পরের জন্য গর্ত খুঁড়লে নিজেকেই সেই গর্তে পড়তে হয়!


আবু লাহাব, হুযুর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার চলাচলের রাস্তায় একটা গর্ত করে দুর্বা ঘাস দিয়ে ঢেকে রেখেছিল, যাতে হযুর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনাকে কষ্ট দেয়া যায়। নাউযুবিল্লাহ! তারপর একদিন সে সেই গর্তের কাছে গেল। কিন্তু ঘাস দিয়ে ঢাকা থাকায় বুঝতে না পেরে নিজেই সেই গর্তে পড়ে গেল। সাহায্যের জন্য যখন সে চিৎকার শুরু করল, তখন হুযুর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি তা শুনতে পেয়ে এগিয়ে আসেন। আবু লাহাব উনাকে অনুনয় বিনয় করে তাকে তোলার জন্য। তিনি হাত মুবারক বাড়াতেই কুদরতিভাবে আবু লাহাব উঠে আসে।
 
কথায় বলে পরের জন্য গর্ত খুঁড়লে নিজেকেই সেই গর্তে পড়তে হয়! দেশকে অসাম্প্রদায়িক (!) বানানোর নাম দিয়ে দ্বীন ইসলামকে দূরে সরিয়ে, হিন্দুয়ানী সংস্কৃতির যারা প্রসার ঘটিয়েছে, তারা তো তাদের কর্মফল ভোগ করবেই, তাই না? স্কুলে রাধাকৃষ্ণের লীলাখেলা আর বাউলের দেহতত্ব পড়াবা, বাসায় ভারতীয় নোংরা চ্যানেল চালাবা, রাস্তাঘাট অশ্লীল বিলবোর্ড দিয়ে ছেয়ে ফেলবা, জাতীয়ভাবে পতিতা ব্যবসায়ী রবী ঠগের জন্মদিন পালন করবা, আবার আশা করবা ছেলেদের যেন চারিত্রিক অবক্ষয় না হয়! মেয়েরা যেন শালীনতা না হারায়! বাহ!
 
তবে মহান আল্লাহ পাক উনার ক্ষমার হাত মুবারক তো বাড়ানোই আছে। যারা আসলেই এইসব ফিতনা ফ্যাসাদ থেকে মুক্তি পেতে চায়, তারা যেন হাক্বীকিভাবেই দ্বীন ইসলাম উনাকে পালন করে, হুযুর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার সুন্নত মুবারক আঁকড়ে ধরে। এতেই শান্তি, এতেই হিফাযত, আর কিছুতে নয়!
Views All Time
2
Views Today
3
শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে