পবিত্র যিলহজ্জ শরীফ মাস উনার প্রথম দশদিন দশ রাতের আমল অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ফযীলতময়


পবিত্র দ্বীন ইসলাম উনার মাঝে আগত প্রতিটি দিন-রাতের ফযীলতই ঈমানদার মুসলমানের নিকট অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। তবে ইসলামী শরীয়ত উনার মাঝে কতিপয় দিন রাতকে আলাদা ফযীলত আলাদা সম্মান বুযুুর্গী দান করা হয়েছে। এগুলোর মধ্যে অন্যতম হলো পবিত্র যিলহজ্জ শরীফ মাস উনার প্রথম দশদিন দশরাত। পবিত্র হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, খালিক্ব মালিক রব মহান আল্লাহ পাক উনার নিকট পবিত্র যিলহজ্জ শরীফ মাস উনার দশদিনের ইবাদত-বন্দেগীর তুলনায় অন্য কোন দিন ইবাদত আমলই এত প্রিয় নয়। সুবহানাল্লাহ!
এ দশদিনের কসম স্বয়ং খালিক্ব মালিক রব মহান আল্লাহ পাক তিনি কালামুল্লাহ শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক করেছেন। কিতাবে বর্ণিত রয়েছে- সাইয়্যিদুনা হযরত সাঈদ ইবনে জুবায়ের রহমতুল্লাহি আলাইহি তিনি পবিত্র যিলহজ্জ শরীফ মাস উনার দশদিনে এমনভাবে ইবাদত-বন্দেগীতে রুজু হয়ে যেতেন যে, মনে হতো তিনি এর মাঝেই সমস্ত শক্তি মুবারক হারিয়ে ফেলবেন। সাইয়্যিদুনা হযরত ইবনে হাজর আসকালানী রহমতুল্লাহি আলাইহি তিনি বলেন- পবিত্র যিলহজ্জ শরীফ মাস উনার প্রথম দশদিন দশরাতের ফযীলতের তাৎপর্যের মধ্যে এটাও অন্যতম যে, এ সময় মূল ইবাদত-বন্দেগীগুলোর সমন্বয় ঘটে। যেমন, তাকবীর তাহলীল, সালাত, সিয়াম, সদকা, হজ্জ, জিয়ারত মুবারক ইত্যাদি। সুবহানাল্লাহ! এ জন্য প্রতিযুগেই আহলে সুন্নত ওয়াল জামায়াত উনার সকল উলামায়ে কিরাম রহমতুল্লাহি আজমাঈন উনারা অতিগুরুত্ব সহকারে এই মুবারক দশদিন দশরাতের ইবাদত-বন্দেগীগুলো করেছেন।

Views All Time
1
Views Today
2
শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে