সাময়িক অসুবিধার জন্য আমরা আন্তরিকভাবে দু:খিত। ব্লগের উন্নয়নের কাজ চলছে। অতিশীঘ্রই আমরা নতুনভাবে ব্লগকে উপস্থাপন করবো। ইনশাআল্লাহ।

এবার…নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার মুবারক শানের অবমাননায় প্রকাশ করা হয়েছে বই…নাঊযুবিল্লাহ মিন যালিক! দোষীদের প্রতি জানাই তীব্র ধিক্কার এবং মুসলিম উম্মাহর প্রতি আহবান জানাচ্ছি তীব্র প্রতিবাদ গড়ে তোলার


কলকাতার বিজয় প্রকাশনী কর্তৃক প্রকাশিত ‘ভাঙ্গা মঠ’ নামক বইতে অত্যন্ত অশ্লীল ভাষা ব্যবহার করে সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ নবী, আখেরী রসূল নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূরপাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার মুবারক শানের খিলাফ এবং চরিত্র মুবারক নিয়ে বাজে কটুক্তি করেছে। যেখানে আখেরী রসূল নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূরপাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনাকে ‘নারী লোভী’ উল্লেখ করে বলা হয়েছে তিনি যদি এ যুগে থাকতেন তাহলে উনার নামে সম্ভ্রমহানীর অভিযোগ আসতো। নাউযুবিল্লাহ মিন যালিক!!!
‘ভাঙ্গা মঠ’ নামক বইটি থেকে কয়েকটি লাইন পাঠ করে শোনানো হলে বিজ্ঞ আদালত এমন কটুক্তিমূলক বক্তব্য শুনে আর পাঠ না করার জন্য আইনজীবিকে অনুরোধ করেন।
বাদী খোকন আরজীতে আরো উল্লেখ করেন, ‘ভাঙ্গা মঠ’ নামক উক্ত বই নিষিদ্ধ ঘোষণা, প্রকাশনা ও বিক্রয় বন্ধের আহ্বান জানান। আরজিতে আরো বলা হয়েছে, উক্ত বই যদি বিক্রি বন্ধ না হয় তবে দেশে অরাজকতা পরিস্থিতি সৃষ্টি হতে পারে যা দেশ ও জাতীর জন্য কাম্য নয়।
মামলাটি বাদী পক্ষে পরিচালনা করেছেন এডভোকেট মুহম্মদ এনামুল হক।

উল্লেখ্য, মুসলমান নামধারী কুখ্যাত এ লেখকের বাড়ী ঢাকার পার্শ্ববর্তী বিক্রমপুরে।

বিশেষভাবে উল্লেখ্য, নুর নবীজি হুযুরপাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার মুবারক শানে কটুক্তি করায় ‘ভাঙ্গা মঠ’ নামক বইয়ের কুখ্যাত লেখক সালাম আজাদের বিরুদ্ধে গ্রেফতারী পরওয়ানা জারি করা হয়েছে। গত ইয়াওমুল ইছনাইনিল আযীমি বা সোমবার দুপুরে ঢাকা মহানগর হাকিম সাইফুর রহমান উক্ত আদেশ প্রদান করেন। দণ্ডবিধি ২৯৫(ক)/২৯৮ ধারা মোতাবেক মামলাটি আমলে নেয়া হয়। মামলাটি দায়ের করেন বইটির পাঠক রাজধানীর হাতিরপুল সেন্ট্রাল রোডের বাসিন্দা মরহুম মুহম্মদ ইয়াহিয়ার ছেলে মুহম্মদ মাহমূদ হাসান খোকন।

পাঠক,

মুসলমান নামধারী কুখ্যাত এ লেখকের বিরুদ্ধে মুসলমানগণের ধর্মীয় অনুভূতি আঘাত হানার কারণে ইতোপূর্বেও অনেক  ধর্মপ্রাণ মুসলমানগণ  প্রতিবাদ করেছিলেন। সে যে একটা  কাট্টা  ইসলাম বিদ্বেষী সেটা দুই বছর আগেও প্রকাশ করা হয়েছিল পত্র পত্রিকায় । তার  দু’একটি প্রমাণ  নিচে দেয়া হল-

খবর: শেখ হাসিনার কাছে ভারতীয় মুসলিম নেতৃবৃন্দের আবেদনসালাম আজাদকে নিয়োগ দেবেন না
পশ্চিমবঙ্গের বেশ কয়েকজন মুসলিম নেতা কলকাতায় বাংলাদেশী দূতাবাসে ডেপুটি হাইকমিশনার হিসেবে সালাম আজাদকে নিয়োগ না দেয়ার জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে আবেদন জানিয়েছেন। সালাম আজাদ তাঁর বিভিন্ন লেখায় মহানবী হযরত মুহম্মদ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম উনাকে অপমান করেছেন বলে তাঁরা শেখ হাসিনার কাছে লিখিত আবেদনে এ আহ্বান জানান। খবর দ্য টেলিগ্রাফের ।
এই আবেদনে স্বাক্ষর করেন কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইসলামের ইতিহাস বিভাগের সাবেক প্রধান ওসমান গনি, সাহিত্য সাময়িকী ‘চতুরঙ্গের’ সম্পাদক আব্দুর রউফসহ বিশিষ্ট ধর্মীয় নেতৃবৃন্দ। সালাম আজাদের লেখাগুলো ইসলামবিরোধী বলে তাঁরা মন্তব্য করেন। আবেদনে স্বাক্ষরদাতারা বলেন, কলকাতা থেকে প্রকাশিত সালাম আজাদের ‘ভাঙ্গা মঠ’ বইটি সম্পূর্ণ অগ্রহণযোগ্য ও ধর্মবিরোধী। বইটিতে হুযূরপাক  ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম  উনার অসম্মান করা হয়েছে বলে তাঁরা দাবি করেন।
শেখ হাসিনা সরকার ক্ষমতা গ্রহণের পর ভারত-বাংলাদেশে সম্পর্কের যে অগ্রগতি হয়েছে, সালাম আজাদের নিয়োগকে কেন্দ্র করে বন্ধুপ্রতিম এই দু’দেশের সম্পর্কের অবনতি হতে পারে বলে তাঁরা আশঙ্কা প্রকাশ করেন। তাঁদের এই চিঠিটি সরকারী কোন ভাষ্য নয় বলেও তাঁরা মন্তব্য করেন। তাঁরা বলেন, “বাংলাদেশ একটি স্বাধীন-সার্বভৌম দেশ। আমরা ভিন্ন দেশের নাগরিক হিসেবে বাংলাদেশ সরকারের কোন নিয়োগ সম্পর্কে মন্তব্য করতে পারি না। তবে আমরা সালাম আজাদ সম্পর্কে কিছু তথ্য উপস্থাপন করছি।” এ প্রসঙ্গে ভারতীয় মুসলিম নেতৃবৃন্দ সালাম আজাদের বিভিন্ন বই ও অন্য সব লেখা সম্পর্কে তথ্য তুলে ধরেন।

সূত্র: দৈনিক জনকন্ঠ

কোন নিয়োগ হয়নি কিন্তু চলছে তোলপাড়: কে এই সালাম আজাদ?- জনকন্ঠ

ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত হানার অভিযোগে মামলা – প্রথম আলো
______________________________________________

সাতক্ষীরার ন্যাক্কারজনক ঘটনার পটভূমি:
গত ২৭ মার্চ, ২০১২ কালিগঞ্জ উপজেলার ফতেহপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে স্বাধীনতা দিবস উদযাপন উপলক্ষে বিদ্যালয়ের মাঠে মঞ্চস্থ্ হয় ‘হুজুর কেবলা’ নামের চরম ইসলাম বিদ্বেষী এক নাটক। নাটকটির সংকলক একই গ্রামের জিয়াদ আলীর কুলাঙ্গার পুত্র শাহীন (২৮) এবং পরিচালক হিন্দু শিক্ষিকা  মিতা রানী। নাটকের বিভিন্ন অংকে নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার মুবারক শানে চরম ভাবে গোস্তাকি করে নারী লোভী হিসেবে উপস্থাপন করা হয়। (নাউযুবিল্লাহ)

সাতক্ষীরায় উগ্রবাদী হিন্দুদের দ্বারা ঘটিত এধরনের আরেকটি ঘটনা:

বলাবাহুল্য হিন্দু শিক্ষিকা কুলাঙ্গার মিতা রাণীর ঘটনা সাতক্ষীরায় এই বারই প্রথম নয়। এর আগেও ২০১১ সালে ১৬ই অক্টোবর সুশান্ত নামক এক চরম ইসলাম বিদ্বেষী উগ্রবাদী হিন্দু একই ঘটনা ঘটায়।সংবাদ ভাষ্য, “নলতা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণীর ছাত্র আমিনুর, মাহফুজ, দেলোয়ারসহ কয়েকজন শিক্ষার্থী জানায়, গত রোববার নবম শ্রেণীর ‘ক’ গ্রুপের বাংলা ব্যাকরণের কাস নিচ্ছিলো কুলাঙ্গার শিক্ষক  সুশান্ত কুমার ঢালী (২৬)। এ সময় সে বলে, আমি তোমাদের একটি গল্প বলব। যদিও গল্পটি মুসলমানদের ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত আসতে পারে। তবে এতে তোমরা কেউ কিছু মনে করবে না। গল্পটি হলো- এক জায়গায় একজন হিন্দু সাধু, মুসলমানদের একজন মৌলভী ও একজন বিদেশী ভদ্রলোক ছিলো। এদের মধ্যে প্রথমে হিন্দু সাধু বলে, কৃষ্ণচূড়া নামটি আমাদের কৃষ্ণের নামের সাথে মিলিয়ে রাখা হয়েছে। তখন মৌলভী বলে, এটি মোহাম্মদ চূড়া হলে ভালো হতো। এরপর হিন্দু সাধু একইভাবে কৃষ্ণনগর ও গোপালগঞ্জের কথা উল্লেখ করলে মৌলভী বলে, এটা মোহাম্মদনগর এবং মোহাম্মদগঞ্জ হলে ভালো হতো। অতঃপর একটি রাম ছাগল সেখানে আসার পর মৌলভী একই ভঙ্গিতে বলে, রাম ছাগলের পরিবর্তে মোহাম্মদ ছাগল হলে ভালো হতো। এ কথা বলার পর শিক সুশান্ত ঢালী ব্যঙ্গাত্মকভাবে হাসতে থাকে।” (নাউযুবিল্লাহ মিন যালিক)
(বিষয়গুলো সরাসরি লেখা আদবের খেলাফ হলেও বর্তমান পরিস্থিতি কতটুকু ভয়াবহ অবস্থানে পৌছেছে এবং হিন্দুরা কতটুকু ইসলাম বিদ্বেষী তা বুঝানোর জন্যই বিস্তারিত উপস্থাপন করা)

প্রিয় নবীজি উনার শান মুবারক:
মহান আল্লাহ পাক তিনি উনার প্রিয়তম হাবীব নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার মুবারক শানকে বুলন্দ করেছেন। পবিত্র কুরআন শরীফ ইরশাদ হয়েছে,

وَرَفَعْنَا لَكَ ذِكْرَكَ ﴿الشرح: ٤﴾

“আমি আপনার সুমহান মর্যাদাকে বুলন্দ করেছি।” (সূরা ইনশিরাহ-৪)
মহান আল্লাহ পাক উনার প্রিয়তম হাবীব, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার মুবারক শানকে বুলন্দ করে স্বয়ং নিজের নাম মুবারকের সাথে সংযুক্ত করে দিয়েছেন। যা আমরা পবিত্র কলেমা শরীফ এ দেখতে পাই,
“ লা ইলাহা ইল্লাল্লাহু মুহম্মদুর রসুলুল্লাহ” (ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম)।
বলাবাহুল্য কোন ব্যক্তি যদি সারা জীবন ‘লা ইলাহা ইল্লাল্লাহ’ পাঠ করে তবে সে কষ্মিনকালেও মুসলমান হতে পারবে না,
যতক্ষণ যে মুহম্মদুর রসুলুল্লাহ (ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম) পাঠ না করবে। (সুবহানাল্লাহ)
অর্থাৎ আমাদের প্রিয় নবীজি নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ, হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি এক কথায় শুধু আল্লাহ পাক নন, এছাড়া সকল মর্যাদা, শান-মান মহান আল্লাহ পাক উনাকে হাদিয়া করেছেন। (সুবহানাল্লাহ)

মুবারক শানের খেলাফ করার শাস্তি:
হাদীসে কুদসী শরীফে আছে, “কোন ব্যক্তি যদি কোন আল্লাহ পাক উনার ওলী, উনার বিরোধীতা করে, তবে স্বয়ং আল্লাহ পাক তার বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করেন।”
তাহলে যিনি মহান আল্লাহ পাক উনার প্রিয়তম বন্ধু, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ, হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার মুবারক শানের খেলাপ করলে মহান আল্লাহ পাক তিনি কতটুকু অস্তুষ্ট হবেন, তা বলার অপেক্ষা রাখে না।
উদারহণ স্বরূপ আমরা, সূরা লাহাব-এর কথা বলতে পারি। যেখানে নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার মুবারক শানের খেলাপ বলায় এবং উনাকে কষ্ট দেয়ায় স্বয়ং আল্লাহ পাক আবু লাহাবের ধ্বংস কামনা করেছেন, লানত দিয়েছেন। আর তাই আবু আবু লাহাবের মৃত্যু ঘটেছে পচে গলে, চরম লাঞ্চিত হয়ে।

অপরাধীদের বার বার রক্ষা করা হচ্ছে:
৯৭% মুসলমানের দেশ বাংলাদেশে গত কয়েকবছর যাবত নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার মুবারক শানে অবমাননা করার ঘটনা বেশ কয়েকবার ঘটেছে। কিন্তু বাংলাদেশ সরকারের পক্ষ থেকে তো এদের বিরুদ্ধে তো এর বিরুদ্ধে বড় ধরনের কোন ব্যবস্থা নেয়া হয়নি, মুসলমানদের মধ্যে বড় ধরনের কোন প্রতিবাদের ঘটনাও ঘটেনি। সরকার এদের লোক দেখানো সাময়িক গ্রেফতার করলেও পরিস্থিতি ঠান্ডা হলে পরবর্তীতে তাদের ছেড়ে দিচ্ছে। অপরাধীদের কোন বিচারই হয়না।

প্রতিবাদ হচ্ছে, চাই দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি:
সাতক্ষীরাবাসী ইসলাম বিদ্বেষী ঘটনায় এর জোর প্রতিবাদ করেছে। এই সকল নবী প্রেমীদের জানাই আন্তরিক অভিবাদন, তাদের জন্য থাকল অন্তরের অন্তস্থল থেকে অফুরস্ত দোয়া। কিন্তু এখানেই যেন শেষ না হয়। সারা বিশ্বের মুসলমানদের উচিত এর বিরুদ্ধে জোর প্রতিবাদ করা, একই সাথে অপরাধীদের এমন দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দেওয়া, এমনভাবে জনসম্মুখে তাদের শাস্তি কার্যকর করা, যেন ভবিষ্যতে এই ন্যাক্কারজনক ঘটনার আর পূনরাবৃত্তি না ঘটে। প্রকৃতপক্ষে অপরাধীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি না দেয়ার অভাবেই এই ধরনের ঘটনা বার বার ঘটে চলেছে।

অপরাধীদের সহযোগীদেরও শাস্তি চাই:
এখানে আরেকটি বিষয় বলা যেতে পারে, যে ব্যক্তিরা এই অপরাধগুলো করছে শুধু তাদের শাস্তি দিলেই হবে না, যারা এগুলোর পক্ষে কথা বলছে এবং অপরাধীদের সাহায্য করে যাচ্ছে তাদের গ্রেফতার করা দরকার আছে।
যেমন: আলপিনে নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার মুবারক শানে ব্যঙ্গাত্মক কার্টুন লেখার পর কার্টুনিস্ট আরিফকে বাচানোর জন্য অনেক সংগঠন উঠে পড়ে লাগে।
আবার সাতক্ষীরার কালিগঞ্জের ঘটনা অনেক পত্রিকায় বিকৃত করে লেখা হয়।
দৈনিক জনকণ্ঠে লেখা হয়, “ধর্মান্ধদের হামলায় জ্বলছে সাতীরার ফতেপুর গ্রাম,পুলিশের ভূমিকা রহস্যজনক।”
আইএনবি সংবাদ সংস্থায় বলা হয়, “সাতীরায় হুজুর কেবলার নাটকের জের : বাড়িঘরে আগুন ও ভাংচুর”। উক্ত খরবে মুসলমানরা হিন্দুদের বাড়িঘর লুট করেছে বলে দাবি করা হয়। (নাউযুবিল্লাহ)

আমরা কি ন্যাক্কারজনক ঘটনার প্রতিবাদ জানাব না? আমরা কার শাফায়াত চাই?
আমরা যারা নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার উম্মত বলে দাবি করে থাকি তারা উনার মুবারক উনার শানের খেলাফ দেখলে কি করব?
আমাদের উম্মতদের উচিত এর জোর প্রতিবাদ করা। কারণ কিয়ামতের ময়দানে মহান আল্লাহ পাক তিনি যদি আমাদের জিজ্ঞাসা করেন, “হে ব্যক্তি তোমার সামন্ েআমার প্রিয়তম বন্ধু, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ, হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার মুবারক শানের খেলাপ করা হয়েছিল, তুমি কি এর প্রতিবাদ করেছিলে, তোমাকে আজ কে নাযাত দিবে?”—–
তখন আমরা কি বলব?
আবার নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ, হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি যদি জিজ্ঞেস করেন,
“হে ব্যক্তি, তুমি তো আমার উম্মত দাবি কর, আমার শাফায়াত চাও, তাহলে যখন আমার বিরুদ্ধে বলা হল, তখন তোমরা কেন এর প্রতিবাদ করলে না? অপরাধীর কেন শাস্তি দিলে না? এখন, তোমাদের কে শাফায়াত করবে?
তখন আমরা কি উত্তর দেব?

মুসলমানগন প্রতিবাদ করতে জানে:

বাংলার মুসলমানগন প্রতিবাদ করতে জানে। ১৯৫২ সালে তারা ভাষার জন্য রক্ত দিয়েছে, যা পৃথিবীর  ইতিহাসে একমাত্র নজির। ১৯৭১  সালে অত্যাচারীর বিরুদ্ধে যুদ্ধ করে, রক্ত দিয়ে স্বাধীনতা  এনেছে ।তাহলে সেই বাংলার মুসলমানগণ নিজেদের প্রাণের চেয়ে অধিক প্রিয়, যিনি মুসলমানদের   ঈমান   উনার সম্মানার্থে কি প্রতিবাদ করতে পারে না? উনার শানে বেয়াদবী প্রদর্শনকারী কুলাঙ্গারগুলোকে জমিনের সবচেয়ে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দিতে পারে না?
সরকারসহ সংশ্লিষ্টরা যদি চিরতরে  এসব কুলাঙ্গারদের শয়তানী বন্ধ না করে, তাহলে  নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ, হুযূরপাক সল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম  উনার উম্মতগণ কখনো চুপ থাকবে না।

এই ন্যাক্কারজনক  অপরাধের শাস্তি প্রদানের প্রতিদান কি?

নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ , হুযূরপাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি  ওয়া সাল্লাম  উনার মুবারক শানে বেয়াদবী করার কারনে  কা’ব বিন আশরাফ, আবু র’ফে র মৃত্যুদন্ড ঘোষনা করা হয়  এবং হযরত সাহাবায়ে কিরাম রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহুমগণ  উনারা তা কার্যকর করেন। নূরে মুজাসসাম , হাবীবুল্লাহ, হুযূরপাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম  উনার জন্য পরিপূর্ন  নিবেদিত হযরত সাহাবায়ে কিরাম রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা  আনহুম  উনাদের জন্য আখিরতে অসীম প্রতিদানতো রয়েছেই দুনিয়াতেই  আল্লাহ পাক  উনাদের জন্য চিরতরের সন্তুষ্টি ঘোষনা করলেন।

আল্লাহপাক  ইরশাদ করেন,

رَّضِيَ اللَّهُ عَنْهُمْ وَرَضُوا عَنْهُ
অর্থ: আল্লাহপাক  উনাদের  উপর সন্তুষ্ট, উনারা ও আল্লাহপাক উনার উপর সন্তুষ্ট।

সুরা বাইয়্যিনাহ (আয়াত  শরীফ নং-৮)

ঠিক  উম্মতের কেউ যদি  নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ , হুযূরপাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি  ওয়া সাল্লাম উনার জন্য নিবেদিত হয়ে কোন খিদমত করে তাহলে তিনি  ও একই পুরস্কার অর্থাৎ  আল্লাহ পাক  এবং  উনার হাবীব ছল্লাল্লাহু আলাইহি  ওয়া সাল্লাম উনাদের অনন্তকালের সন্তুষ্টি লাভ করবে।
নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার মুবারক শানে অবমাননা করে ব্রিটিশ আমলে এরকম এক মুরতাদ ‘রঙ্গীলা রসূল’ নামক বিদ্রুপাত্মক বই লিখেছিলো। তখন একজন মুসলমান তাকে কতল করে ইসলামে বর্ণিত মুরতাদের শাস্তি বাস্তবায়ন করেন। কোর্টে উকিল তাকে একটু মিথ্যা বলার জন্য অনুরোধ করলে সে জবাব দেয়, “আমি দেখতে পাচ্ছি দয়ার নবীজী হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম আমাকে জান্নাতে আহ্বান করছেন। সুতরাং আমার মিথ্যা বলার দরকার নেই”। (সুবাহানাল্লাহ)

বিশেষ দ্রষ্টব্য: বিগত কয়েক বছরে ঘটে যাওয়া  এধরনের ন্যাক্কারজনক  ঘটনাগুলোর পিছনে দেখা গেছে  উগ্রবাদী হিন্দুরাই সরাসরি জড়িত। শতকরা ৯৭% মুসলমানের দেশে ১.৭৫% হিন্দু কি করে এ সাহস পায়? তাহলে এর পিছনে কি কোন ষড়যন্ত্রকারীগোষ্ঠী রয়েছে? বাংলার মুসলমানদের সুস্পষ্ট বক্তব্য হলো, এর পিছনে যারাই থাকুকনা কেন, এ ধরনের ঘটনার পুনরাবৃত্তি হলে তাদেরকে ভয়াবহ মূল্য দিতে হবে। কারন, কালামুল্লাহ শরীফে আল্লাহ পাক  ইরশাদ করেন,”

إِنَّ شَانِئَكَ هُوَ الْأَبْتَرُ

অর্থ: “নিশ্চয়ই আপনার শত্রুরা নির্বংশ। (সুরা কাউসার- আয়াত শরীফ-০৩) 

কাজেই বিদ্বেষপোষনকারী, বিরোধীতাকারীরা নির্বংশ হবেই হবে।  এতে কোন সন্দেহ নেই। অতীতের প্রত্যেকেই নির্বংশ হয়েছে।

<======>সাম্প্রতিক আপডেট <=======>

ঢা.বি. জঘন্যনাথ (হিন্দু) হলের হিন্দু ছাত্রদের  উগ্রবাদী কর্মকান্ড:

ঢা. বি.  এর হিন্দু হল জঘন্যনাথ (জগন্নাথ) হলের হিন্দু ছাত্ররা  সাতক্ষীরার অবমাননাকর নাটকের সমর্থনে  এবং দোষীদের ঘরবাড়ি পোঁড়ানের কারনে গত বৃহস্পতিবার (৫ই  এপ্রিল ২০১২) রাতে এবং দিনে শাহবাগসহ ঢা. বি  এলাকায় ব্যাপক অরাজকতা, সাম্প্রদায়িক, উগ্রবাদী কর্মকান্ড  চালায়। দিনের বেলায় তাদের  এ অরাজকতামূলক কর্মকান্ডের কারনে   উচ্চমাধ্যমিক পরিক্ষার্থী সহ, পি.জি হাসপাতাল, বারডেম এর রোগী , পথচারীসহ  ওই  এলাকার নগরবাসীরা চরম ভোগান্তীর শিকার হয়। বিশেষ করে   উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার্থীরা অনেক সময়মতে পৌছাতে না পারার কারনে  এবং রাস্তার অরাজকতার কারনে পরীক্ষা খারাপ করে।

৯৭% মুসলমানের দেশে  কিছু হিন্দু  নূরে মুজাসসাম , হাবীবুল্লাহ , হুযুরপাক সল্লাল্লাহু  আলাইহি ওয়া সাল্লাম  উনার শানে বেয়াদবী করে, আবার দেশের সবচেয়ে বড় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে কয়েকটি হিন্দু ছাত্র ওই বেয়াদবীমূলক কর্মকান্ডের সমর্থনে উগ্রবাদী  কর্মকান্ড  , অরাজকতা চালায়, শহরের মধ্যে অবরোধ করে, আতংক সৃষ্টি করে! কিন্তু   এত কোটি মুসলমান থাকতে  এ দেশে কয়েকটি হিন্দু অরাজকতা,  উগ্রবাদী কর্মকান্ড চালানোর সাহস পায় কি করে?

এ অবস্থায়  ও কি মুসলমান ঘুমিয়ে থাকবে? জেগে  উঠবে না? নূরে মুজাসসাম , হাবীবুল্লাহ , হুযুরপাক সল্লাল্লাম হুযুরপাক সল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম  উনার প্রতি নিজেদের মহব্বত প্রমান করবেন?  ঈমানদারের পরিচয় দিবে না?

মন্ত্রী সুরঞ্জিত সেনের বক্তব্যের তীব্র নিন্দা  ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি:

ক্ষমতাসীন সরকারের রেলমন্ত্রী সুরঞ্জিত সেন যে, হিন্দু ধর্মাবলম্বী। যে কিনা ঢাকা বিশ্বাবিদ্যালয়ের কয়েকটি হিন্দু ছাত্রের  উগ্রবাদী, অরাজকতামূলক কর্মকান্ড সমর্থন করে বলেছে,ছাত্রদের  এধরনের  উগ্রবাদী, সহিংস, অরাজকতামূলক কর্মকান্ডে সে আপ্লুত, উদ্বেলিত।

রাষ্ট্র ধর্ম ইসলামের দেশে তাকে মন্ত্রী করা হলো! আর সেই মন্ত্রী দেশে  উগ্রবাদ,  ইসলাম বিদ্বেষ, সাম্প্রদায়িকতা সমর্থন করছে। আমরা তার  এ ধরনের ব্ক্তব্যের নিন্দা   এবং তীব্র প্রতিবাদ জানাই। অথচ মন্ত্রীসভার প্রায় সকল সদস্য মুসলমান দাবী করে। তারা কোন প্রতিবাদ করলো না! আমরা  উক্ত মন্ত্রীর পদত্যাগ দাবী করছি অথবা সরকারের সাথে সংশ্লিষ্টরা যদি নিজেদেরকে মুসলমান মনে করে, তবে  উক্ত মন্ত্রীকে যেন অতিসত্ত্বর বরখাস্ত করে।

আমরা মুসলমান হিসেবে  আবারো আহবান জানাবো, সকলে   নূরে মুজাসসাম , হাবীবুল্লাহ , হুযুরপাক সল্লাল্লাম হুযুরপাক সল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম  উনার প্রতি নিজেদের মহব্বত প্রমান করে   ঈমানদারের পরিচয় দিবেন।

কথিত পূজা উদযাপন কমিটির সাম্প্রদায়িক উস্কানী:

নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ, হুযূরপাক সল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম  উনার মুবারক শানে বেয়াদবীমূলক কর্মকান্ডের সমর্থনে  এবং দেশব্যাপী সাম্প্রদায়িক কর্মকান্ড ছড়িয়ে দেয়ার জন্য ১৩ এপ্রিল দেশজুড়ে প্রতিবাদ সমাবেশ ও বিক্ষোভ ঢেকেছে সাম্প্রদায়িক, হিন্দু মৌলবাদীবাদী সংগঠন কথিত পূজা  উদাযপন পরিষদ। ৯৭% মুসলমানের দেশে মুসলমানের বিরুদ্ধে, নূরে মুজাসসাম , হাবীবুল্লাহ, হুযুরপাক সল্লাল্লাহু আলাহি  ওয়া সাল্লাম   উনার শানের খিলাফ কর্মকান্ডের সমর্থনে  উগ্রবাদী,সাম্প্রদায়িক হিন্দুগোষ্ঠী কিভাবে এত কুতৎপরতার চালাতে পারে?

মুসলমানগণ! নিজেদেরকে  ঈমানদার দাবী করলে ,   উগ্রবাদী, সাম্প্রদায়িক হিন্দুদের  এহেন কুকর্মের প্রতিবাদ করুন।

২য়   আপডেট

রেলমন্ত্রীর  উপর খোদায়ী গযব: দেশের টাকা লুট-পাটে ধরা পড়েছে রেল মন্ত্রী রঞ্জিত সেন গুপ্তের  এ পি এস। রেলওয়ে নিয়োগ বাণিজ্যের টাকা কালেকশন করতে গিয়ে ড্রাইভারকে ভাগ না দেওয়ায় সে ধরিয়ে দেয়।টাকার বস্তাসহ  আটক করে পুলিশ।  উল্লেখ্য  এ মন্ত্রী দেশের মধ্যে সাম্প্রদায়িকতা   উস্কে দিচ্ছে  এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রদেরকে  উগ্রতা  এবং সহিংসতায় মদদ দিয়েছে।  এর ফল স্বরূপ খোদায়ী গযব তার  উপর  আপতিত হয়েছে। সে তার দুষ্টুমি বন্ধ না করলে আরো বড় গযব অপেক্ষা করছে তার জন্য।

৩য়  আপডেট

নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ, হুযূরপাক সল্লাল্লাহু  আলাইহি ওয়া সাল্লাম  উনার মুবারক শানে কটুক্তির প্রতিবাদে বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রদের এবং ওলামালীগের মানব বন্ধন

১১  এপ্রিল রোজ বুধবার বেলা ১১টার দিকে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে হাজার হাজার ছাত্র জনতা  উপস্থিত হয়ে নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ, হুযূরপাক ছল্লাল্লাহু  আলাইহি ওয়া সাল্লাম  উনার মুবারক শানে কটূক্তির প্রতিবাদ করেন  এবং দোষী ব্যক্তিদের ফাঁসি দাবী করেন।  উপস্থিত ছাত্র জনতা সাম্প্রদায়িক উস্কানির কারনে রেল মন্ত্রী  রঞ্জিত সেন গুপ্তের বহি:স্কার দাবী করেন। এবং ভবিষ্যতে  এধরনের ঘটনা না ঘটার জন্য সাবধান করে দেন।

৪র্থ আপডেট

কথিত বাক স্বাধীনতার মুখে ছাই দিয়ে কুলাঙ্গার চক্রান্তকারীরা “দৈনিক দৃষ্টিপাত” পত্রিকার প্রকাশনা বন্ধ করে। ওই দৈনিক পত্রিকার  একটিই দোষ। কেন পত্রিকাটি নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ, হুযুরপাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার মুবারক শানে কটুক্তির খবর প্রকাশ করেছে? আমরা  এহেন জুলুমের  এবং স্বৈরাচারীতার তীব্র প্রতিবাদ জানাই। ৯৭% মুসলানের দেশ বাংলাদেশের মুসলমানদের প্রতিবাদী মুখ স্তব্ধ করে দেয়ার ঘৃন্য ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে মুসলমানদের অবশ্যই রুখে দাঁড়াতে হবে। পৃথিবীর  ইতিহাসে কোথাও  এ নজির নেই যে, সংখ্যা লঘুদের দ্বারা সংখ্যা গুরু নির্যাতিত। প্রত্যেক মুসলমানের সামান্যতম প্রতিবাদই  এ সব র্ঘন্য চক্রান্ত নস্যাত করে দিতে পারে। তাই ঘুমিয়ে থেকে মুসলমানদের সচেতন   হওয়া এবং প্রতিবাদী হওয়া  ঈমানী দায়িত্ব।

 

br / আমরা মুসলমান হিসেবে  আবারো আহবান জানাবো, সকলে   নূরে মুজাসসাম , হাবীবুল্লাহ , হুযুরপাক সল্লাল্লাম হুযুরপাক সল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম  উনার প্রতি নিজেদের মহব্বত প্রমান করে   ঈমানদারের পরিচয় দিবেন।

কলকাতার বিজয় প্রকাশনী কর্তৃক প্রকাশিত ‘ভাঙ্গা মঠ’ নামক বইতে অত্যন্ত অশ্লীল ভাষা ব্যবহার করে সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ নবী, আখেরী রসূল নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূরপাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার মুবারক শানের খিলাফ এবং চরিত্র মুবারক নিয়ে বাজে কটুক্তি করেছে। যেখানে আখেরী রসূল নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূরপাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনাকে ‘নারী লোভী’ উল্লেখ করে বলা হয়েছে তিনি যদি এ যুগে থাকতেন তাহলে উনার নামে সম্ভ্রমহানীর অভিযোগ আসতো। নাউযুবিল্লাহ মিন যালিক!!!/p

p

/pbr /br /

Views All Time
2
Views Today
7
শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

১১২টি মন্তব্য

  1. এসব কুলাঙ্গারদের বিরুদ্ধে চরম ব্যবস্থা নিয়ে মুসলমানকে নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ, হুযূরপাক সল্লাল্লাহু আলাইহিওয়া সাল্লাম উনার প্রতি মুহব্বতের প্রমান দিতে হবে।

  2. আল্লাহ পাক উনার হাবীব ছল্লাল্লাহ আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনি মাখলুকাতের সবচেয়ে সম্মানিত। উনি মু’মিন মুসলমানের প্রাণের চেয়েও প্রিয়। উনার শানের খিলাপ যারা কিছু বলে, সেসব ফিতনাবাজদের সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদন্ড চাই Handcuffs

    • @দিগ্বিজয়ী,
      কনভার্টার লিখেছেন- এসব কুলাঙ্গারদের বিরুদ্ধে চরম ব্যবস্থা নিয়ে মুসলমানকে নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ, হুযূরপাক সল্লাল্লাহু আলাইহিওয়া সাল্লাম উনার প্রতি মুহব্বতের প্রমান দিতে হবে।

  3. বৃদ্ধ মানুষ says:

    নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার মুবারক শানে অবমানকারীর একমাত্র শাস্তি মৃত্যুদণ্ড। এটিই শরীয়ত তথা ইসলামে বিধান। এখানে বিশেষ ভাবে উল্লেখ্য অনেক মুসলমান দেশে এই আইনটি বহাল আছে। কিন্তু অনেকে এ আইনটিকে ব্লাসফেমী বলে চালিয়ে দিতে চায়। কিন্তু ব্লাসফেমী হচ্ছে সেই আইন যা খ্রিস্টানরা চালু করে তাদের চার্চ বা বিশপের বিরোধীতার শাস্তি হিসেবে।
    তাই মুসলমানরা নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার মুবারক শানের খেলাপকারীকে মৃত্যুদণ্ড দিবে এর জন্য ব্লাসফেমী আইন তলব করার দরকার নেই। ইসলামী বিধানেই মেনেই তা করা যায়।

  4. নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার মুবারক শানের খেলাপকারীকে দেখা মাত্র সমান করে (মিটিয়ে) দিতে হবে। যে করতে পারবে সে হাক্বীকি উম্মত বলে প্রমাণিত হবে।

  5. জাগো মুসলিম জাগো! এসকল নরপিশাচদের কালো থাবা ভেঙ্গে দিতে জ্বলসে ওঠো

  6. Rapid boy says:

    শাসকগোষ্ঠী একটি বিশেষ শ্রেণীর পদলেহী হলে যা হয় ।ভাবতে অবাক লাগে এদেশেও এসব ঘটে ।

  7. বৃদ্ধ মানুষ says:

    এখন একটাই দাবি, সরকারের পক্ষ থেকে দ্বীন ইসলোমের যেকোন বিষয় অবমাননার একমাত্র শাস্তি মৃত্যুদণ্ড আইন কার্যকর করা হোক।

  8. sottobadee says:

    বর্তমান সরকার ক্ষমতায় আসার পরপরেই লক্ষ্য করা যাচ্ছে যে এক শ্রেণীর হিন্দু কট্টরপন্থী ইসলাম ধর্মের প্রচারক, মানবতার মহান দিশারী, সর্বশ্রেষ্ঠ মহামানব মহাম্মাদ (সঃ) এর শানে বেয়াদবি পূর্ণ আচরণ করার সাহস পাচ্ছে। এ সব কাজের দৃষ্টান্ত মূলক সাশ্তির ব্যাবস্তা করা হলে এর আর পুনুরাবৃত্তি ঘটতনা। যেহেতু সরকার এর কোনটিরই বিচার করছেনা তাই সরকারকেই এর দায়ভার গ্রহন করতে হবে।

  9. ami_kisu_jani_na says:

    যে সরকারের আমলে এই ঘটনা ঘটুক, সে যদি বিচার না করে তবে তাকে এর দায়িত্ব নিয়ে তবে। তখন কেয়ামতে ময়দানে সরকার প্রধানকেই এর জন্য জবাবদিহি করতে হবে।

  10. হাদি উল hadi_ul says:

    বিগত কয়েক বছরে ঘটে যাওয়া এধরনের ন্যাক্কারজনক ঘটনাগুলোর পিছনে দেখা গেছে উগ্রবাদী হিন্দুরাই সরাসরি জড়িত। শতকরা ৯৭% মুসলমানের দেশে ১.৭৫% হিন্দু কি করে এ সাহস পায়? তাহলে এর পিছনে কি কোন ষড়যন্ত্রকারীগোষ্ঠী রয়েছে? বাংলার মুসলমানদের সুস্পষ্ট বক্তব্য হলো, এর পিছনে যারাই থাকুকনা কেন, এ ধরনের ঘটনার পুনরাবৃত্তি হলে তাদেরকে ভয়াবহ মূল্য দিতে হবে।

  11. এসব কুলাঙ্গাদের দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তি দেওয়া এই সরকারের জন্য ফরজ-ওয়াজিব। Knife Handcuffs

  12. ৯৭% দেশের সরকারের জন্য ফরয-ওয়াজিব হচ্ছে এসব কুলাঙ্গাদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি ব্যবস্থা।

  13. যে সকল হিন্দু মৌলবাদি ছাত্ররা হিন্দুমালুদের পক্ষে মিছিল করেছে………তাদেরকে চিহ্নিত করে রাখো হে মুসলিম…এই সংখ্যালুঘু মৌলবাদি ছাত্ররাই মুল নাটের গুরু। এদেরকেই প্রথমে দমন করতে হবে…

  14. নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার মুবারক শানে অবমানকারীর একমাত্র শাস্তি মৃত্যুদণ্ড। এটিই শরীয়ত তথা ইসলামে বিধান। এখানে বিশেষ ভাবে উল্লেখ্য অনেক মুসলমান দেশে এই আইনটি বহাল আছে। কিন্তু অনেকে এ আইনটিকে ব্লাসফেমী বলে চালিয়ে দিতে চায়। কিন্তু ব্লাসফেমী হচ্ছে সেই আইন যা খ্রিস্টানরা চালু করে তাদের চার্চ বা বিশপের বিরোধীতার শাস্তি হিসেবে।
    তাই মুসলমানরা নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার মুবারক শানের খেলাপকারীকে মৃত্যুদণ্ড দিবে এর জন্য ব্লাসফেমী আইন তলব করার দরকার নেই। ইসলামী বিধানেই মেনেই তা করা যায়।

  15. নবীন নবীন says:

    এই হিন্দু গুলি তাদের পান থেকে চুন খসলেই আন্দোলন, প্রতিবাদ আর সংখ্যালুঘু নির্যাতনের হুক্কা হুয়া রব তুলে রাস্তায় অবরোধের নামে ভাঙচুর আর অরাজকতা করে। কিন্তু আমরা মুসলমানরা কি করলাম? একের পর এক দেশব্যাপী যেন ইসলামের বিরোধিতার মচ্ছব শুরু হয়েছে। অথচ মুসলমান যেন ব্যাঙের মত শীতনিদ্রায়।
    কবে যে জাগবে মুসলিম………..?????????????

  16. real_slasher says:

    এই সমস্ত মালুর বাচ্চাদেরকে প্রথমে এক আঙ্গুল কাটা উচিত।তারপর প্রতিটি অঙ্গ আলাদা আলাদা করে কাটা উচিত।প্রতিবার অঙ্গ কাটার পর লবন মরিচ মাখিয়ে রাখা উচিত। তারপর বায়তুল মুকাররম এর সামনে তাদের অপবিত্র লাশগুলি কিমা অবস্থায় ঝুলিয়ে রাখা উচিত। এদের সমজাতীয় সবার একইভাবে অঙ্গপ্রত্যঙ্গ কেটে টুকরো টুকরো করা দরকার। Knife Knife Knife Knife Knife Knife Knife Knife Knife Knife Knife Knife Knife Knife Knife Knife Knife Knife Knife Knife Knife Knife Knife Knife Knife Knife Knife

  17. JABAL-E-NOOR JABAL-E-NOOR says:

    ওয়াজিবুল কতল …….. Knife

  18. salimuddin says:

    ধন্যবাদ লিখককে।

    আমাদের মধ্যে কী সেই মুহাম্মদ ইবনে মাসলামা নেই?

    হে আল্লাহ আপনি আমাদেরকে তাঁর যোগ্য উত্তরসূরী হওয়ার তাওফীক দান করুন, আমীন।

    এ-বিষয়ে একটি লিখে আমার বল্গে আছে, দাওয়াত রইল।

  19. এই হিন্দু নাসারা, কাফিরদের গরদান ফেলে দেওয়া জরুরি…… Hammer Hammer Hammer

  20. Muhammad Waliul Islam MINAR says:

    মুসলমান হয়ে এটাও সয্য করতে হবে…আই আল্লাহ পাক এদের জালিয়ে পুরিয়ে এমন অবস্থা করুন যেন কুকুর শ্রিগালও এদের স্পশ না করে…………আমিন।

  21. আমি কায়িনাত বাসি সবাইকে জান্নাতের সু সংবাদ দিতে চাই -কে সেই জান্নাতের সু সংবাদ নিতে চানঁ তাহলে আর দিরি না করে এই কুলাঙ্গার, যবন,স্পৃশ্য,হিন্দুদেরকে ধরে মুত্যুদন্ড প্রদান করুন। আমি আপনাদেরকে বিনা হিসাবে জান্নাতে জাওয়ার সু সংবাদ দিবো ইনশা আল্লাহ।
    আরো সু সংবাদ দিবো যে প্রিয় নবী হাবীবুল্লাহ হুযুর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার সাথে সরাসরি উনার মুবারক ছোহবত দায়িমী ভাবে অবস্থান করার। আপনি কখনো মনে করবেন না উনাদেরকে
    দেওয়ার মালিক আমি-বরং আল্লাহ পাক এবং উনার হাবীব হুযুর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম উনারাই সেই দিয়েছেন,যার প্রমাণ অসংখ্য অগনিত কুরআন শরীফ হাদীস শরীফ ইজমা এবং ক্বিয়াসে আছে-সুবহানাল্লাহ। কাজেই আর দেরি নাকরে আজকেই তাদেরকে ক্বতল করে জাহান্নামে নিক্ষেপ করে আপনি সয়ং খালিক মালিক রাব্বুল আলামীন উনাকে হাসিল করুন।
    আসুন আর দেরি নয়। আসুন আর দেরি নয়। জীবনতো একটাই সেটা নবীজীর জন্য বিলিয়ে দিয়ে তাদেরকে শিক্ষা দেই যে মুসলমানদের ঈমানি জজবার নিদর্শন। যে রকম করে গেছেন হযরত ছাহাবায়ি কিরাম রাদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহুমগণ-মহান আল্লাহ পাক আমাদেরকে কবুল করুন এবং এই ‍কুলাঙ্গার, যবন,স্পৃশ্য হিন্দুদেরকে যমীন থেকে নিশ্চন্হ করার তৈফিক দান করুন। তাদের যমীনে বেচে থাকার নূন্যতম অধিকার নেই। আয় আল্লাহ পাক আমাদেরকে গায়বী মদদ করুন।

  22. jhunuapon says:

    এসব কুলাঙ্গারদের বিরুদ্ধে চরম ব্যবস্থা নিয়ে মুসলমানকে নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ, হুযূরপাক সল্লাল্লাহু আলাইহিওয়া সাল্লাম উনার প্রতি মুহব্বতের প্রমান দিতে হবে।

  23. ডাঃ আলী says:

    পিপিলিকার পাখা গজায় মরিবার তরে । মালাউনগুলার ধ্বংস অতি নিকটে ।

  24. সূচনা সূচনা says:

    তাদের সকলকে প্রকাশ্যে কতল করা হোক KnifeHammer Knife Knife

  25. জামান says:

    সরকারের অভ্যন্তরের মন্ত্রীরা এসব কাজে মদদ দিচ্ছে। এসব সাম্প্রদায়িক মন্ত্রির বাধ্যতামূলক অপসারন চাই।

  26. sabid ahmed says:

    খুব ভােলা লাগেলা post পেড়

  27. musafir musafir says:

    A der akmatro sasti mirthudondo. Se je e hok na keno. In future jeno na korte pare sei rokom bebosta korte hobe. Ader birudde kothor bebosta na nayer karone ara ato bere gache.

  28. রাতের তারা Night star says:

    ৯৭% মুসলমানের দেশে যবন,শ্লেষ ,হিন্দুরা এত সাহস কোথায় পেল।সাবধান! সরকার মহোদয়কে বলছি এর সাথে জড়িতদের মৃত্যুদন্ড চাই। বাংলার মুসলমান আজ সোচ্চার ,সচেতন।নইলে অতসিত্তর বাংলার মুসলমানরা, কুলাঙ্গার হিন্দুগুলিকে ধরে প্রকাশ্যে কতল করে ,লাশগুলো ছিলে লবন লাগিয়ে বাংলার আনাচে কানাচে ঝুলিয়ে রাখতে বাধ্য হবে। Knife Knife Knife Pill Pill Pill Knife Knife Knife

  29. আজকে যদি এমনিভাবে বঙ্গবন্ধু ও শেখ হাসিনার অবমাননা করা হতো, তখন সরকার কী করতো?
    সরকার কী তখন পারতো একটি সময়ের জন্য হাত গুটিয়ে বসে থাকতে?

  30. jhunuapon says:

    নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার মুবারক শানে অবমানকারীর একমাত্র শাস্তি মৃত্যুদণ্ড।

  31. যে সকল কুলাংগার হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার মুবারক শানে অবমানকার কথা বলে তাদের একমাত্র শাস্তি মৃত্যুদণ্ড।

  32. ɐlƃuɐq ɾnqɐs ɐlƃuɐq ɾnqɐs says:

    যে সকল কুলাংগার হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার মুবারক শানে অবমানকার কথা বলে তাদের একমাত্র শাস্তি মৃত্যুদণ্ড।

  33. যে সকল কুলাংগার হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার মুবারক শানে অবমানকার কথা বলে তাদের একমাত্র শাস্তি মৃত্যুদণ্ড।

  34. কাশ্মিরী ফুল says:

    এক দফা একদাবী
    এই কুলাঙ্গরদের ফাসি চাই দিতে হবে,
    সরকার যদি মুসলমান হয় তাহলে তাদের ফাসি কার্যকরকরে প্রমাণ করুক।

  35. ম্লেচ্ছ, যবন, অস্পৃশ্য মালাউন গুলা বড়ই বার বারছে… এদের শাস্তি না দিলে নামধারী মুসলমানদেরকে এর জন্য কঠিন জওয়াবদিহী করতে হবে…

  36. nirvik shoinik nirvik shoinik says:

    প্রথম ঘটনা হলো, সাইয়্যিদুল মুরসালিন, ইমামুল মুরসালিন, হাবিবুল্লাহ, নূরে মুজাসসাম হুযুর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার অবমাননা, পরের ঘটনা হলো বাড়িতে আগুন। কাজেই, বাংলার ১৫ কোটি মুসলমানসহ সারা বিশ্বের ৩০০ কোটি মুসলমানের দাবী হলো- সাইয়্যিদুল মুরসালিন, ইমামুল মুরসালিন, হাবিবুল্লাহ, নূরে মুজাসসাম হুযুর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনাকে গালি দেয়ার বিচার চাই। জগন্নাথ হলের হিন্দুদের দাবীকে প্রাধান্য দেয়ার আগে ৩০০কোটি মুসলমানের প্রাণের দাবীকে পূরণ করতে হবে।

  37. “যে সকল হিন্দু মৌলবাদি ছাত্ররা হিন্দুমালুদের পক্ষে মিছিল করেছে………তাদেরকে চিহ্নিত করে রাখো হে মুসলিম…এই সংখ্যালুঘু মৌলবাদি ছাত্ররাই মুল নাটের গুরু। এদেরকেই প্রথমে দমন করতে হবে…”

    “ক্ষমতাসীন সরকারের রেলমন্ত্রী সুরঞ্জিত সেন যে কিনা ঢাকা বিশ্বাবিদ্যালয়ের কয়েকটি হিন্দু ছাত্রের উগ্রবাদী, অরাজকতামূলক কর্মকান্ড সমর্থন করে বলেছে,ছাত্রদের এধরনের উগ্রবাদী, সহিংস, অরাজকতামূলক কর্মকান্ডে সে আপ্লুত, উদ্বেলিত।”

    আর এদেরকে টাকা পয়সা দিয়ে পালছে সরকার। এই সরকার কি আসলে মুসলমানদের সরকার?????????

    “ক্বুরআন সুন্নাহ বিরোধি কোন আইন পাশ হবে না….”….কিভাবে? যেখানে এসব ঘটনার মুল হোতা সুরঞ্জিত সেনরা সরকার এর মাঝে লুকিয়ে থাকে?

  38. এসব কুলাঙ্গারদের বিরুদ্ধে চরম ব্যবস্থা নিয়ে মুসলমানকে নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ, হুযূরপাক সল্লাল্লাহু আলাইহিওয়া সাল্লাম উনার প্রতি মুহব্বতের প্রমান দিতে হবে। Knife Knife Knife Knife Knife Knife Knife
    Knife Knife Knife Knife Knife Knife Knife Knife Knife Knife Knife Knife Knife Knife

  39. আল্লাহ পাক উনার হাবীব ছল্লাল্লাহ আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনি মাখলুকাতের সবচেয়ে সম্মানিত। উনি মু’মিন মুসলমানের প্রাণের চেয়েও প্রিয়। উনার শানের খিলাপ যারা কিছু বলে, সেসব ফিতনাবাজদের সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদন্ড চাই Handcuffs

  40. সরকার যদি এর সর্বোচ্চ শাস্তি না দেয়, তাহলে এই সরকারের বাংলাদেশের ৯৭% মুসলমানের সাথে এক কথায় গোটা জাতি বা দেশের সাথে প্রতারণা করার কারণে মীর জাফরের মত ঐতিহাসিক পতন ঘটবে।

  41. ঐ সকল কুলাঙ্গারের কোন কোইফিয়ত ছাড়াই গর্দান ফেলে দেওয়া উচিত Hammer Announce

  42. এসব কুলাঙ্গারদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই।

  43. নবীন নবীন says:

    ওহে মুসলিম আসুন সকল মুসলিম মিলে ওইসকল কুলাঙ্গার কাফিরদের ধ্বংসে দোয়া করি……….

  44. ডাঃ আলী says:

    ইচ্চে করে মালাউন গুলারে Hammer Handcuffs Knife

  45. উত্তাল তরঙ্গ উত্তাল তরঙ্গ says:

    হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদ আমেরিকা থেকে বলেছে- কুরনজিতকে পাষানোর পিছনে সাতক্ষীরার এ কুৎসিত ঘটনার বিশেষ সম্পর্ক রয়েছে, আমিও তাই মনে করি..খোদায়ী গজব হিসেবে…আপনারা কি মনে করেন?

  46. নবীন নবীন says:

    বাংলাদেশে এসব কিছুর মুল হোতা ও উস্কানিদাতারা হলো সুরঞ্জিতগোষ্ঠী….

  47. সাধারণ মানুষ সাধারণ মানুষ says:

    1st Ghotonay .. bola jasse je Ei Golpota sadharonoto class ei porano hoy H.s.C -y . Ja Hindu, Christan 1kothay bola jay je tader kisu writer er book.
    protibad,,,,,,,,, er jonno 1ta Knife er proyojon ja diyaa oder ke Kotol+puray dite hobe jeno oder ostitto Ei prithibite na thake…….
    that need my…..
    [img]http://www.sabujbanglablog.net/wp-content/uploads/2012/04/genaralman.jpg[/img]

  48. নূরে মুজাদ্দিদি Noore Mujaddi says:

    যারা নূরে মুজাসসাম হাবিবুল্লাহ হুযুর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার শান মান মুবারক নিয়ে বেয়াদবি করে থাকে তাদেরকে দুনিয়ার জমিনে থাকতেই সর্ব নিকৃষ্ট পন্থায় মৃত্যু দণ্ড দেয়া উচিত । মুসলমানদের দেশের সরকারদের উচিত এদের মৃত্যু দণ্ড বাস্তবায়ন করা ।

  49. এই হিন্দুদের আরেক দালাল বিডি নিউজ 24.com,
    তারা সাতক্ষীরার ঘটনাকে অন্যদিকে ডাইভার্ড করার জন্য অপচেষ্টা চালাচ্ছে,
    মুসলমানগণ সাবধাণ। খবর দেখুন ২৩/৪/১২তারিখের পত্রিকা।

  50. Knife আমরা তাদের সকলেরই মৃতুদন্ড চাই । যারা তাদের পৃষ্ঠপোষকতা করে তাদের ও উপযুক্ত বিচার চাই । Knife

  51. হিন্দুরা অন্যতম বিশ্ব সন্ত্রাসী।

  52. ****নাঈম দুর্জয়**** says:

    এদের বিচার করা দরকার

  53. ****নাঈম দুর্জয়**** says:

    বিচার করতে হবে

  54. auto says:

    এখন মাত্র কাল বিড়াল বের হল। দেখা যাক সামনে কত সুন্দর সুন্দর উপহার নিয়ে আসবে।

  55. auto says:

    চোখ বন্ধ করে আগুনে হাত দিলে হাত পুড়ে Thunder । আর চোখ খুলে আগুনে হাত দিলে হাত পুড়ে Thunder

  56. উল্লাপাড়া আনজুমানে আল বাইয়্যিনাত শরীফ উল্লাপাড়া says:

    কায়িনাত জুরে একটিই নাম মুহম্মদ সল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম। হৃদয়ে মোদের ইশকের আগুন। ধ্বংস করবো নূর নবীজির সকল দুশমনদের। আমাকে একটি জুলফিকার দাও ভাই। একটি জুলফিকার! .একটি জুলফিকার!! একটি জুলফিকার!!! একটি জুলফিকার !!!!!

  57. ডাঃ শাহনুর সায়েম নূর says:

    কায়িনাত জুরে একটিই নাম মুহম্মদ সল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম। হৃদয়ে মোদের ইশকের আগুন। ধ্বংস করবো নূর নবীজির সকল দুশমনদের। আমাকে একটি জুলফিকার দাও ভাই। একটি জুলফিকার! .একটি জুলফিকার!! একটি জুলফিকার!!! একটি জুলফিকার !!!!!

  58. গোলামে মাদানীউল আরাবী গোলামে শামসে এলাহী says:

    শতকরা ৯৭% মুসলমানের দেশে ১.৭৫% হিন্দু কি করে এ সাহস পায়?

  59. আয় আল্লাহপাক! ওই সকল বিধর্মী হিন্দু মুশরিকদের ধ্বংস করে দিন, নিস্তানাবুদ করে দিন, নিশ্চিহ্ন করে দিন, আগুনের সাথে- পানির সাথে- মাটির সাথে- বাতাসের সাথে মিশিয়ে দিন, অস্তিত্ব বিলীন করে দিন_______আমিন! আমিন!! আমিন!!!

  60. বার বার এসব করে কাফিরেরা মুসলমানদের ঈমানী জযবা পরীক্ষা করছে…অবস্থাবুঝে যেনো তারা তাদের চুড়ান্ত কালো ছোবল মারতে পারে। …..আমরা মুসলিম কোনো কাফিরকেই এই সুযোগ দিতে পারি না। আমরাও ‘মাহমুদ হাসান খোকনে’র সাথে একাত্মতা ঘোষনা করছি। আমরা ওই সকল কুলাঙ্গারদের কঠিন ও দৃষ্টান্তমুলক শাস্তি দাবি করছি। নচেত এ দেশে আবারো আরো একটি বিপ্লব ঘটে যাবে, যা কেউ দমাতে পারবে না, সেই বিপ্লবে এখনকার ক্ষমতানসীনরাও ভেসে যাবে তারাও রক্ষা পাবে না।
    জাগো মুসলিম! নুর নবীজি উনার অবমাননার প্রতিবাদে জ্বলে ওঠো, জ্বলে ওঠো

  61. ঐ কুলাঙ্গার আজাদ বিক্রমপুরের রাড়িখালে একটি মেয়েকে সে বিয়ে না করে গর্ভবতী করে। এবর্শন করানোর জন্য ঢাকার এক হাসপাতালে ভর্তি করে। সেখানে টাকা না দিয়ে পালানোর চেষ্টা করলে হাসপাতালের লোকেরা আটক করে। রাড়িখালেরই এক লোকের জিম্মায় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে চেক দিয়ে সটকে পরে। পরে সেই চেকটিও ডিসঅনার হয়। কিন্তু ঘটনাটি জানাজানি হয়ে গেলে এই কুলাঙ্গার পালিয়ে ভারত চলে যায় এবং সেখানের উগ্রবাদী বিজেপি দলের সাথে সখ্যতা গড়ে তুলে।(নাউজুবিল্লাহ্).

  62. মুসলিম এখন গাফেল হয়ে দুনিয়ার দিকে ঝুকে পড়েছে, এজন্য দুনিয়া যা বলে তাই সাধারণ মুসলিমরা করে।
    এজন্য সমস্যা গুলো হচ্ছে। আর এই কারণেই কবি বলেছেনঃ
    “কোথায় সে মুসলমান! কোথায় সে মুসলমান!!
    বিনা কলে হাওয়ায় চলে তখতে সুলাইমান”
    [img]http://www.sabujbanglablog.net/wp-content/uploads/2012/06/My Sword.jpg[/img]

  63. এইসব মালউনদের গর্দান জনসম্মুখে নামিয়ে ফেলা উচিত Knife

  64. বাংলাব্লগ৥ আপনি যা লিখেছেন তা অবশ্যেই বিশ্বাস করি। কারণ যারা নুর নবীজি উনার বিরোধিতা করে তারা অবশ্যই সবাই বদচরিত্র। কোন সৎ চরিত্রের লোক উনাদের বিরোধিতা করতে পারে না। এটাই স্বাভাবিক।
    ধন্যবাদ আপনাকে এ ঘিটনাটি শেয়ার করার জন্য। এতে রয়ে গেছে মুসলমানদের জন্য নছীহত।

  65. drohanol drohanol says:

    মুরতাদদেরকে টুকরা টুকরা করে কুকুর দিয়ে খাওয়ানো উচিৎ Knife Knife Mail Knife

  66. একটি প্রাসঙ্গিক পোস্ট

    http://www.sabujbanglablog.net/28414.html

    ভাঙ্গা মঠ অপন্যাসের লেখক সালাম আজাদ:একজন প্রতারক ওরফে মানবাধিকার লেখকের প্রতিকৃতি

  67. মুহম্মদ রফিক Rafiq says:

    তারা সকলেই হচ্ছে মালউনদের চেলা। তাদের সকলকে জনসম্মুখে এডিস দিয়ে ঝলসে গলিয়ে ফেলা উচিত।

  68. জাগো মুসলিম! নুর নবীজি উনার অবমাননার প্রতিবাদে জ্বলে ওঠো, জ্বলে ওঠো……..kotol koro eder …………

  69. আয় আল্লাহপাক! ওই সকল বিধর্মী হিন্দু মুশরিকদের ধ্বংস করে দিন, নিস্তানাবুদ করে দিন, নিশ্চিহ্ন করে দিন, আগুনের সাথে- পানির সাথে- মাটির সাথে- বাতাসের সাথে মিশিয়ে দিন, অস্তিত্ব বিলীন করে দিন_______আমিন! আমিন!! আমিন!!! Knife Knife Knife Knife Knife Knife Knife Knife Knife Knife Knife Knife Knife Knife Knife Knife Knife Handcuffs Handcuffs Handcuffs Handcuffs Knife Knife Knife Knife Handcuffs Handcuffs Handcuffs Handcuffs Handcuffs Handcuffs Handcuffs Handcuffs Knife Knife Knife Knife Knife

  70. ডা: মুহম্মদ আনিসুল ইসলাম says:

    আয় আল্লাহপাক— জমিনে ওদের কঠিন আযাব গজব দিন যাতে আর কোনদিন ওরা এ কাজ করার সাহস না পায়……।

  71. তাদের কি সংশয় নাই যারা কিনা মুসলিম বলে নিজেকে দাবি করে এখনও দুনিয়া নি্যে প্রীতিতে রয়েছে…

  72. Raju Raju says:

    আসলে এদের একমাত্র শাস্তি প্রকাশ্যে মৃত্যুদন্ড।
    বিষয়টি তুলে ধরার জন্য আপনাকে Moon

  73. An-noor An-noor says:

    এদের একমাত্র শাস্তি প্রকাশ্যে মৃত্যুদন্ড।
    বিষয়টি তুলে ধরার জন্য আপনাকে Star

  74. গড়াই নদী syeda13 says:

    সকল মুসলিম জাহান কে এদের বিরুদ্ধে জিহাদ ঘোষনা করতে হবে। Announce

  75. ****নাঈম দুর্জয়**** says:

    ai post guli onnoblog o deya uchit

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে