পৃথিবীর অন্যতম নিকৃষ্টতম হানাদার বাহিনী ভারতীয় BSF আসলে Border Security Force নয় বরং Bangladeshi Slayer Force


বাংলাদেশ সবসময় ভারতকে বন্ধুপ্রতীম (!!), প্রতিবেশী রাষ্ট্র বলে আসলেও ভারত প্রতিনিয়ত বাংলাদেশ সীমান্তে  বর্বরতম হত্যাকাণ্ড চালিয়ে যাচ্ছে কিন্তু বাংলাদেশ সরকার কোনো এক অজানা কারণে এর প্রতিবাদ করছে না। এর বিপরীতে ভারতের সবচেয়ে বৈরী প্রতিবেশী পাকিস্তান সীমান্তে গত ১০ বছরে কোনো বেসামরিক মানুষ নিহত হওয়ার ঘটনা ঘটেনি। শুধু বাংলাদেশ সীমান্তে ভারত কেন এই হত্যাকাণ্ড চালাচ্ছে—এর জবাবে ভারতীয় হাইকমিশন বলেছে, সীমান্তে বাংলাদেশের পক্ষ থেকে গরু চোরাচালানকে উত্সাহিত করায় এ ঘটনা ঘটছে। তার এই বক্তব্য সম্পূর্ণ মিথ্যা ও বানোয়াট। কারণ এই পর্যন্ত যত বাংলাদেশীকে হানাদার বিএসএফ হত্যা করেছে তাদের অধিকাংশই সাধারণ নিরীহ মানুষ যারা গরু ব্যবসার সাথে সংশ্লিষ্ট নন। ভারতের হানাদার বিএসএফ গত তের বছরে বাংলাদেশের সীমান্ত এলাকায় কি নির্মম হত্যাযজ্ঞ চালিয়ছে তার একটি পরিসংখ্যান নিচে তুলে ধরা হলোঃ

 

গত  ১২ জুন ২০১৩ তারিখে ভারতের হাইকমিশনার পঙ্কজ সরণ দাবী করেছে যে, এই বছরের শুরু থেকে জুন মাসের প্রথম সপ্তাহ পর্যন্ত সীমান্তে কোনো বাংলাদেশি বিএসএফের গুলিতে নিহত হয়নি । অথচ এই বক্তব্যের ২৪ ঘণ্টা আগেই যশোর সীমান্তে ভারতীয় হানাদার বিএসএফের গুলিতে দুই বাংলাদেশি নিহত হন।  হানাদার বিএসএফের নির্যাতনের ফলে অনেক পরিবার উপার্জনক্ষম ব্যাক্তিকে হারিয়ে বা পঙ্গুত্ব বরণ করে মানবেতর জীবন যাপন করছে।  সীমান্তে হানাদার বিএসএফের এই হত্যাযজ্ঞ আন্তর্জাতিক আইনের সুস্পষ্ট লঙ্ঘন। বাংলাদেশ ও ভারতের জন্য প্রযোজ্য বহু আন্তর্জাতিক চুক্তি (যেমন: ১৯৬৬ সালের ইন্টারন্যাশনাল কনভেন্ট অন সিভিল ও পলিটিক্যাল রাইটস, ১৯৮৪ সালের কনভেনশন অ্যাগেইনস্ট টর্চার) এবং নীতিমালা অনুসারে (যেমন বেসিক প্রিন্সিপ্যাল ফর দ্য ইউজ অব ফোর্স অ্যান্ড ফায়ার আর্মস বাই ল এনফোর্সমেন্ট অফিশিয়ালস) এভাবে নির্বিচারে গুলিবর্ষণ করে হত্যা মানবাধিকারের গুরুতর লঙ্ঘন। রোম স্ট্যাটিউট অনুসারে ‘সিস্টেমেটিক’ ও ‘ওয়াইডস্প্র্রেড’ হিসেবে এসব হত্যাকাণ্ড আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালত কর্তৃক আমলে নেওয়ার মতো গুরুতর অপরাধ বলেও বিবেচিত হতে পারে। তাই বাংলাদেশ সরকারেক অবিলম্বে ভারত বানিজ্য সহ সকল সুযোগ-সুবিধা বন্ধ করে দিয়ে সীমান্তে নরকীয় হত্যাযজ্ঞ বন্ধের জন্য কঠোরভাবে চাপ প্রয়োগ করতে হবে এবং বাংলাদেশের সীমান্ত বাহিনী BGBকে হানাদার BSFএর যেকোন ধরণের কর্মকান্ডের উপযুক্ত জবাব দেয়ার ক্ষমতা প্রদান করতে হবে।

শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+