ব্লগার লাল কোথায়? তার জন্য অপেক্ষা, আশা করি সে তার ভুল স্বীকার করবে।


লাল খুব বেশি বাড়াবাড়ি শুরু করেছে, আজ সামু পড়তে গিয়ে তার জন্য একটি পোস্ট পেলাম, আমি তা হুবহু শেয়ার করছি।

http://www.somewhereinblog.net/blog/ABDULKADIR1/29641454

এক সাথে পাঁচ সন্তানের জন্ম। আবারো প্রমাণিত হলো যে মায়ের গর্ভে কি আছে সেটা ১০০% নিশ্চিতভাবে শুধু আল্লাহ্‌ই জানেন।

সকল প্রশংসা মহান আল্লাহ্‌র। অসংখ্য দরূদ নাযিল হোক তার নবীর উপর বারবার।

এক দম্পতির একসাথে পাঁচ সন্তান জন্ম নিয়েছে। অথচ ডাক্তাররা জন্মের কিছুদিন আগেও ঠিকভাবে বলতে পারলোনা। দেখুন, গর্ভে মোট কয়টি সন্তান আছে, এটা বলা কিন্তু এর চেয়ে অনেক সহজ যে গর্ভের সন্তানটি ছেলে নাকি মেয়ে। তো সংখ্যার বিষয়টিই যেখানে নিশ্চিতভাবে এবং নির্ভুলভাবে বলা যায় না সেখানে সন্তানটি ছেলে না মেয়ে সেটা কীভাবে ১০০% নিশ্চয়তা দেয়া যায়।এরকম ঘটনা আরো অনেকবার ঘটেছে। এই নয় যে এটাই প্রথম। একবার ঢাকার এক হাসপাতালে ডাক্তাররা বলেছিলো যে, একটা মেয়ে হবে পরে দেখা গেলো যে, ছেলে মেয়ে মিলিয়ে চারটা সন্তান হয়েছে। যাইহোক উপরের খবরটি দেখার জন্য নীচের লিংকগুলোতে দেখেন।

আমার দেশ 

দৈনিক জনকন্ঠ 

দৈনিক ডেসটিনি 

দৈনিক প্রথম আলো 

বাংলাদেশ প্রতিদিন 

আর “”কারণ ২০ সপ্তাহ পরে আল্টাসনোগ্রাফি করালে তার রিপোর্ট কখনো ভুল হয় না।”” এই জাতীয় বৈজ্ঞানিক কথা আর না কপচালেই ভালো।

*********************************************************************

এবার আমি আমার একটি অভিজ্ঞতার কথা বলিঃ

ঢাকা সি,এম,এইচ এ শিশু বিভাগে ডিউটি করছিলাম, নিওনেটাল আই,সি,ইউ তে এক মায়ের তিনটি সদ্য প্রসূত সন্তান ভর্তি করা হলো। সিজার করার আগে চিকিতসকেরা এই মায়ের দুইটি যমজ সন্তান এর কথা নিশ্চিত করেছিলেন, অথচ সন্তান হল তিনটি।প্রত্যেকটি সন্তানই ছিল সুস্থ সবল, প্রতিটির ওজন ছিল আড়াই কেজির কাছাকাছি। সুবহানাল্লাহ।

অতএব, ব্লগার লাল, চাঁদ দেখা প্রসংগে সায়েন্টিফিক পদ্ধতির কথা বলতে গিয়ে আপনি মায়ের গর্ভের সন্তান দেখার যে উদাহরন দিয়েছেন, সেই উদাহরন ই আজ স্পষ্ট জানিয়ে দিল… চাঁদ দেখার বিষয়টি সম্পূর্ণভাবেই আল্লাহ পাকের কুদরতের অধীন। কাজেই, সউদি আরব বার বার নিজেকে খোদা দাবী করার ধৃষ্টতা তো প্রদর্শন করছেই, সেই সাথে নষ্ট করছে কোটি কোটি মুসলমানদের রোযা, হজ্ব ও সুমহান রাত্রিগুলো।

আর সবশেষে শুকরিয়া জ্ঞাপন করছি…সুমহান খালীফা আস-সাফফাহ আলাইহিস সালাম-উনার কাছে, যিনি সর্বপ্রথম সউদি আরবের এই ধৃষ্টতার প্রমাণ তুলে ধরেছিলেন।

Views All Time
2
Views Today
4
শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

  1. ডাঃ আফসার ভাই Rose

    আপনার থেকে নিয়মিত পোস্ট আশা করছি।

  2. লাল আসবে নাকি এখন ??? লা জাওয়াব ব্লগার লাল।

  3. রংধনুরংধনু says:

    লালের কাল অইচে…. এজন্য হাওয়া হয়ে মিশে গিয়েছে লাল-গো-ধুলিতে। Sun

  4. একটি ধাঁধা-
    রমজান মাস এলো,
    লাল উধাও হলো।
    এই দুটি লাইন কি বুঝালো,
    বলুন তো ব্লগার বৃন্দ?

  5. আজকে প্রথম কালো-তে একটা হেডিং- জন্মনিয়ন্ত্রণ মাতৃমৃত্যুও কমায়। তারপরেই হেডিং- একসাথে পাঁচ সন্তানের জন্ম।!!.. মজা লাগল দেখে…

  6. @সিংহশাবক,মজা পাইলাম ভাই, মূর্খগুলার জ্ঞান বুদ্ধি কশ্মিনকালেও হবে কিনা সন্দেহ আছে।

  7. বিধর্মীরা মুসলমানদের সংখ্যা কমানোর জন্য মুসলমানদের মাঝে ফ্যামিলি প্ল্যানিং সহ আরো বিভিন্নভাবে আপ্রাণ চেষ্টা করে যাচ্ছে। ঠিক তার বিপরীতে মহান আল্লাহ পাক রব্বুল আলামীন তিনিও উনার কুদরত দেখিয়ে দিচ্ছেন……..। Heart Rose Heart

  8. dr.faisal says:

    বিধর্মীরা মুসলমানদের সংখ্যা কমানোর জন্য মুসলমানদের মাঝে ফ্যামিলি প্ল্যানিং সহ আরো বিভিন্নভাবে আপ্রাণ চেষ্টা করে যাচ্ছে। ঠিক তার বিপরীতে মহান আল্লাহ পাক রব্বুল আলামীন তিনিও উনার কুদরত দেখিয়ে দিচ্ছেন Coffee Lamp Search

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে