বাহ্যিক পরিস্কার-পরিচ্ছন্নতা


সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, খতামুন্নাবিয়্যীন, হুজুর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার শরীর মুবারকের পরিচর্যা ও বাহ্যিক পরিস্কার-পরিচ্ছন্নতার উপর বিশেষ গুরুত্বারোপ করেছেন।

শরীর মুবারকের পরিচর্যার ক্ষেত্রে গুরুত্ব প্রদানঃ
রসূলুল্লাহ্ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম নিজ শরীর মুবারক-এর অঙ্গ-প্রত্যঙ্গ সর্বদা পরিস্কার-পরিচ্ছন্ন রাখতে সদা সতর্ক ছিলেন। এবং হযরত ছাহাবা-ই-কিরাম রদ্বিয়াল্লাহু আনহুমদেরকেও শরীরের পরিচর্যার জন্য নির্দেশ দিতেন। তিনি তাই প্রত্যেক জুমুয়ার দিন অবশ্যই গোসল করতেন এবং খাবারের পূর্বে এবং পরে দুহাত ধুয়ে নিতেন। আর প্রতিনিয়ত মেসওয়াক করার প্রতি যত্নবান থাকতেন। তিনি মোচ খাটো করা, নখ কেটে ফেলা, বগলের লোম উপড়িয়ে ফেলা এবং নাভীর নীচের লোম চেঁছে ফেলতেন। পাক-পবিত্রতা ও পরিচ্ছন্নতার ব্যাপারে তিনি বলতেন
ان الله طيب يحب الطيب، نظيف يحب النظافة، كريم يحب الكرم، جواد يحب الجود.
অর্থঃ- “নিশ্চিতভাবে আল্লাহ্ তায়ালা পবিত্র। পবিত্রতাকে তিনি ভালবাসেন, তিনি পরিচ্ছন্ন এবং পরিচ্ছন্নতাকে ভালবাসেন, তিনি দয়ালু-দয়া অনুগ্রহকে ভালবাসেন, তিনি দানশীল, দানশীলতাকে তিনি পছন্দ করেন।”
(তিরমিযী শরীফ)

Views All Time
1
Views Today
1
শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে