّهَا الَّذِينَ آمَنُوا صَلُّوا عَلَيْهِ
অর্থ: হে ঈমানদাররা! তোমরা নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার সুমহান শানে ছলাত শরীফ পেশ করো।
কখন করবে? নামাযে করবে, নামাযের বাইরে করবে, আযানে করবে, মুনাজাতে করবে, ঘরে প্রবেশ করতে করবে, ঘরের বাইরে করবে, মজলিসে করবে, একাকী করবে, বিপদে করবে, আসানে করবে, শয়নে, স্বপনে, সজাগে, দাঁড়িয়ে, বসে, শুয়ে সবসময় ছলাত শরীফ পেশ করবে। যে যত বেশি ছলাত শরীফ পেশ করবে সে ততবেশী ফযীলত, মর্যাদা, মর্তবা, নিছবত, কুরবত মুবারক হাছিল করবে। সুবহানাল্লাহ!

শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে