পবিত্র মসজিদ ভাঙ্গার সুক্ষ্ম ষড়যন্ত্র মুসলমান বরদাস্ত করবে না


মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন,
إِنَّ عَذَابِي لَشَدِيدٌ
অর্থ: “নিশ্চয়ই মহান আল্লাহ পাক উনার আযাব বড় কঠিন।”(সম্মানিত ও পবিত্র সূরা ইবরাহীম শরীফ; সম্মানিত ও পবিত্র আয়াত শরীফ ৭)
মহান আল্লাহ পাক তিনি আরো ইরশাদ মুবারক করেন,
لَا تُحِلُّوا شَعَائِرَ اللَّهِ
অর্থ: “তোমরা মহান আল্লাহ পাক উনার নিদর্শন সমূহকে অসম্মান করো না।”(সম্মানিত ও পবিত্র সূরা মায়িদা শরীফ; সম্মানিত ও পবিত্র আয়াত শরীফ ২)
মহান আল্লাহ পাক উনার অন্যতম ও পবিত্রতম নিদর্শন মুবারক হচ্ছেন পবিত্র মসজিদ।
সরকার ও তার সহযোগী প্রতিষ্ঠানগুলো রাস্তা নির্মাণ ও দেশ উন্নয়নের নামে মুসলমানদের পবিত্র স্থান, মহান আল্লাহ পাক উনার পবিত্রতম নিদর্শন মসজিদ ভেঙ্গে রাস্তা নির্মান করতে উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। নাউযুবিল্লাহ!
সরকারকে স্মরণ রাখতে হবে যে- সরকারের জন্য সম্মানিত দ্বীন ইসলাম উনার কোনো আদেশ ও নিষেধের উপর হস্তক্ষেপ করার কোনো অধিকার নেই।
আরো স্মরণ রাখতে হবে যে- মনগড়া সিদ্ধান্তের কারণে বহু ধরনের ফিতনা-ফাসাদ সংঘটিত হবে। সাথে সাথে সরকারের উচিত হবে মসজিদ না ভেঙ্গে রাস্তাকে ঘুরিয়ে নেয়া।
ইসলাম ও মুসলমানদের ঐতিহ্য বিজড়িত স্থান পবিত্র মসজিদ ভাঙ্গার চক্রান্ত হচ্ছে। ঈমানদার জনতা তা রুখে দিবে। পাশ্ববর্তী দেশসহ ইহুদী ও কাফিরদের প্রেসক্রিপশন অনুযায়ী খোড়া অজুহাতে পবিত্র মসজিদের বিরুদ্ধে যে কোন ষড়যন্ত্র ও চক্রান্ত চলছে মুসলমানরা জীবন দিয়ে হলেও রুখবে।
স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় ও কতিপয় নামধারী মূর্খ, ভুয়া ইঞ্জিনিয়ারদের এ সমস্ত অযৌক্তিক চিন্তাপ্রসূত কার্যাবলী গন্ডমুর্খতার শামিল। ইতোপূর্বে তো কোন মসজিদ ভেঙ্গে ফেলা হয়নি। পরিবেশের সমস্যা হয়নি। চলাচলের বিঘœতা ঘটেনি। হঠাৎ করে চলাচলের পরিবেশের অজুহাত কেন তোলা হলো তাও ভাবতে হবে।
কাজেই রাস্তা তৈরীর দোহাই দিয়ে পবিত্র মসজিদ ভাঙ্গার গভীর ষড়যন্ত্রের অপরিনামদর্শিতা থেকে বিরত থাকলে দেশ, জাতি ও মানবতার কল্যাণ হবে। অন্যথায় অকল্যাণই বয়ে আনবে।
মুসলমানরা কখোনই সরকারের এসব সিদ্ধান্ত মেনে নেবে না বরং তাদের সিদ্ধান্তকে জনগনের সামনে ভুল স্বীকার না করলে এর বিরুদ্ধে তীব্র প্রতিবাদ গড়ে তুলবে। তাছাড়া মনে রাখতে হবে মহান আল্লাহ পাক উনার পাকড়াও বড়ই কঠিন।

Views All Time
1
Views Today
2
শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে