পবিত্র শবে মি’রাজ হচ্ছে- মহান আল্লাহ পাক উনার হাবীব হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার মর্যাদা ও শ্রেষ্ঠত্ব বহিঃপ্রকাশের মুবারক রাত্রি


মহান আল্লাহ পাক উনার প্রিয়তম হাবীব, নূরে মুজাস্সাম হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার মর্যাদা-মর্তবার বহিঃপ্রকাশ একেক সময়ে একেক মাধ্যমে করেছেন। কখনো উনার বক্ষ মুবারক উন্মোচন করে, কখনো চল্লিশ বছর বয়স মুবারকে নবুওওয়াত প্রকাশ করে আবার কখনো মি’রাজ শরীফ-এর মাধ্যমে আপন মুবারক সাক্ষাৎ দানে। মূলত, ২৪ ঘণ্টাই হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি মহান আল্লাহ পাক উনার দায়িমী যিয়ারতে রয়েছেন; আসমানবাসী, যমীনবাসীকে বুঝানোর জন্য মি’রাজ শরীফ আনুষ্ঠানিকতা মাত্র।
আহলে সুন্নত ওয়াল জামায়াতের আক্বীদা হচ্ছে, যমীনে কেউ সরাসরি স্বচক্ষে হাক্বীক্বী ছূরতে মহান আল্লাহ পাক উনাকে কখনো দেখবে না। কিন্তু মহান আল্লাহ পাক উনার হাবীব সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, খাতামুন নাবিইয়ীন হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনাকে যেহেতু বেমেছাল হিসেবে সৃষ্টি করেছেন, সেজন্যে তিনি মহান আল্লাহ পাক উনার মুবারক সাক্ষাতে গিয়েছেন, মহান আল্লাহ পাক উনার দীদার ও ছোহবত মুবারক লাভ করেছেন।
অতএব, মি’রাজ শরীফ-এর সম্মানার্থে প্রতিটি মুসলিম সরকারেরই উচিত দেশে সরকারি ছুটি ঘোষণা করা এবং পবিত্র শবে মি’রাজ ও মি’রাজ শরীফ-এর মর্যাদা-মর্তবা ফুটিয়ে তোলা। ইসলামী চেতনা ও আদর্শ প্রতিফলনের মাধ্যমে সব সমস্যা সমাধানের জন্য প্রচেষ্ট হওয়া। (আমীন)

 

Views All Time
1
Views Today
1
শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+