বাংলা ব্লগে তৃতীয় ব্যাক্তির হস্তক্ষেপ বন্ধ করা জরুরী আর পাঠক আর লেখকরা’য় হউক বাংলা ব্লগের সবকিছু আর এই ধারা অব্যাহত থাকুক যুগের পর যুগ।


 

উপরের নামকরণটি প্রসংঙ্গে বলতে চাই যে বাংলা ব্লগ হাতে গুনে শেষ করা যাবে এইরুপ অবস্তায় আর নেই। এখন চোখ মেলে তাকালে কম করে দুই/তিন ডজন বাংলা ব্লগ পাওয়া যাবে, বাংলা ব্লগ যখন শুরু হয়েছিলো তার জন্ম থেকেই ব্লগিং করার ভাগ্য আমার হয়েছিল, যা এখনও চলছে, আগামীতে ও চলবে, তবে লিখনীতে ধারালো বা মসৃণতা কতটুকু যোগ করতে পেরেছি তা পাঠক বলতে পারবে, কারণ পাঠকই সকল পোষ্টের নিয়ন্ত্রণকারী সেটা আমি লিখলেও পাঠক পড়বে আবার আমার স্যার হুমায়ুন আহমেদ লিখলেও পাঠক পড়বে কেননা পড়ার বিষয়ে কেউ কাউকে উৎসাহিত করতে পারে না যে এইটা পড়ো বা ওইটা পড়, কিংবা এগুলো পড়িও না। বিষয়টা যেহেতু পড়ার।

 

ইদানীং বাংলা ব্লগে যে বিষয়টি লক্ষণীয় তা হলো তৃতীয় ব্যাক্তির হস্তক্ষেপ। বিষয়টা আরেকটু পরিস্কার করে বলতে চাই। আমার যা খুশী আমি তা আমার লেখনীতে প্রয়োগ করছি, আমার যদি মনে হয় এই অংশ আমি প্রকাশ করবো না তা করার অধিকার আমার আছে। জোর করে আমাকে দিয়ে কেউ যেমন লিখাতে পারবে না তেমনি কেউ যদি চাই যে লেখনী হতে হবে এইরুপ বা ওইরুপ তখন কিছুই আর কাজে লাগবে না। কেননা লেখক তার লেখনীতে অবাধ বিচরণের স্বাধীনতা রাখে। ফলে কোনটা কেমন লেখা হবে তা যাচাই বা বাছাইয়ের জন্য একজন তৃতীয় ব্যাক্তির হস্তক্ষেপ বাংলা ব্লগে আমরা দেখতে পাই যা লেখণির ধারাবাহিকতা রক্ষার ক্ষেত্রে অপ্রয়োজনীয় বলেই আমার মনে হয়েছে, যেমন আমরা তাকে একটা নামে ডাক দিচ্ছি কেউ বলছেন ‘মডু’ আবার কেউ বলছেন ‘সঞ্চালক’ ইত্যাদি। তিনি ব্লগে বসে লেখা কোনটা পোষ্ট হবে, কোনটা আগে যাবে এইরুপ দায়িত্বসম্পন্ন করেন, ফলে তাকে বলা হয় ব্লগের মডারেটর বা ব্লগ সঞ্চালক, কিছু কিছু বাংলা ব্লগে আমরা তদ্রুপ ভূমিকায় কাউকে পেয়ে যাই পৈত্রিক সুত্রে।

 

যেমন প্রথম আলো ব্লগ, শব্দনীড় ইত্যাদি ব্লগ। এখানে তদ্রুপ ব্যাক্তির অবাধ বিচরণ অনেক সময় ব্লগকে প্রশ্ন বিদ্ধ করে। কোন লেখকের লেখা যদি সঞ্চালকের পছন্দ না হয় তবে সে লেখা ব্লগে ছাপা হবে না এমুনটা ধরে নেয়া স্বাভাবিক, আর কোন লেখনীর লেখক যত খুশী তার লেখাকে দীর্ঘক্ষণ ব্লগের প্রথম পাতায় ঘন্টার পর ঘন্টা সঞ্চালক নির্বাচিত করে আটকে রাখতে পারে বা তার সাথে লেখকের একটা টেবিল চুক্তি থাকতে পারে, প্রশ্ন হচ্ছে আমার লেখা সঞ্চালক নির্বাচিত হয়ে প্রথম পাতায় ঘন্টার পর ঘন্টা পোষ্ট হিসাবে থেকে যাবে, দেখা যাবে তার চাইতে কোন গুরুত্বপূর্ণ পোষ্ট যেতে যেতে ৩য় বা ৪র্থ পাতায় নাম লিখিয়েছে অথচ প্রথম পাতায় সঞ্চালক নির্বাচিত হয়ে অনেক অর্থহীণ পোষ্টও থেকে যাই শুধুমাত্র সঞ্চালক নির্বাচিত এই কারণে।

আমি আমার মাতৃভাষায় অন্য কোনো ৩য় ব্যাক্তির হস্তক্ষেপ চাই না। নিজের লেখনী ব্লগে মুক্ত ভাবে প্রকাশ করতে পারলেই বাংলা ব্লগ স্বাধীন বলতে কোন আপত্তি থাকবে না, আর এই ব্যবস্তা না থাকলে তবে ব্লগার ভাইদের বলবো এই ব্যবস্তা আপনারা তৈরি করুন। এমন কোন মাধ্যমে লিখুন যেখানে প্রকাশের সাথে সাথে ছাপানো হবে, আপনার মূল্যবান লেখা কোন অদৃশ্য শক্তির হাতে ঘন্টার পর ঘন্টা বন্দী হয়ে না থাকে এইরুপ মাধ্যমে লেখুন, যে মাধ্যমে জবাবদিহিতা থাকবে, অযথা ব্যান খাওয়ার ভয়ে আপনাকে থর থর করে কাপঁতে না হয়, কেননা আপনার ব্লগে আপনি লিখবেন, যেমন খুশী তেমন লিখবেন. নিজের বিবেকের কাছে এই সত্য যতক্ষণ পূর্যন্ত পরিস্কার না হবে ততক্ষণ অন্য এমন ব্লগে লিখুন যেখানে ব্লগ সঞ্চালক বা মডু শ্রেনীর দ্বারা আপনার মাথা থেকে বের হওয়া মেধাকে নিজেদের ব্যাক্তি স্বার্থে লাগাতে না পারে, সেইদিকে ব্লগারদের হুশিয়ার থাকতে হবে বলে আমি মনে করি। শুভ ব্লগিং।

Views All Time
1
Views Today
1
শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

  1. সহমত পোষণ করি। তবে অনেকের মুখে অশ্লীলতার মুক্তা ঝরে, আবার অনেকের লেখায় আক্রমাণাত্মক ভংগি থাকে। সেখেত্রে মোডু সাহেবদের দরকার আছে। তবে ব্লগারদের শালীনতা বজায় রেখে তার ব্যক্তিগত মত প্রকাশের সুযোগ দেয়া উচিত। তাহলে ব্লগিং জগত আরো সুন্দর হবে আশা করি

  2. স্বাভাবিকভাবেই স্বয়ংসম্পূর্ণ একটি ব্লগের কতিপয় নীতিমালা থেকে থাকে। সেক্ষেত্রে নীতিমালার সীমা যেমনি একজন ব্লগারের লঙ্ঘন করা উচিত নয়; তেমনি ব্যক্তিগত স্বার্থে সঞ্চালকের অবৈধ হস্তক্ষেপও কাম্য নয়।

  3. @সিংহশাবক, সুন্দর মন্তব্যের জন্য আপনাকে Rose Rose Rose

  4. ব্লগে লিখুন! তবে আপনার মাথা থেকে বের হওয়া মেধাকে নিজেদের ব্যাক্তি স্বার্থে লাগাতে না পারে Pill Pill Pill

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে