পবিত্র ৯ই জুমাদাল ঊলা শরীফ নিয়ামতপূর্ণ, বরকতপূর্ণ, সাকীনাপূর্ণ, মাগফিরাত ও নাজাতপূর্ণ দিন


হযরত আহলে বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম উনাদেরকে মুহব্বত মুবারক করা সম্পর্কে মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, “(হে আমার হাবীব ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম!) আপনি বলে দিন, আমি তোমাদের নিকট কোনো বিনিময় চাচ্ছি না। আর চাওয়াটাও স্বাভাবিক নয়; তোমাদের পক্ষে দেয়াও কস্মিনকালে সম্ভব নয়। তবে তোমরা যদি ইহকাল ও পরকালে হাক্বীক্বী কামিয়াবী হাছিল করতে চাও; তাহলে তোমাদের জন্য ফরয হচ্ছে আমার হযরত আহলে বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম উনাদেরকে মুহব্বত করা, তা’যীম-তাকরীম মুবারক করা, উনাদের খিদমত মুবারক উনার আনজাম দেয়া।” [পবিত্র সূরা শূরা শরীফ : পবিত্র আয়াত শরীফ ২৩]
হযরত আহলে বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম উনাদের মুহব্বত মুবারক করা সম্পর্কে ইরশাদ মুবারক হয়েছে, “সম্মানিত আহলে বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম উনাদেরকে মুহব্বত করা হচ্ছে ঈমান আর উনাদের প্রতি বিদ্বেষ পোষণ করা কুফরী।
উল্লেখ্য যে, বাবুল ইলম ওয়াল হিকাম, ক্বায়িম-মাক্বামে শেরে হায়দার হযরত কাররামাল্লাহু ওয়াজহাহূ আলাইহিস সালাম, আওলাদে রসূল সাইয়্যিদুনা হযরত হাদিউল উমাম আলাইহিস সালাম তিনি হলেন সম্মানিত আহলে বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম এবং আওলাদে রসূল আলাইহিমুস সালাম উনাদের অন্যতম সদস্য মক্ববুল ওলীআল্লাহ।
আর পবিত্র হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে ওলীআল্লাহগণ উনাদের সম্পর্কে নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ইরশাদ মুবারক করেছেন, “যাঁরা ওলীআল্লাহ উনাদের তোমরা মুহব্বত করো, কেননা উনারা মহান আল্লাহ পাক উনার নিকট মক্ববুল।”
মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেছেন, “নিশ্চয়ই মহান আল্লাহ পাক তিনি উনার রহমত তথা নিয়ামত মুবারক মুহসিনীন বা ওলীআল্লাহগণ উনাদের নিকট রয়েছে।”
আর পবিত্র হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক হয়েছে, “নিশ্চয়ই নেককার বান্দা-বান্দীগণ উনাদের আলোচনায় রহমত বর্ষণের কারণ।”
উপরোক্ত পবিত্র আয়াত শরীফ ও পবিত্র হাদীছ শরীফ উনাদের পরিপূর্ণ মিছদাক হচ্ছেন আওলাদে রসূল সাইয়্যিদুনা হযরত হাদিউল উমাম আলাইহিস সালাম। যিনি সম্মানিত আহলে মুজাদ্দিদ আলাইহিমুস সালাম উনাদের মধ্যমণি। যিনি পবিত্র ৯ই জুমাদাল ঊলা শরীফ উনার দিনে তাশরীফ এনে কুল-কায়িনাতবাসীকে অসংখ্য নিয়ামত মুবারক বণ্টন করে দেয়ার মাধ্যমে ধন্য করেছেন। সুবহানাল্লাহ!
বর্তমান যামানায় যদি কেউ সেই নিয়ামত মুবারক পেতে চায় তাহলে অবশ্যই উনাকে উনার বিলাদত শরীফ উনার দিন অর্থাৎ ৯ই জুমাদাল ঊলা শরীফ দিনটিতে খুশি প্রকাশ করতে হবে। রহমত, রবকত, সাকীনা, মাগফিরাত, লাভের ও নাজাত লাভের জন্য উনাকে হাক্বীক্বীভাবে মুহব্বত করতে হবে। উনার ছানা-ছিফত মুবারক, তা’যীম-তাকরীম মুবারক করতে হবে। তাহলেই আমরা হাক্বীক্বীভাবে কামিয়াবী লাভ করতে পারবো। মহান আল্লাহ পাক তিনি ও উনার হাবীব, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি এবং সম্মানিত আহলে বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম উনারা যেন আমাদেরকে সেই তাওফীক দান করেন। (আমীন)

Views All Time
1
Views Today
2
শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে