বিদয়াতীরা পবিত্র মসজিদ উনাকে নাট্যশালা বানাতে চায়, নাউযুবিল্লাহ!


বিগত বেশ কয়েক বছর যাবৎ দেশে বিদেশের বিভিন্ন মসজিদে পবিত্র নামায উনার কাতারে কাতারে বিভিন্ন স্টাইলের চেয়ার টেবিল বসিয়ে নামায পড়া শুরু করেছে কতিপয় দুনিয়াদার মুসল্লী নামধারী, যাদের আর্থিক মদদে ধর্মব্যবসায়ী বিদয়াতীরা লালিত পালিত হয়। জানা গেছে, এই বিদয়াতী অপকর্ম সর্বপ্রথম মসজিদে নববী শরীফ উনার মধ্যে চেয়ারে বসে কথিত নামায পড়ার মাধ্যমে জারী করেছে সদ্য মৃত সৌদী ইহুদী ওহাবী বাদশাহ আব্দুল্লাহ। নাউযুবিল্লাহ। তার সেই কথিত নামায পড়ার দৃশ্য ইন্টারনেটের মাধ্যমে সারা বিশ্বে ছড়িয়ে দেয়া হয়।
বর্তমানে বিভিন্ন দেশেতো বটেই আমাদের দেশের বিভিন্ন মসজিদেও একইভাবে চেয়ার টেবিল স্থায়ীভাবে বসিয়ে নামায পড়া শুরু হয়েছে। এ অবস্থায় মু’মিন মুত্তাক্বী মুসল্লী সমাজ সঠিক ফতওয়া জানতে চাইলে বিশ্বের একমাত্র নির্ভরযোগ্য গবেষণা প্রতিষ্ঠান- মুহম্মদিয়া জামিয়া শরীফ থেকেই সঠিক ফতেওয়া দিয়ে জানানো হয়, মসজিদে চেয়ার টেবিল বসিয়ে নামায পড়া বিদয়াত নাজায়িয। বলাবাহুল্য, উনাদের এই ফতওয়াকেই শরীয়তসম্মত ও একমাত্র গ্রহণযোগ্য ঘোষণা দিয়ে ইসলামিক ফাউন্ডেশন বাংলাদেশ নিজেদের পক্ষ থেকেও তা প্রচার এবং প্রকাশ করেছিলো।
কিন্তু মুরব্বীপুজারী জামাতী ওহাবী দেওবন্দী গং, দুনিয়াদার মসজিদ কমিটির লোকজন এবং যারা মহান আল্লাহ পাক উনার ঘর পবিত্র মসজিদে গিয়ে দাম্ভিকতা অহঙ্কার দেখায়, এমন শ্রেণীর মাঝে এই ছহীহ পবিত্র কুরআন সুন্নাহ শরীফ সম্মত ফতওয়া যেন আগুন ধরিয়ে দিয়েছে। তারা ছলে বলে কৌশলে ছহীহ ফতওয়ার বিরুদ্ধে নানা প্রকার মিথ্যা গুমরাহীমূলক কথা বলে অপপ্রচার চালাচ্ছে। তাদের এই অপকর্ম তাদের মুরুব্বী পুজার মধ্যে সীমাবদ্ধ রয়েছে। অর্থাৎ তারা শরীয়তসম্মত কোন দলীলপ্রমাণ না দিয়ে বলে যাচ্ছে, আমাদের মুরুব্বীরাতো টেবিল চেয়ারে বসেই নামায পড়ে! নাউযুবিল্লাহ! যার ফলে সাধারণ আম জনতার মধ্যে প্রশ্ন জেগেছে- তবে কি মসজিদে চেয়ার টেবিল বসিয়ে ওহাবী খারিজী বিদয়াতীরা পবিত্র মসজিদ উনাকে নাট্যশালা বানাতে চায়? নাউযুবিল্লাহ! এই একটি বদআমলকে হালাল করতে গিয়েই তাদের মুখোশ আবারো নতুনভাবে উন্মোচিত হয়েছে।

Views All Time
1
Views Today
2
শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে