পবিত্র কুরআন শরীফ ও পবিত্র হাদীছ শরীফ উনাদের আলোকে খলীফাতুল মুসলিমীন, আমীরুল মু’মিনীন মামদূহ মুর্শিদ ক্বিবলা সাইয়্যিদুনা ইমাম খলীফাতুল্লাহ হযরত আস সাফফাহ আলাইহিছ ছলাতু ওয়াস সালাম তিনিই হচ্ছেন বর্তমানে বাংলাদেশসহ সমগ্র বিশ্বের চরম নির্যাতিত ও নিপীড়িত মানুষের একমাত্র মুক্তির দিশারী। সুবহানাল্লাহ!-ধারাবাহিক।


পবিত্র কুরআন শরীফ ও পবিত্র হাদীছ শরীফ উনাদের আলোকে খলীফাতুল মুসলিমীন, আমীরুল মু’মিনীন মামদূহ মুর্শিদ ক্বিবলা সাইয়্যিদুনা ইমাম খলীফাতুল্লাহ হযরত আস সাফফাহ আলাইহিছ ছলাতু ওয়াস সালাম তিনিই হচ্ছেন বর্তমানে বাংলাদেশসহ সমগ্র বিশ্বের চরম নির্যাতিত ও নিপীড়িত মানুষের একমাত্র মুক্তির দিশারী। সুবহানাল্লাহ!-ধারাবাহিক।
*****************************************************************
অনেকেই বর্তমান বিশ্বপরিস্থিতিতে প্রশ্ন করেছেন- ইসলামী খিলাফত আবার কবে ফিরে আসবে দুনিয়া মাঝে?
এই প্রশ্নের উত্তরও কিন্তু মহান আল্লাহ পাক তিনি পবিত্র কুরআন শরীফ-এ সুরা নুর-এ ৫৫ নং আয়াতে পাকে বলে দিয়েছেন-
وَعَدَ اللَّهُ الَّذِينَ آمَنُوا مِنكُمْ وَعَمِلُوا الصَّالِحَاتِ لَيَسْتَخْلِفَنَّهُم فِي الْأَرْضِ
অর্থাৎ, তোমার যখন প্রকৃত ঈমান আনবে বা ঈমানদার হতে পারবে এবং একই সাথে আমলে সালেহ অর্থাৎ সুন্নাহ মুতাবিক নিজেদের আমল আখলাক সুসজ্জিত করতে পারবে তখনি তোমাদেরকে খিলাফত অর্থাৎ শাসন কতৃত্ব দান করা হবে- এটাই খালিক মালিক রব আল্লাহ পাক উনার ওয়াদা। সুবহানাল্লাহ!
 
পূর্ব প্রকাশিতের পর —
*****************************
আমরা যেই বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করে আসছি মুজাদ্দিদে আ’যম মামদূহ মুর্শিদ ক্বিবলা সাইয়্যিদুনা ইমাম হযরত আস সাফাফাহ আলাইহিছ ছলাতু ওয়াস সালাম তিনি হচ্ছেন, উলুল আযমি মিনার রুসুল তথা স্বয়ং যিনি সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, খাতামুন নাবিইয়ীন, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্রাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার পরিপূর্ণ ক্বায়িম-মাক্বাম। সুবহানাল্লাহ! অর্থাৎ তিনি শুধু যিনি সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, খাতামুন নাবিইয়ীন, নূরে মুজাস্সাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি নন, এছাড়া সমস্ত মর্যাদা-মর্তবা, শান-মান, ফাযায়িল-ফযীলত, বুযুর্গী-সম্মান মুবারক উনার অধিকারী। সুবহানাল্লাহ! আর এই সম্পর্কে সম্মানিত ছহীহ হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক হয়েছে,
عَنْ حَضْرَتْ عَبْدِ الرَّحْمٰنِ بْنِ الْعَلَاءِ الْحَضْرَمِيِّ رَحْمَةُ اللهِ عَلَىْهِ قَالَ حَدَّثَنِىْ مَنْ سَمِعَ النَّبِيَّ صَلَّى اللهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ يَقُوْلُ: إِنَّه سَيَكُوْنُ فِىْ اٰخِرِ هٰذِهِ الْأُمَّةِ قَوْمٌ لَـهُمْ مِثْلُ أَجْرِ أَوَّلِـهِمْ يَأْمُرُوْنَ بِالْمَعْرُوْفِ وَيَنْهَوْنَ عَنِ الْمُنْكَرِ وَيُقَاتِلُوْنَ أَهْلَ الْفِتَنِ.
“হযরত আব্দুর রহমান ইবনে আলা হাদ্বরমী রহমতুল্লাহি আলাইহি তিনি বলেন, আমার নিকট এমন এক সুমহান ব্যক্তিত্ব মুবারক তিনি সম্মানিত হাদীছ শরীফ বর্ণনা করেছেন, যিনি সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, খাতামুন নাবিইয়ীন, নূরে মুজাস্সাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনাকে ইরশাদ মুবারক করতে শুনেছেন, নিশ্চয়ই অদূর ভবিষ্যতে এই সম্মানিত উম্মত উনার শেষের দিকে (তথা যামানার শেষের দিকে) এক মহাসম্মানিত ক্বওম তথা সম্প্রদায় উনার তাশরীফ মুবারক ঘটবে। উনাদের প্রতিদান তথা শান-মান, ফাযায়িল-ফযীলত, বুযুর্গী-সম্মান মুবারক হবে প্রথমে যাঁরা রয়েছেন উনাদের ন্যায়। উনাদের সম্মানিত খুছূছিয়াত বা বৈশিষ্ট্য মুবারক হচ্ছেÑ উনারা যাবতীয় নেক কাজ মুবারক উনাদের আদেশ করবেন এবং বদ কাজ তথা বের্পদা-বেহায়া, টিভি, ছবি, হরতাল, লংমার্চ, গণতন্ত্র, রাজতন্ত্র, ব্যভিচার, অত্যাচার, অবিচার, সুদ-ঘুষ ইত্যাদি যাবতীয় হারাম-নাজায়িয ও কুফরী শিরকীমূলক কাজের নিষেধ করবেন (অর্থাৎ উনারা সম্মানিত কুরআন শরীফ ও সম্মানিত হাদীছ শরীফ তথা সম্মানিত শরীয়ত উনার সমস্ত বিধি-বিধান মুবারকগুলো পরিপূর্ণরূপে জারি করবেন)। আর উনারা আহলে ফিতান তথা ইহুদী, খ্রিস্টান, হিন্দু, বৌদ্ধ, মজূসী, মুশরিক, কাফির, গুমরাহ, পথভ্রষ্ট, মুনাফিক ও উলামায়ে সূ’দের বিরূদ্ধে জিহাদ করবেন, তাদেরকে ক্বতল করবেন, তাদেরকে নিশ্চিহ্ন করে দিবেন, তাদেরকে মিটিয়ে দিবেন। অর্থাৎ তাদেরকে মিটিয়ে দিয়ে, নিশ্চিহ্ন করে দিয়ে দুনিয়ার যমীনে সম্মানিত খিলাফত আলা মিনহাজিন নুবুওওয়াহ মুবারক জারি করবেন। সুবহানাল্লাহ!” (বাইহাক্বী শরীফ, তাফসীরে মাযহারী শরীফ, মিশকাত শরীফ ইত্যাদি)
 
এই সম্মানিত ছহীহ হাদীছ শরীফ উনার সমর্থনে ছিহাছিত্তার অন্যতম প্রসিদ্ধ কিতাব ‘তিরযিমী শরীফসহ’ আরো অন্যান্য বিশুদ্ধ হাদীছ শরীফ উনাদের বিশ্বখ্যাত কিতাবসমূহে বিশুদ্ধ সনদে বর্ণিত হয়েছে,
عَنْ حَضْرَتْ اَنَس ٍ رَضِىَ اللّٰــهُ تَعَالىٰ عَنْهُ قَالَ قَالَ رَسُوْلُ اللّٰـهِ صَلَّى اللّٰـهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ مَثَلُ أُمَّتِىْ مَثَلُ الْمَطَرِ لَا يُدْرٰى أَوَّلُه خَيْرٌ أَمْ اٰخِرُه .
 
অর্থ: “হযরত আনাস রদ্বিয়াল্লাহু তা‘য়ালা আনহু উনার থেকে বর্ণিত। তিনি বলেন, যিনি সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, খাতামুন নাবিইয়ীন, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, আমার সম্মানিত উম্মত উনার দৃষ্টান্ত হচ্ছে বৃষ্টির ন্যায়। বুঝা যায় না যে, উহার প্রথম ভাগ উত্তম না শেষ ভাগ উত্তম।” (তিরমিযী শরীফ, মুসনাদে আহমদ ৩/১৩০, ইবনে হাব্বান ১৬/২১০, মুসনাদে বাযযার ৪/২৪৪, মুসনাদে ত্বয়ালসী ২/৩৮, মুসনাদে আবী ইয়া’লা ৬/৩৮০, মু’জামুল আওসাত্ব ৪/২৩১, আহকামুশ শরীয়াহ ৪/৪৬৩, মা‘য়ানিল আখবার ১/৩৭২, মু’জাম ইবনে আ’রবী ৩/৯০, আল মাত্বালিবুল আলিয়াহ ১৭/১২০, মাঝমাউঝ ঝাওয়াইদ ১০/৬, জামিউছ ছগীর ২/২৯২, আল ফাতহুল কাবীর ৩/১২৪, আল মাক্বাছিদুল হাসানাহ ১/৫৯১, তুহফাতুল আশরাফ ১/১৩০, জামিউল আহাদীছ ১৯/৩৪, জামিউল উছূল ৯/৬৭৭০, কাশফুল আসতার ৩/১৬৮, মিশকাত শরীফ, জামউল জাওয়ামি’, মাকতূবাত শরীফ ১/৩৩৩ ইত্যাদি)
উল্লেখ্য যে, বাত্বিলপন্থীরাও এই সম্মানিত হাদীছ শরীফখানা উনাকে ছহীহ হিসেবে মেনে নিয়েছে। যেমনÑ কাট্টা ওহাবী মাওলানা নাছিরুদ্দীন আলবানী সেও তার পুস্তকে এই সম্মানিত হাদীছ শরীফখানা উনাকে ছহীহ হিসেবে উল্লেখ করেছে। (দলীল: আস সিলসিলাতুছ ছহীহাহ লিল আলবানী ৫/২৮৫, পবিত্র হাদীছ শরীফ নং : ২২৮৬)
অন্য সম্মানিত হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক হয়েছে,
عَنْ حَضْرَتْ اَبِى الدَّرْدَاءِ رَضِىَ اللّٰـهُ تَعَالٰی عَنْهُ قَالَ قَالَ رَسُوْلُ اللّٰـهِ صَلَّى اللّٰـهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ خَيْرُ أُمَّتِىْ اَوَّلُـهَا وَاٰخِرُهَا وَفِىْ وَسَطِهَا الْكَدَرُ.
“হযরত আবূ দারদা রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু উনার থেকে বর্ণিত। তিনি বলেন, যিনি সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, খাতামুন নাবিইয়ীন, নূরে মুজাস্সাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, “আমার সম্মানিত উম্মত উনাদের মধ্যে শ্রেষ্ঠ হচ্ছেন, পূর্ববর্তীগণ এবং পরবর্তীগণ। আর মাঝখানে ব্যতিক্রম রয়েছে।” (নাওয়াদিরুল উছূল লিলহাকীম তিরমিযী, মাকতূবাত শরীফ ১/৪৫৪, মা‘য়ানিল আখবার ১/৩৭৬, ফয়যুল ক্বাদীল ৩/৬৪৪, আত তাইসির ১/১০৭২, আল ফাতহুল কাবীর ২/৯৪, জামিউল আহাদীছ ১২/৩৬৬, জামউল জাওয়ামি’ ১/১২২৩৫ ইত্যাদি) (ইনশাআল্লাহ চলবে)
 
শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে