বিধর্মীদের নিয়ম-নীতি পালন করা হারাম


বিধর্মীদের নিয়ম-নীতি পালন করা হারাম

মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, যে ব্যক্তি পবিত্র দ্বীন ইসলাম ব্যতীত অন্য কোনো ধর্ম অনুসরণ-অনুকরণ করবে, তার থেকে তা গ্রহণ করা হবে না। সে অবশ্যই পরকালে ক্ষতিগ্রস্থ হবে অর্থাৎ জাহান্নামী হবে। (পবিত্র সূরা আলে ইমরান শরীফ : পবিত্র আয়াত শরীফ ৮৫)
পবিত্র হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে আছে, যে যার সাথে মিল রাখে তার হাশর তার সাথে হবে। (তিরমিযী শরীফ)
যেমন ইহুদী নাছারারা পবিত্র আশূরা শরীফ উনার দিন একটি রোযা রাখে। এ কারণে আমাদেরকে দুইটি রোযা রাখতে হবে। তারা দেরি করে ইফতার করে, এর বিপরীতে আমাদেরকে তাড়াতাড়ি ইফতার করতে হবে। ইহুদীরা শুধু পাগড়ী পরে, তাদের বিপরীত করে আমাদেরকে টুপির উপর পাগড়ী পরতে হবে। আবার মজুসীরা দাড়ি কেটে মোচ বড় রাখে। আমাদেরকে মোচ ছোট রেখে দাড়ি লম্বা রাখতে হবে। মজুসীরা কুরবানী উনার দিনগুলোতে হাঁস-মুরগি জবাই করে। এখন কোনো মুসলমান যদি তাদের অনুসরণে সেটা করে, তাহলে কুফরী হবে। কাউকে যদি এগুলো করতে হয়, তাহলে দশ তারিখে ছুবহে ছাদিকের আগে জবাই করে রাখতে হবে। আবার কেউ যদি নববর্ষ উপলক্ষে খুশি প্রকাশ করে একটা ডিমও খরচ করে তাহলে তার জীবনের সমস্ত আমল বরবাদ হবে। উপরোক্ত আলোচনা থেকে বুঝা যাচ্ছে যে, বিধর্মীদের কোনো নিয়ম-নীতি পালন করা যাবে না। কেউ যদি করে মহান আল্লাহ পাক তিনি তা গ্রহণ করবেন না। সে পরকালে কঠিন শাস্তির সম্মুখীন হবে।
মহান আল্লাহ পাক তিনি আমাদের সবাইকে বিধর্মীদের অনুসরণ করা থেকে বিরত থেকে হাক্বীক্বী ঈমানদার হওয়ার তাওফীক দিন। আমীন!

Views All Time
1
Views Today
1
শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে