বিশ্ব মুসলিম উম্মাহকে বাঁচাতে এবং যুলুমবাজ কাফেরদের ধ্বংস করতে আল্লাহ পাক উনার দরবারে কে দোয়া করছেন?


পৃথিবীর সমস্ত ইহুদী-নাছারা-মজুসী-মুশরিক তথা তাবৎ কাফির সম্প্রদায় পৃথিবীর আনাচে-কানাচে, অলিতে-গলিতে মুসলমানদের উপর জুলুম নির্যাতন করছে, তাঁদেরকে শহীদ করছে, মুসলমানদের সম্পদ লুণ্ঠন করছে, মুসলিম মহিলাদের সম্ভ্রমহরণ করছে, জঙ্গি সন্ত্রাসী অপবাদ দিয়ে হেয় প্রতিপন্ন করছে। জুলুম-নির্যাতনের পাশাপাশি ফরয-ওয়াজিব-সুন্নতে মুয়াক্কাদা পালনে তথা শরীয়ত পালনে বাধা প্রদান করছে।
এতদ্প্রেক্ষিতে যামানার ইমাম ও মুজাদ্দিদ, সাইয়্যিদে মুজাদ্দিদ, মুজাদ্দিদে আ’যম, কুতুবুল আলম, কাইয়্যুমুয যামান মামদূহ হযরত মুর্শিদ ক্বিবলা আলাইহিস সালাম তিনি পৃথিবীর সমস্ত নির্যাতিত মুসলমানদের পক্ষ থেকে যিনি মহান আল্লাহ পাক- উনার শাহী দরবারে কাবা শরীফকে যেভাবে জালিম কাফির আবরাহার হাত থেকে রক্ষা করেছেন সেভাবে মুসলমানদেরকে রক্ষা করার এবং এই কাফির সম্প্রদায়কে আবরাহার মতো ধ্বংস করে দেয়ার ফরিয়াদ জানান।

মুজাদ্দিদে আ’যম উনার দোয়ার দোয়ার ফলে সারাবিশ্বে কি হচ্ছে?
উনার সেই মুবারক মকবুল দোয়া ও ফরিয়াদের ফলে মহান আল্লাহ পাক সারাবিশ্বের কাফির-মুশরিকদের উপর বিভিন্ন আযাব-গযব নাযিল করে তাদেরকে নিস্তানাবুদ করে দিচ্ছেন। তার প্রমাণ হচ্ছে সাম্প্রতিক সময়ে ইউরোপ-আমেরিকাসহ পৃথিবীর বিভিন্ন কাফিরদের দেশগুলোতে ভয়াবহ ভূমিকম্প, সুনামি, ব্যাপক তুষারপাত, সাইক্লোন-টর্নেডো, ব্যাপক দাবানল ইত্যাদির প্রকোপ তথা অর্থনৈতিক মন্দার ভয়াবহ গযব।

কাফেরদের উপর আরোপিত খোদায়ী গযব কি শেষ?
মুজাদ্দিদে আ’যম মামদূহ হযরত মুর্শিদ ক্বিবলা আলাইহিস সালাম উনার দোয়া ও রোবের প্রতিফলনে মুসলমানদেরকে জুলুম নির্যাতন করার ফলস্বরূপ- জুলুমবাজ কাফের উপর নাযিলকৃত খোদায়ী গযব শেষ হয়নি বরং শুরু হয়েছে। সন্ত্রাসবাদী, যবন, ম্লেচ্ছ, অস্পৃশ্য কাফিরদের উপর বন্যা, তুষারপাত, খরা, ঘূর্ণিঝড়, দাবানল, সিংকহোল, বিষাক্ত  পোকামাকড়ের আক্রমন, ভূমিকম্প প্রভৃতি প্রাকৃতিক দুর্যোগরুপে বিভিন্ন প্রকার বিশৃঙ্খলা, পাগল হয়ে যাওয়া, অস্বাভাবিক মৃত্যু হওয়া এবং অর্থনৈতিক মন্দারূপে খোদায়ী গযব অব্যাহত আছে এবং দিনে দিনে সেটার তীব্রতা বৃদ্ধি পাচ্ছে।
মুসলমানদের উপর যুলুম-অত্যাচার বন্ধ না করলে কাফেরদের শেষ পরিণতি কি হবে?
মহান মুজাদ্দিদে আ’যম আলাইহিস সালাম তিনি বলেন, “ইহুদী-খ্রিস্টান, কাফির-মুশরিকরা যদি মুসলমানদের উপর যুলুম-অত্যাচার বন্ধ না করে তবে, তারা রাস্তার ফকির হয়ে যাবে। ডাস্টবিন থেকে খাবে। এক সময় ডাস্টবিন থেকেও খাবার পাবে না। ডাস্টবিনের খাবার নিয়ে কুকুরের সাথে কামড়া-কামড়ি করবে।
এরপরও তারা (কাফিররা) যদি মুসলমানদের উপর নির্যাতন বন্ধ না করে, তবে তারা ক্ষুধার তাড়নায় নিজেদের মলমূত্র নিজেরা খাবে। এরপরে নিজেদের মাংস নিজেরই কামড়ে খাবে। তারা থাকার কোন জায়গা পাবেনা। জায়গা না পেয়ে রাস্তায় গড়াগড়ি করবে এবং এক পর্যায়ে গড়াগড়ি করতে করতে স্থলভাগে স্থান না পেয়ে পানিতে নামতে বাধ্য হবে। অর্থাৎ পানিতে হাবুডুবু খেয়ে মরবে।”
বাস্তবতায় কি দেখা যাচ্ছে?
প্রাপ্ত তথ্য উপাত্ত বিশ্লেষণ করে দেখা যায়, মুজাদ্দিদে আযম, ইমাম রাজারবাগ শরীফ-এর মামদূহ হযরত মুর্শিদ ক্বিবলা আলাইহিস সালাম তিনি যখন থেকেই এরকম দোয়া করছেন ও এসব ভবিষ্যদ্বাণী করছেন তখন থেকেই আমেরিকা, ইউরোপসহ জুলুমবাজ বিধর্মী বিশ্ব ধারাবাহিকভাবে অর্থনৈতিক মন্দাসহ বিভিন্ন প্রকৃতিক দুর্যোগরূপী গযবে প্রকটভাবে আক্রান্ত হচ্ছে। ইউরোপ-আমেরিকা সহ কাফের-মুশরেকদের অন্যান্য দেশগুলোতে প্রতিনিয়ত ঘটে যাচ্ছে ইতিহাসের রেকর্ডভঙ্গকারী স্বরণকালের ভয়াবহ বন্যা, তুষারপাত, ঘূর্নিঝড়, হ্যারিকেন, টের্নেডো, ভূমিকম্প, সুনামী ইত্যাদি।
undefined
Whoever is Praying for snow….USA
undefined
Japan tsunami
undefined
Destroy Nuclear Plant of Japan
undefined

 

সু-সংবাদ!
যামান ইমাম ও মুজতাহিদ, মুজাদ্দিদে আ’যম ইমাম রাজারবাগ শরীফ-এর মামদূহ হযরত মুর্শিদ ক্বিবলা আলাইহিস সালাম তিনি দয়া ও ইহসান করে যুলুমবাজ কাফের-মুশরেকদের উপর খোদাযী গযবের নমুনা স্বরুপ কিছু ভিডিও চিত্র(প্রাণীর ছবি বিহীন) প্রদর্শনের অনুমতি দিয়ে থাকেন। ইতোপূর্বে গযবের চিত্র তিন বার প্রদর্শিত হয়েছে যেগুলোর ভিডিও সিডি পাওয়া যাচ্ছে  (ভিডিও সিডি সংগ্রহ করতে যোগাযোগ করুন- +880 1754 975433) । পরবর্তী প্রদর্শনী এমাসেই অর্থাৎ শাওয়াল মাসের ১৫-২০ তারিখের মধ্যে অনুষ্ঠিত হওয়ার সম্ভবনা রয়েছে।
স্থান: সুন্নতি জামে মসজিদ, ৫, আউটার সার্কুলার রোড, রাজারবাগ শরীফ, ঢাকা।
কোন টিকিট ছাড়াই এ নজির বিহীন গযব প্রদর্শনী দেখার জন্য আমন্ত্রণ রইলো।
শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+