পবিত্র কুরবানী এবং মুসলমানদের অধিকার


যিনি খলিক্ব, যিনি মালিক, যিনি রব মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন-
وَلَا تَنسَ نَصِيبَكَ مِنَ الدُّنْيَا
অর্থ: দুনিয়াতে তুমি তোমার অধিকার ভুলে যেওনা। (পবিত্র সূরা ক্বছাছ শরীফ: পবিত্র আয়াত শরীফ ৭৭)
দুনিয়াতে নিজেদের অধিকার গুলো ভুলে যাওয়া যাবেনা বরং আদায় করে নিতে হবে, এটাই মহান আল্লাহ পাক উনার নির্দেশ মুবারক, তাই পবিত্র কুরবানী সম্পর্কে মুসলমানদের অধিকারগুলোও ভুলে গেলে চলবেনা, এখানে পবিত্র কুরবানী উপলক্ষে মুসলমানদের অধিকার এবং দাবীসমূহ উল্লেখ করা হলো-
১। পবিত্র কুরবানী উপলক্ষে সরকারীভাবে আর্থিক সহায়তা করতে হবে।
২। পবিত্র কুরবানী উপলক্ষে অফিস-আদালত কমপক্ষে ১০ দিন এবং শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে কমপক্ষে ২০ দিন ছুটি দিতে হবে।
৩। পবিত্র কুরবানীর পশুর হাট কমানো যাবেনা। বরং প্রত্যেক এলাকায় এলাকায় পশুর হাট বসানোর সুযোগ করে দিতে হবে।
৪। পবিত্র কুরবানী করার স্থান নির্ধারন করা যাবেনা। বরং নিজ নিজ বাস স্থানে কুরবানী করার ব্যবস্থা করে দিতে হবে এবং কুরবানী পরবর্তী কুরবানীর বর্জ্য সরানোর সার্বিক ব্যবস্থা করতে হবে।
৫। মানুষ যেন সূলভ মূল্যে পশু ক্রয় করতে পারে সেজন্য সরকারকেই পশুর মূল্য নিয়ন্ত্রন করতে হবে।
৬। প্রতি বছরই পবিত্র কুরবানী বিদ্বেষী একটি গোষ্ঠি বিভিন্ন জায়গায় গর” কুরবানী করতে বাধা প্রদান করে এবং নির্যাতন করে। তাই প্রত্যেকেই যেন নির্বিঘেœ, নির্ভয়ে গর” কুরবানী করতে পারে সে ব্যাপারে নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে হবে।
৭। যে সকল মিডিয়া কুরবানী এবং গর” জবেহ করার বির”দ্ধে প্রচার করে, সে সকল মিডিয়া বন্ধ করে দিতে হবে।
৮। প্রত্যক্ষ এবং পরোক্ষভাবে যে সকল ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠান পবিত্র কুরবানীর বির”দ্ধে বলে তাদের বির”দ্ধেও আইনি ব্যবস্থা নিতে হবে।
৯। যে সকল সংগঠন ইতিপূর্বে পবিত্র কুরবানীর বিরোধিতা করেছে এবং বলেছে সে সকল সংগঠন নিষিদ্ধ ঘোষনা করতে হবে।
১০। পবিত্র কুরবানী বাধাগ্রস্থ করতে কতিপয় অসৎ ব্যবসায়ীরা দ্রব্যমূল্য বাড়িয়ে দেয়, কাজেই কুরবানী উপলক্ষে মসল্লাসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় সবকিছুর মূল্য কঠোরভাবে নিয়ন্ত্রন করতে হবে।
১১। বৃষ্টির কারণে অনেক ঈদগাহে ঈদের নামায আদায় করতে সমস্যা দেখা দেয়, ঈদের নামায যেন নির্বিঘেœ আদায় করতে পারে সে ব্যবস্থা সরকারকেই করে দিতে হবে।
আমাদের এই দাবীগুলো আমাদের দ্বীনী অধিকার, তাই আমাদের অধিকারগুলো মেনে নেওয়ার এবং বাস্তবায়ন করার জোর দাবি জানাচ্ছি। ৯৮% মুসলমানদের দেশ বাংলাদেশে পবিত্র কুরআন শরীফ ও পবিত্র সুন্নাহ শরীফ বিরোধী কোন আইন পাশ হবেনা এই প্রতিশ্র”তি প্রদানকারী সরকারের জন্য ফরজ হচ্ছে আমাদের এই দাবীগুলো মেনে কার্যকরী পদক্ষেপ গ্রহন করা।

শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে