প্রত্যেকটি পবিত্র ও সম্মানিততম সুন্নত মুবারক পালন করা ফরযে আইন মুবারক


মহান আল্লাহ পাক তিনি উনার পবিত্র ও সম্মানিততম কালাম পাক উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক করেন-
وَمَا آتَاكُمُ الرَّسُولُ فَخُذُوهُ وَمَا نَهَاكُمْ عَنْهُ فَانْتَهُوا وَاتَّقُوا اللَّـهَ إِنَّ اللَّـهَ شَدِيدُ الْعِقَابِ
অর্থ: নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি তোমাদের কাছে যা কিছু নিয়ে তাশরীফ মুবারক গ্রহণ করেছেন তা তোমরা শক্তভাবে আঁকড়িয়ে ধরো। আর যা কিছু থেকে বিরত থাকতে বলেছেন, তা থেকে তোমরা বিরত থাকো। এ বিষয়ে মহান আল্লাহ পাক উনাকে ভয় করো। নিশ্চয়ই মহান আল্লাহ পাক তিনি কঠিন শাস্তিদাতা। (পবিত্র ও সম্মানিত সূরা হাশর শরীফ: পবিত্র ও সম্মানিত আয়াত শরীফ ৭)
উক্ত পবিত্র ও সম্মানিত আয়াত শরীফ উনার ব্যাখ্যায় তথা তাশরীহ মুবারক এ মহান আল্লাহ পাক তিনি অন্য একখানা পবিত্র ও সম্মানিত আয়াত শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক করেন-
يَا أَيُّهَا الَّذِينَ آمَنُوا أَطِيعُوا اللَّـهَ وَأَطِيعُوا الرَّسُولَ وَأُولِي الْأَمْرِ مِنْكُمْ
অর্থ: হে ঈমানদারগণ! আপনারা মহান আল্লাহ পাক উনার ইতায়াত করুন এবং উনার রসূল নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার ইতায়াত মুবারক করুন। আর নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার যারা হাক্বীক্বী নায়িব ক্বায়িম-মাক্বাম উলিল আমর উনাদের ইতায়াত তথা অনুসরণ অনুকরণ মুবারক করুন। (পবিত্র ও সম্মানিত সূরা নিসা শরীফ: পবিত্র ও সম্মানিত আয়াত শরীফ ৫৯)
হযরত ইমাম আহমদ বিন হাম্বল রহমতুল্লাহি আলাইহি উনার ঘটনা মুবারক, সম্মানিত ও পবিত্র সুন্নত মুবারক পালন করা ফরয: যিনি হাম্বলী মাযহাব উনার ইমাম হযরত ইমাম আহমদ বিন হাম্বল রহমতুল্লাহি আলাইহি তিনি একবার ফতওয়া মুবারক দিলেন যে, ‘ সম্মানিত ও পবিত্র সুন্নত মুবারকগুলি পালন করা ফরয।’
তিনি যখন ফতওয়া মুবারক দিলেন তখন উনার সময়কার যারা ইমাম, মুজতাহিদ ও ফক্বীহ ছিলেন উনারা এসে বললেন, ‘হে হযরত ইমাম আহমদ বিন হাম্বল রহমতুল্লাহি আলাইহি! আমরা আপনাকে ইমাম, মুজতাহিদ ও ফক্বীহ মনে করি। অথচ আপনি কি করে সম্মানিত ও পবিত্র সুন্নত মুবারকগুলি পালন করা ফরয ফতওয়া দিলেন? এর স্বপক্ষে আপনার কোন দলীল আছে কি?
কারণ খালিক্ব মালিক রব মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেছেন,
قُلْ هَاتُواْ بُرْهَانَكُمْ إِن كُنتُمْ صَادِقِينَ
‘আপনারা যদি সত্যবাদী হন তাহলে দলীল পেশ করুন।’ (পবিত্র ও সম্মানিত সূরা বাক্বারা শরীফ; পবিত্র ও সম্মানিত আয়াত শরীফ ১১১)
হযরত ইমাম আহমদ বিন হাম্বল রহমতুল্লাহি আলাইহি তিনি বললেন, ‘হ্যাঁ, এ ব্যাপারে ক্বিত্য়ী বা অকাট্য দলীল রয়েছে। তখন তিনি উপরোক্ত পবিত্র ও সম্মানিত সূরা হাশর শরীফ উনার পবিত্র ও সম্মানিত ৭নং আয়াত শরীফ তিলাওয়াত মুবারক করলেন এবং বললেন; উক্ত পবিত্র ও সম্মানিত আয়াত শরীফ দ্বারা সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, খাতামুন নাবিইয়ীন, নূরে মুজাস্সাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার সুন্নতগুলি পালন করা ফরয প্রমাণিত হয়েছে। সুবহানাল্লাহ!

Views All Time
1
Views Today
1
শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে