পবিত্র লাইলাতুন নিছফি মিন শা’বান অর্থাৎ পবিত্র লাইলাতুল বরাতসহ ইসলামের খাছ রাত্রিগুলোতে কতিপয় মসজিদে তালা ঝুলানো থাকে কেন?


সাম্প্রতিককালে দেখা যায়, ইসলামের বিশেষ বিশেষ রাত্রিতে বিভিন্ন মসজিদের দরজায় তালা ঝুলানো থাকে! বিশেষ করে দেখা যায়, পবিত্র লাইলাতুন নিছফি মিন শা’বান অর্থাৎ পবিত্র শবে বরাত উনার রাতে মসজিদের দরজায় তালা ঝুলিয়ে রাখে! অথচ মসজিদের হক্ব হলো- মসজিদে গিয়ে ইবাদত-বন্দেগী করা। মুসলমানগণকে পবিত্র মসজিদ থেকে বিচ্ছিন্ন করে রাখে যারা, তারা নানা অজুহাত দেখিয়ে মসজিদে তালা লটকিয়ে রাখে। অথচ ঢাকা শহর হলো মসজিদের শহর। কিছু তথাকথিত আলিম ও মুফতী তথা সৃষ্টির নিকৃষ্ট জীব উলামায়ে ‘সূ’রা এই অপকর্মে লিপ্ত রয়েছে। আর এতে একনিষ্ঠভাবে কাজ করছে বর্তমান যামানায় তাবলীগী, মওদুদী, দেওবন্দী, ওহাবী, খারিজী, রাফিজী, মুতাজিলা তথা বাতিল বাহাত্তর ফিরকার লোকেরা। তারা চায় মুসলমানগণ মসজিদে গিয়ে বিশেষ বিশেষ মহান রাতসমূহে ইবাদত-বন্দেগী না করে মহান আল্লাহ পাক উনার প্রদত্ত খাছ ক্ষমা, রহমত, বরকত, সাকীনা, মাগফিরাত ও নাজাত থেকে মাহরূম হোক। নাঊযুবিল্লাহ! ধর্মীয় জযবা, ধর্মীয় চেতনা থেকে নির্লিপ্ত থেকে হারাম কাজে লিপ্ত হোক। নাঊযুবিল্লাহ! এরা চায় তিলে তিলে ইসলাম উনার ঐতিহ্যকে নস্যাৎ করে দিতে। এরা চায় মুসলমান ঈমান নষ্ট করে দিতে!
সুতরাং মুসলিম উম্মাহকে এই মহান রহমত, বরকত, ফুয়ুজাতপূর্ণ লাইলাতুন নিছফি মিন শা’বান অর্থাৎ পবিত্র লাইলাতুল বরাত পালনে দৃঢ় প্রতিজ্ঞ হতে হবে। সাথে সাথে উলামায়ে ‘সূ’দের বর্জনে সামাজিক আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে এবং ওরা যেন পবিত্র মসজিদে তালা ঝুলিয়ে রেখে মুসলমানগণকে ইবাদত-বন্দেগীতে বাধা না দিতে পারে সে ব্যবস্থা গ্রহণ করা। মহান আল্লাহ পাক তিনি আমাদের সকলকেই পবিত্র লাইলাতুন নিছফি মিন শা’বান অর্থাৎ পবিত্র লাইলাতুল বরাত উনার বারাকাত, ফুয়ুজাত, নিয়ামত, রহমত, সাকীনা ও নাজাত দান করুন। আমীন!

Views All Time
1
Views Today
3
শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে