বর্তমানে প্রচলিত বাংলা সন প্রকৃতপক্ষে মোগল বাদশাহ আকবর কর্তৃক প্রবর্তিত এলাহী সন বা ফসলী সন।


বর্তমানে প্রচলিত বাংলা সন প্রকৃতপক্ষে মোগল বাদশাহ আকবর কর্তৃক প্রবর্তিত এলাহী সন বা ফসলী সন। কারণ ঐতিহাসিকভাবে প্রমাণিত যে- বাদশাহ আকবর নিজে বাঙালি বা বাংলাদেশী বা তার মাতৃভাষা বাংলা ছিলো না। তাহলে কি করে তার প্রবর্তিত এলাহী সন বা বাংলা সন ও বাঙালিদের সন হতে পারে?

পরবর্তীতে মুশরিকরা আকবরের এলাহী সনকে মুশরিকদের সন হিসেবে গ্রহণ করে তাদের পূজাগুলোকে ফসলী সনের সাথে সংযুক্ত করে নেয়।
বাদশাহ আকবরের নতুন প্রবর্তিত ধর্ম দ্বীনে এলাহীর সাথে প্রবর্তিত হয় এলাহী সন গননা। মূলত এই বর্ষপঞ্জি হিন্দুদের অনুরোধে করা হয়েছিল তাদের পুজার দিন গননার সুবিধার্থে। আজো হিন্দুরা তাদের বিয়ের দিন তারিখসহ পূজা পার্বনের প্রতিটা দিবস বাংলাসন হিসেবে গননা করে৷

কাজেই পহেলা বৈশাখ বা নববর্ষের সাথে বাঙালি জাতীর কোনো সম্পর্ক নেই, আর ইসলাম ধর্মের সাথেতো কোনো সম্পর্ক থাকার প্রশ্নই আসেনা। কারন হিজরী, শামসী, ঈসায়ী, বাংলাসন সহ যে কোন সনের ১ম দিনকে বিশেষ দিন মনে করা বা উদযাপন করা কুসংস্কার ও কুফরী। সম্মানিত শরীয়ত উনার হুকুম অনুযায়ী হারাম। নববর্ষ পালন করলে মুশরিকদের অনুসরন করার কারনে তার হাশর নশর মুশরিকদের সাথে হবে।

মহান আল্লাহ পাক আমাদের সবাইকে বিজাতীয় অপসংস্কৃতি থেকে হেফাজতে থাকার তৌফিক দান করুন।

(আমিন)

Views All Time
2
Views Today
2
শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে