বাল্য বিবাহের বিরোধিতা করা মানেই সুন্নত মুবারক অস্বীকার করা


কাফির মুশরিকরা মুসলমানদের ঈমান আমল নষ্ট করার জন্য নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হূযুর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার এবং হযরত উম্মাহাতুল মু’মিনীন আলাইহিন্নাস সালাম উনাদের শান-মান , মর্যাদা মুবারক নিয়ে বিভিন্নভাবে ছবি, নাটক, সিনেমার মাধ্যমে ব্যঙ্গ-চিত্র প্রদর্শন করছে। (নাউযুবিল্লাহ! নাউযুবিল্লাহ! নাউযুবিল্লাহ!) এমনকি এগুলো করার পাশাপাশি তারা বিশেষ ভাবে বাল্যবিবাহের বিরোধীতা করে যাচ্ছে। নাউযুবিল্লাহ! নাউযুবিল্লাহ! নাউযুবিল্লাহ!
মূলত বাল্যবিবাহ করা খাছ সুন্নতে রসূলিল্লাহি ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম। সুবহানাল্লাহ! নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযুর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি মহান আল্লাহ পাক উনার নির্দেশ মুবারকেই বাল্যবিবাহ সম্পন্ন করেছেন। সুবহানাল্লাহ! আর মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, তোমাদের জন্য নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হূযুর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি হচ্ছেন উত্তম আদর্শ মুবারক। সুবহানাল্লাহ! অর্থাৎ তিনি আমাদের জন্য অনুসরনীয়।
এখন যারা বাল্যবিবাহের বিরোধীতা করবে তারা মূলত মহান আল্লাহ পাক উনার এবং উনার হাবীব, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনাদের বিরোধিতা করবে। নাউযুবিল্লাহ! আর যারা উনাদের বিরোধীতা করবে তাদের জন্য জাহান্নাম নির্ধারিত। নাউযুবিল্লাহ!
মূলত, বাল্যবিবাহ করা শর্ত নয়। কিন্তু এই বিষয়ে সঠিক আক্বীদা পোষন করাই শর্ত। সুতরাং সকলের উচিত যারা বাল্য বিবাহের বিরোধিতা করে তাদের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করা।
মহান আল্লাহ পাক তিনি যেন সকল মুসলমান উনাদেরকে বাল্য বিবাহ সম্পর্কে সঠিক আক্বীদা পোষন করার এবং বিরোধিতাকারীদের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করার তাওফীক্ব দান করেন। (আমীন)

Views All Time
1
Views Today
4
শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে