পহেলা মে: ইহুদী-নাছারাদের একটি সূক্ষ্ম ষড়যন্ত্র


মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, ‘তোমরা তোমাদের রব উনার হুকুম বা আদেশের প্রতি দৃঢ় থাকো। কোনো অবস্থাতেই গুনাহগার ও কাফিরদের অনুসরণ করো না।’
‘পহেলা মে’ আন্তর্জাতিক শ্রমিক দিবস হিসেবে পালিত হওয়ার নেপথ্যেও রয়েছে এই ইহুদী-নাছারা ও মুশরিকদের সূক্ষ্ম ষড়যন্ত্র।
যুক্তরাষ্ট্রের শিকাগো শহরের ‘হে মার্কেট স্কয়ারে’ ১৮৮৬ সালে একটি র‌্যালী অনুষ্ঠিত হয়। যুক্তরাষ্ট্রের শিকাগো, ইলিনয়েস-এ তিনদিন স্ট্রাইক পালিত হয় একটি কারখানায় ঘটে যাওয়া ঘটনা নিয়ে। সেখানে অজ্ঞাত কেউ বোমা বিস্ফোরণ ঘটালে পুলিশ গুলি বর্ষণ করে, এতে ডজনখানেক লোক মারা যায়। পরে সেই ‘হে মার্কেট স্কয়ারে’ নিহতদের উদ্দেশ্যে মে মাসে অনেক অনুষ্ঠান পালিত হতে থাকে। পরবর্তীতে যুক্তরাষ্ট্রই মে দিবসকে আন্তর্জাতিক শ্রমিক দিবস হিসেবে পালনের ওয়াছওয়াছা দেয়। যুক্তরাষ্ট্রে ‘শ্রমিক দিবস’ হিসেবে পালিত হতো সেপ্টেম্বরের প্রথম সোমবার। আর মে দিবস পালিত হতো সরকারের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ দিবস হিসেবে। যদিও বলা হয় ৮ ঘণ্টা কাজের অধিকার আদায় নিয়ে বিভিন্ন দেশে পহেলা মে আন্তর্জাতিক ‘শ্রমিক দিবস’ পালিত হয় আসলে এ বিষয়টিও সত্য নয়। কেননা ‘শ্রমিক দিবসের’ ধারণা আরো পুরনো এবং তা জন্ম নেয় ১৮৫৬ সালে অস্ট্রেলিয়াতে। সেখানে ২২শে এপ্রিল ছিল ‘আট ঘণ্টা দিবস’ এবং ছুটির দিন। পরবর্তীতে যুক্তরাষ্ট্রের শিকাগো শহরের ‘হে মার্কেটের’ ঘটনার পর আন্তর্জাতিক শ্রমিক দিবস হিসেবে ব্যাপক প্রচারণা পায়।
সেপ্টেম্বরের প্রথম সোমবার সরকারের বিরুদ্ধে প্রতিবাদের দিবসটিই যুক্তরাষ্ট্রের প্ররোচনায় ‘শ্রমিক দিবস’ হিসেবে পালিত হতে থাকে পহেলা মে থেকে। মূলত সাম্রাজ্যবাদী শোষক শ্রেণীর জন্যই বিশ্বে অগণিত শ্রমিক তাদের ন্যূনতম অধিকার থেকেও বঞ্চিত হচ্ছে। অথচ পহেলা মে এলেই আন্তর্জাতিক শ্রমিক দিবস পালনের নামে অর্থহীন আচার অনুষ্ঠান পালিত হচ্ছে। একমাত্র পবিত্র দ্বীন ইসলাম শ্রমিকের হক্ব আদায়ও তার অধিকার সম্পর্কে স্পষ্ট নির্দেশনা দিয়েছে।
এসব দিবস পালনে কখনোই শ্রমিকের অধিকার আদায় হয়নি এবং হবেও না। বরং এসব দিবসের আড়ালে বুর্জোয়া শ্রেণী তাদের শোষণের মাত্রা বাড়িয়েই যাবে। সুতরাং মুসলমানগণের উচিত এ সকল অর্থহীন দিবস পালন থেকে বিরত থাকতে ঢাকা রাজারবাগ দরবার শরীফ উনার মামদূহ হযরত মুজাদ্দিদে আ’যম আলাইহিস সালাম উনার মুবারক নেক ছোহবতে আসা।

 

Views All Time
1
Views Today
2
শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে