পবিত্র কুরবানীতে বাধা দিলে লানতগ্রস্ত হতে হবে


যিনি খালিক্ব মালিক রব মহান আল্লাহ পাক তিনি কালামুল্লাহ শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক করেন, ‘তোমরা নেক কাজে পরস্পরকে সহায়তা কর, পাপ ও বদকাজের মধ্যে সহায়তা করো না’। সুগভীর তাৎপর্যপূর্ণ এই মহান নির্দেশ মুবারক মুসলমান মাত্রেরই জানা রয়েছে। তবে ফিকিরের বিষয় এই যে, নেক কাজে সহায়তা করা মু’মিন এবং নেককার বান্দাদের খাছলত। আর নেককাজে বাধাদানকারী কিংবা পাপকাজে সহায়তা দানকারী হচ্ছে ইবলিস যে চির লানতগ্রস্ত, মালউন। এখন মুসলমানদের সামনে একটি অত্যন্ত সম্মানিত ফযীলতপূর্ণ আমল আসন্ন। এই ফযীলতপূর্ণ আমলটি যাতে সুষ্ঠুভাবে, অক্লেশে সবাই করতে পারে সেজন্য সকল পক্ষ থেকে সহায়তা করা উচিত এবং বিশেষ করে সরকারের উচিত প্রত্যেক মহল্লায় কুরবানীর পশুর হাটের ব্যবস্থা করা যাতে মুসলমানগণ অনায়াসে গরু কিনে কুরবানী দিতে পারেন। হাটগুলোকে দূরে দূরে রেখে যারা এই নেক আমলকে কষ্টসাধ্য করে তুলতে সহায়তা করবে তারা লানতগ্রস্থ হবে, আযাব গযবে নিপতিত হবে। নাউজুবিল্লাহ!

শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে