পহেলা বৈশাখ কোনো ইসলামী বা শরীয়তসম্মত উৎসব নয়, মুসলমানদের জন্য তা করা জায়িয নেই


বর্তমানে বাংলাদেশে ৯৮% মুসলমান রয়েছে। অথচ মুসলমানদের ঘরে ঘরে পালন হয় পহেলা বৈশাখ। প্রশ্ন হচ্ছে- পহেলা বৈশাখ কি? এটা কি কোনো ইসলামী বা শরীয়তসম্মত উৎসব? না, এটা কোনো শরীয়তসম্মত উৎসব নয়। এটা একটি বিধর্মীয় কুপ্রথা বা উৎসব। তাহলে কেন মুসলমারা এই কুপ্রথা পালন করে? পবিত্র হাদীছ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক হয়েছে, “যে ব্যক্তি যে সম্প্রদায়ের সাথে মিল রাখে, সে তাদেরই অন্তরভুক্ত হবে।” (মিশকাত শরীফ) কিতাবে উল্লেখ করা হয়েছে- “যদি কেউ এই পহেলা বৈশাখ উপলক্ষে একটি ডিমও খরচ বা ক্রয় করে তাহলে তার ৬০ বছরের নেক আমল নষ্ট হয়ে যাবে।” নাউযুবিল্লাহ! যে বা যারা এই বিধর্মীয় উৎসব পালন করে বা করবে, তারা দুনিয়াতে নামধারী মুসলমান হয়ে থাকবে; কিন্তু ক্বিয়ামতের দিন তাদেরকে বিধর্মীদের অন্তর্ভুক্ত হতে হবে। পবিত্র হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক হয়েছে, “যে ব্যক্তি যাকে মুহব্বত করবে তার হাশর-নশর তার সাথেই হবে।” কাজেই মুসলমানদের চিন্তা করা উচিত যে- কাকে মুহব্বত করলে নাজাত পাওয়া যাবে? যদি কাফির-মুশরিক তথা বিধর্মীদের মুহব্বত করা হয়, তাহলে তো হাশর-নশর তাদের সাথে হবে। হাশর-নশর কাফিরদের সাথে হলে নাজাত পাওয়া যাবে কি? কখনোই না। কেননা কাফির-বিধর্মীদের জন্য জান্নাত হারাম। তাই প্রত্যেক মুসলমানের জন্য উচিত হবে- নাজাত পাওয়ার জন্য সঠিক ও সহজ পথ ধরা। আর তা হলো- মহান আল্লাহ পাক উনাকে, উনার হাবীব নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনাকে এবং উনার পবিত্র আহলে বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম উনাদেরকে মুহব্বত করা। তাহলে আমাদের হাশর-নশর উনাদের সাথে হবে। নাজাত নিশ্চিত হবে। খালিক্ব মালিক রব মহান আল্লাহ পাক তিনি আমাদের সবাইকে তাওফীক্ব দান করুন। আমীন।

শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে