পবিত্র শবে বরাত উপলক্ষে জিন-ইনসানতো রোযা রাখেই এমনকি পশু-পাখি ও সমুদ্রের মাছও রোযা রাখে


শা’বান মাস মুসলমানগণের নিকট অত্যধিক সম্মানিত ও বরকতপূর্ণ মাস। হাদীছ শরীফ-এর কিতাবসমূহে শা’বান মাসের অনেক ফযীলত বর্ণনা করা হয়েছে। মহান আল্লাহ পাক উনার হাবীব, সাইয়্যিদুল আম্বিয়া ওয়াল মুরসালীন, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি বলেন, “শা’বান হলো আমার মাস”। (মা-ছাবাতা বিস সুন্নাহ)
যদিও পবিত্র শা’বান মাস সম্পর্কে অনেকে অবহিত নয়, তথাপি এ বরকতপূর্ণ মাসের রয়েছে সীমাহীন ফযীলত। মহান আল্লাহ পাক উনার হাবীব, সাইয়্যিদুল আম্বিয়া ওয়াল মুরসালীন, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি দোয়া করেছেন, “আয় মহান আল্লাহ পাক! রজব ও শা’বান মাসে আমাদেরকে বরকত দান করুন।” (বায়হাক্বী শরীফ)
পবিত্র শা’বান মাস সম্পর্কে সাইয়্যিদুল আউলিয়া হযরত বড়পীর ছাহিব রহমতুল্লাহি আলাইহি তিনি বলেন, “মাসের মধ্যে রজব, শা’বান, রমাদ্বান শরীফ ও মুহররম মাস শ্রেষ্ঠ। তন্মধ্যে নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার মাস হিসেবে শা’বান মাস সবচেয়ে মর্যাদাসম্পন্ন মাস। যেমন সর্বশ্রেষ্ঠ মর্যাদা নূরে মুজাসসাম হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার অন্যান্য নবী-রসূল আলাইহিমুস সালাম উনাদের মধ্যে। (গুনিয়াতুত তালেবীন)
মহান আল্লাহ পাক তিনি আমাদেরকে শা’বান মাসের যথাযথ হক্ব আদায় করার তৌফিক দান করুন। আমীন!

Views All Time
1
Views Today
2
শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+