পবিত্র কুরবানীর কোনো বিকল্প নেই


 

স্বয়ং নুরে মুজাস্সাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ইরশাদ মুবারক করেন- “পবিত্র ঈদুল আদ্বহার দিন যে ব্যক্তি সামর্থ্যবান হওয়ার পরও কুরবানী করবে না, যে যেন ঈদগাহের নিকটেও না আসে।” কত শক্ত ও কঠিন বিষয় বলা হয়েছে কুরবানীর বিষয়ে। এরপরও একটি শ্রেণী আছে যারা বিভিন্ন অজুহাতে ও নানা রকম ছলচাতুরি করে কুরবানী দিতে চায় না। আবার ইদানীং অনেকে বলে- কুরবানী না করে, সে টাকা দরিদ্রদের দিয়ে দিতে। নাউযুবিল্লাহ! যারা সামর্থ্য থাকার পরও কুরবানী দিতে টালবাহানা করে তারা যে মহান আল্লাহ পাক উনার ও উনার হাবীব নুরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনাদের কতবড় নাফরমান সেটা বুঝার জন্য উপরোক্ত হাদীছ শরীফখানাই যথেষ্ট।
শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে