বর্তমান যামানায় ইসলামের উপর দায়িম-কায়িম থাকতে যে বিষয়গুলো আপনার জানা অত্যন্ত জরুরী


মহান আল্লাহ পাক মানবজাতির হিদায়েতের জন্যে যমীনে হাদী পাঠান। এ প্রসঙ্গে পবিত্র কালামুল্লাহ শরীফ-এ ইরশাদ হয়েছে-
ولكل قوم هاد
অর্থাৎ “প্রত্যেক ক্বওমের জন্যেই ‘হাদী বা হিদায়েতকারী’ রয়েছে।” (সুরা রা’দ: আয়াত শরীফ ৭)
তাই পৃথিবীতে একলক্ষ চব্বিশ হাজার মতান্তরে দুইলক্ষ চব্বিশ হাজার নবী-রসূল আলাইহিমুস সালামর উনারা ‘হাদী’ হিসেবে আগমন করেছেন। সর্বশেষে আগমন করেছেন, আখিরী রসূল, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি। উনার পর পৃথিবীতে আর কোন নবী-রসূল আলাইহিমুস সালাম আগমন করবেন না। তবে “হাদী” হিসেবে “নায়েবে নবী” উনাদের আগমনের দরজা ক্বিয়ামত পর্যন্তই খোলা রয়েছে। তাই হাদীছ শরীফ-এ ইরশাদ হয়েছে,

عن حضرت ابى هريرة رضى الله تعالى عنه قال قال رسول الله صلى الله عليه وسلم ان الله عز وجل يبعث لهذه الامة عى رأس كل مأة سنة من يجدد لها دينها

অর্থাৎ “মহান আল্লাহ পাক তিনি এই উম্মতের হিদায়েতের জন্যে প্রত্যেক হিজরী শতকের মাথায় একজন “মুজাদ্দিদ বা হাদী” পাঠাবেন। যিনি দ্বীনের তাজদীদ করবেন। (আবূ দাউদ শরীফ)

বর্তমান যামানা তথা ১৫তম হিজরী শতক-এর মুজাদ্দিদ হচ্ছেন- মাসিক “আল বাইয়্যিনাত শরীফ”এবং দৈনিক “আল ইহসান শরীফ” এর প্রতিষ্ঠাতা ও পৃষ্ঠপোষক- খলীফাতুল্লাহ, খলীফাতু রসূলিল্লাহ, হুজ্জাতুল ইসলাম, ইমামুল আইম্মাহ, মুহ্ইস্ সুন্নাহ্, মাহিউল বিদয়াত, রসূলে নোমা, সাইয়্যিদুল আউলিয়া, সুলত্বানুল আরিফীন, কুতুবুল আলম, গাউছুল আ’যম, ইমামুশ্ শরীয়ত ওয়াত্ তরীক্বত, হাবীবুল্লাহ, জামিউল আলক্বাব, আওলাদে রসূল, মামদূহ হযরত মুর্শিদ ক্বিবলা আলাইহিস সালাম, রাজারবাগ শরীফ, ঢাকা।

উল্লেখ্য, হযরত নবী-রসূল আলাইহিমুস সালাম উনাদেরসহ যত হাদীই পৃথিবীতে আগমন করেছেন, তারা সকলেই বাতিল বা নাহক্ব কর্তৃক “বিরোধিতা ও অপপ্রচারের” স্বীকার হয়েছেন। বাতিলপন্থীরা অন্যায় ও দলীলবিহীন বিরোধিতার মাধ্যমে হক্বকে মিটিয়ে দেয়ার অপচেষ্টা করেছে। কিন্তু সর্বদা হক্বই বিজয়ী হয়েছে। আর নাহক্ব বা বাতিল নিশ্চিহ্ন হয়ে গেছে। যেমন এ প্রসঙ্গে মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ করেন-

يريدون ان ليطفئوا نور الله بافواههم والله متم نوره ولو كره الكافرون

অর্থাৎ “তারা চায় মূখের ফুৎকারে মহান আল্লাহ পাক উনার প্রেরিত হাদী উনাকে মিটিয়ে দিতে। অথচ মহান আল্লাহ পাক তিনি উনার হাদী উনাকে কামিয়াবী দান করবেনই করবেন। যদিও কাফির বা বাতিলপন্থীরা তা পছন্দ করেনা।” (সুরা তওবাহ: আয়াত শরীফ ৩২)
এতে প্রমাণিত হলো যে, হক্বের বিরোধিতা থাকবেই, তবে হক্ব অবশ্যই কামিয়াব হবে, আর নাহক্ব নিশ্চিহ্ন হয়ে যাবে। কাজেই বাতিল কর্তৃক হক্বের বিরোধিতা ও  অপপ্রচারে ভীত সন্ত্রস্থ হওয়ার কিছুই নেই।

অত্র পোস্ট হক্বপন্থী সকলের জন্যেই অতি গুরুত্বপূর্ণ ও প্রয়োজনীয়, সবুজ বাংলা ব্লগে প্রকাশিত শরীয়তের অনেক গুরুত্বপূর্ণ বিষেয়েই দলীলভিত্তিক সঠিক ফায়ছালার লিংকগুলো এ পোস্টে উল্লেখ করা হয়েছে। এ পোস্ট পড়ে বাতিলপন্থীদের মনগড়া, কুরআন-সুন্নাহ বিরোধী ও বিভ্রান্তিকর আক্বীদা ও আমল থেকে হিফাযত থাকা সম্ভব হবে।

সাথে সাথে এটাও প্রমাণিত হবে যে, যারা রাজারবাগ শরীফ-এর বিরোধিতা করে এবং রাজারবাগ শরীফ সম্পর্কে অপপ্রচার করে তাদের সেই বিরোধিতা ও অপপ্রচার সম্পূর্ণই দলীলবিহীন, মনগড়া, বিভ্রান্তিকর, মিথ্যা ও উদ্দেশ্য প্রণোদিত। পক্ষান্তরে, আমাদের প্রতিটি আক্বীদা ও আমলই কুরআন শরীফ-সুন্নাহ শরীফ তথা শরীয়তসম্মত ও দলীলভিত্তিক।

যে সকল বিষয়ের কারণে বাতিলপন্থী ও ধর্মব্যবাসায়ীরা সাধারণ মুসলমানদের বিভ্রান্ত করছে, সে সকল বিষয় সম্পর্কে বাতিলপন্থীরা কি বলছে আর দ্বীন ইসলাম কি বলেছে তার একটি সংক্ষিপ্ত চিত্র নিম্নে তুলে ধরা হলো-

****************************

  • মহান আল্লাহ পাক উনাকে নূর বা আলো বলা কুফরী
  • মহান আল্লাহ পাক উনার আকার-আকৃতি রয়েছে বিশ্বাস করা কুফরী
  • নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি মাটির তৈরী নন বরং নূরের তৈরী
  • নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার ছায়া মুবারক ছিলনা
  • নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি অবশ্যই হায়াতুন্ নবী
  • নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ইলমে গাইব-এর অধিকারী
  • নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি মহান আল্লাহ পাক উনার প্রদত্ত ক্ষমতায় হাযির-নাযির
  • নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি আমাদের মত মানুষ নন
  • নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার পিতা-মাতা উনারা অবশ্যই জান্নাতী
  • নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার শরীর মুবারক-এর সবকিছুই পবিত্র
  • আওলাদে রসূল ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনাদের সম্পর্কে বাতিলপন্থীদের অপব্যাখ্যা
  • ঈদে মীলাদুন্ নবী ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উদ্যাপন করা ফরয
  • মীলাদ শরীফ-ক্বিয়াম শরীফ জায়িয ও সুন্নত
  • ‘ইয়া নবী’ ‘ইয়া রসূল’ বলে সম্বোধন করা জায়িয
  • ইছমতে আম্বিয়া বা হযরত নবী-রসূল আলাইহিমুস্ সালামগণ উনারা মাছূম
  • হযরত ইব্রাহীম আলাইহিস্ সালাম উনার পিতা ছিলেন হযরত তারিখ আলাইহিস্ সালাম
  • হযরত ছাহাবায়ে কিরাম রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহুমগণ উনারা অবশ্যই সত্যের মাপকাঠি
  • হক্বানী পীর ছাহেব বা মুর্শিদ ক্বিবলা উনার নিকট বাইয়াত হওয়া ফরয
  • ক্বলবী যিকির করা ফরয
  • পীর ছাহেব বা মুর্শিদ ক্বিবলা উনাকে ‘ক্বিবলা’ বলা জায়িয
  • ওলীআল্লাহগণ উনাদের উপর দুরূদ শরীফ পাঠ করা সুন্নত
  • ইসলামের নামে গণতন্ত্র ও নির্বাচন করা হারাম
  • ইসলামের নামে হরতাল করা হারাম
  • ইসলামের নামে মৌলবাদ দাবী করা হারাম
  • ইসলামের নামে লংমার্চ করা হারাম
  • ইসলামের নামে ব্লাসফেমী আইন চাওয়া হারাম
  • ইসলামের নামে কুশপুত্তলিকা দাহ করা হারাম
  • ছবি, টেলিভিশন, ভিসিআর, ভিডিও ইত্যাদি সবই হারাম
  • ইসলামের নামে নারী নেতৃত্ব মানা হারাম
  • পর্দা করা ফরয, বেপর্দা হওয়া হারাম
  • জন্মনিয়ন্ত্রণ করা নাজায়িয
  • কা’বা ও রওযা শরীফ-এর ছবি সম্বলিত জায়নামাযে নামায পড়া নাজায়িয
  • তাহাজ্জুদ নামায জামায়াতে আদায় করা বিদ্য়াত
  • মহিলাদের জামায়াতের জন্যে মসজিদে ও ঈদগাহে যাওয়া হারাম
  • তারাবীহ্ নামায আট রাকয়াত নয় বরং বিশ রাকায়াত
  • শরীয়তে উমরী ক্বাযা নামায রয়েছে
  • মুসাফিরের মসজিদে গিয়ে নামায পড়া শর্ত নয়
  • আখিরী যোহর অবশ্যই শরীয়তে রয়েছে
  • হালকী নফল বসে পড়াই সুন্নত
  • হানাফী মাযহাব মতে ফযরের নামাযে কুনূতে নাযিলা পাঠ করা নাজায়িয
  • বাংলা ভাষায় জুমুয়ার খুৎবা দেয়া বিদ্য়াত
  • ঈদ ও জুমুয়ার খুৎবায় লাঠি ব্যবহার করা সুন্নত
  • মসজিদে ছানী জামায়াত করা জায়িয
  • জুমুয়ার ছানী আযান মসজিদের ভিতরে দেয়া সুন্নত
  • আযানের সময় অঙ্গুলী চুম্বন করা মুস্তাহাব সুন্নত
  • দাফনের পর কবরে আযান দেয়া বিদ্য়াত, তালক্বীন দেয়া সুন্নত
  • পাঁচ ওয়াক্ত, জানাযা নামায ও আযানের পর হাত উঠায়ে সম্মিলিতভাবে মুনাজাত করা জায়িয ও সুন্নত
  • রোযা অবস্থায় ইনজেকশন, স্যালাইন, ইনসুলিন, ইনহেলার নিলে অবশ্যই রোযা ভঙ্গ হয়ে যায়
  • কুরআন শরীফ খতমের বিনিময় নেয়া জায়িয
  • সব ধরণের টুপি সুন্নত নয়
  • ইমামাহ্ বা পাগড়ী পরিধান করা দায়েমী সুন্নত
  • পাগড়ীর উপর রুমাল পরিধান করা খাছ সুন্নত
  • পুরুষের জন্য লাল রুমাল ব্যবহার করা নাজায়িয
  • কোনা ফাঁড়া কোর্তা সুন্নত নয়
  • ফাঁড়া বা সেলাইবিহীন লুঙ্গী খাছ সুন্নত
  • বাবরী ব্যতীত অন্য কোন পদ্ধতীতে চুল রাখা সুন্নত নয়
  • এক মুষ্ঠি পরিমাণ দাড়ি রাখা ফরয, গোঁফ ছোট করে রাখা সুন্নত,মুণ্ডন করা বিদয়াত
  • লক্বব ব্যবহার করা খাছ সুন্নত
  • মাযহাব মানা ফরয
  • নিয়ত করে মাযার শরীফ যিয়ারত করা সুন্নত
  • ওসীলা গ্রহণ করা বা ওসীলা দিয়ে দুয়া করা জায়িয
  • কদমবুছী করা খাছ সুন্নত
  • দোয়াল্লীনকে যোয়াল্লীন পড়লে নামায ফাসেদ হয়ে যায়
  • মেয়েদের পায়ে মেহেদী ব্যবহার করা সুন্নত
  • তাকবীরে তাশরীক তিনবার পাঠ করা মুস্তাহাব-সুন্নত
  • খাসি কুরবানী করা জায়িয ও সুন্নত
  • কুরবানীর দিনে হাঁস-মুরগী যবেহ করা মাকরূহ
  • সর্ব প্রকার খেলাধুলাই হারাম
  • প্রচলিত ছয় উছূলী তাবলীগ করা ফরয নয়
  • পুনর্জন্ম ও জন্মান্তর বিশ্বাস করা কুফরী
  • গান-বাজনা করা ও শোনা হারাম
  • ধূমপান করা হারাম
  • প্রভিডেন্ট ভান্ডের সুদ খাওয়া হারাম
  • প্রসঙ্গঃ হক্ব আলিম-নাহক্ব আলিম এর পরিচয়
  • আযীযুল হককে ‘হদস’ আমীনীকে ‘কমিনী’ ও মুহিউদ্দীনকে ‘মাহিউদ্দীন’ বলা দলীল সম্মত
  • উসামা বিন লাদেন, মোল্লা ওমর ও সাদ্দাম মুনাফিক ও সি.আই.-এর এজেন্ট
  • ****************************
    মহান আল্লাহ পাক তিনি আমাদের সকলকে হক্ব মতে, হক্ব পথে ক্বায়িম-দায়িম থেকে মহান আল্লাহ পাক ও উনার হাবীব হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনাদের খাছ সন্তুষ্টি হাছিল করার তাওফীক দান করুন। (আমীন)
    [বি.দ্র: পোস্টের লিংকগুলো নিয়মিত আপডেট করা হবে]

  • Views All Time
    2
    Views Today
    2
    শেয়ার করুন
    TwitterFacebookGoogle+

    ৭টি মন্তব্য

    1. সময়োপযোগী গুরুত্বপূর্ণ পোষ্ট। Rose

    2. যে সকল বিষয়ের কারণে বাতিলপন্থী ও ধর্মব্যবাসায়ীরা সাধারণ মুসলমানদের বিভ্রান্ত করছে, সে সকল বিষয় সম্পর্কে বাতিলপন্থীরা কি বলছে আর দ্বীন ইসলাম কি বলেছে তার একটি সংক্ষিপ্ত চিত্র নিম্নে তুলে ধরা হলো- ei bishoy ta ektu porishkar koren. nicher gulo kon pokkher motamot.

    3. @banglarmela , মুসলমান হলে তো বুঝার কথা।
      আর মুসলমান না হলে জানার দরকার নেই।

    4. MNURUNNABI says:

      খুবই গুরত্বপূর্ণ পোষ্ট। লক্ষ-কোটি শুকরিয়া। এই লেখাগুলোর উপর ধারাবাহিক পোষ্টের জন্য আবেদন করছি।

    মন্তব্য করুন

    মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে