পবিত্র কুরবানী নিয়ে ষড়যন্ত্রকারীদেরকে রুখে দেয়া হোক


যারা পবিত্র কুরবানী নিয়ে ষড়যন্ত্র করে থাকে তাদের থেকে সাবধান। কেননা তারা মুসলমানদের চরম শত্রু। যারা পবিত্র কুরবানী নিয়ে ষড়যন্ত্র করে থাকে তারাই মূলত দ্বীন ইসলাম উনার বিরোধী। ৯৮ ভাগ মুসলিম অধ্যুষিত দেশে কি করে মুসলমানদের বিরুদ্ধে, পবিত্র কুরবানীর বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র হতে পারে? কোনো ঈমানদার মুসলমান তা বরদাশত করতে পারে না। ষড়যন্ত্রকারীরা মুসলমানদের কষ্ট দিতে রাজধানীর মধ্যে পবিত্র কুরবানীর পশুর হাট কমিয়ে দিচ্ছে।
উল্লেখ্য, ইতিহাসে দেখা যায় পবিত্র কুরবানী নিয়ে ষড়যন্ত্র করেছিলো চরম ইসলামবিদ্বেষী কাট্টা মুশরিক চির জাহান্নামী গৌরগোবিন্দ। এছাড়াও পথভ্রষ্ট গুমরা শাসক বাদশাহ আকবর হিন্দুদের দ্বারা প্রভাবিত হয়ে পবিত্র কুরবানী নিয়ে কঠোরতা জারি করেছিলো। বর্তমান প্রেক্ষাপটেও দেখা যাচ্ছে, ৯৮ ভাগ মুসলমান অধ্যুষিত দেশের শাসকগোষ্ঠী হিন্দু মুশরিকদের দ্বারা প্রভাবিত হয়ে পবিত্র কুরবানী নিয়ে জটিলতা সৃষ্টি করছে।
সুতরাং সরকারকে মনে রাখতে হবে, গৌর গোবিন্দ ও বাদশাহ আকবর কেউই কিন্তু তাদের ক্ষমতা ধরে রাখতে পারেনি। কেননা মুসলমানরা তাদের চাপিয়ে দেয়া ষড়যন্ত্র বরদাশত করেনি। এখনো যদি সরকার পবিত্র কুরবানী নিয়ে ষড়যন্ত্র করতে চায়, এদেশের ৯৮ ভাগ অধিবাসী মুসলমান উনারা তা বরদাশত করবে না। তাই আসন্ন পবিত্র ঈদুল আযহা উপলক্ষে মুসলমানদের সমস্ত সুযোগ সুবিধা প্রদান করতে হবে, ইসলামবিদ্বেষীদের ষড়যন্ত্র রুখে দিতে হবে।

শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে