পবিত্র যাকাত আদায় না করলে নামাযও কবুল হবে না


নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি পবিত্র হাদীছ শরীফ উনার মাঝে ইরশাদ মুবারক করেন, যে ব্যক্তি যাকাত আদায় করবে না, তার নামায কবুল হবে না।
আর মহাসম্মানিত ও বিশিষ্ট ছাহাবী আমিরুল মুমিনীন, খলীফাতুল মুসলিমীন হযরত ছিদ্দীকে আকবর আলাইহিস সালাম তিনি বলেছেন, যারা নামায ও যাকাতের মধ্যে পার্থক্য করে তাদের বিরুদ্ধে আমি জিহাদ করবো।
আর পবিত্র কুরআন শরীফ উনার মাঝে মহান আল্লাহ পাক তিনি ৩২বার পবিত্র যাকাতের বিষয়ে উল্লেখ করেছেন, এর মধ্যে সর্বাধিকবার পবিত্র নামাযের সাথেই যাকাতের বিষয় উল্লেখ করেছেন।
কোনো ব্যক্তির উপর যাকাত ফরজ হলে সে যদি উক্ত যাকাতের অর্থ না আদায় করে তাহলে তার সকল সম্পদের সাথেই যাকাতের অর্থ মিশ্রিত হয়ে যাওয়ার কারণে তার সব সম্পদই তার জন্য হারাম হয়ে যাবে। কারন যাকাতের অর্থ তো তার নিজের জন্য হারাম। তাছাড়া পবিত্র হাদীছ শরীফ উনার মাঝে ইরশাদ মুবারক হয়েছে, মানুষের ধনসম্পদ বিভিন্নভাবে নষ্ট হয়ে যাওয়ার কারন হলো যাকাত আদায় না করা।
তাই সকল মুসলমানদেরই উচিত পবিত্র যাকাত আদায়ের বিষয়ে অত্যন্ত সচেতন থাকা। না হয় অনাদায়ী যাকাতের অর্থের কারনে তার কোনো ইবাদত বন্দেগীতো কবুল হবেই না, বরং নানা রকম আযাব-গযব বালা মুছিবতে তার ধন সম্পত্তি ধ্বংস হয়ে যাবে। এমনকি একসময় তার ঈমান-আকীদাও বিনষ্ট হওয়ার সমূহ সম্ভাবনা রয়েছে।

শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে