ভারতের উগ্র মূর্তিপূজারী-বিধর্মীদের আস্ফালনের কারণেই তারা অতিসত্বর নিশ্চিহ্ন হবে ইনশাআল্লাহ


ভারতের উগ্র সাম্প্রদায়িক মূর্তিপূজারী-বিধর্মীরা নানাধরণের উস্কানিমূলক বক্তব্য দিয়ে বেড়াচ্ছে এবং নির্বাচনে মূর্তিপূজারী-বিধর্মীদের ভোট পাওয়ার লক্ষ্যে ভারতের মুসলমানদের উপর যুলুম-নির্যাতন সীমা ছাড়িয়ে গেছে। তারই ধারাবাহিকতায়, বিশ্ব মূর্তিপূজারী-বিধর্মী পরিষদের নেতা প্রবীণ তোগাড়িয়া রাজকোটে একটি জনসভায় বলেছে, মূর্তিপূজারী-বিধর্মীপ্রধান এলাকা ছেড়ে মুসলমানদের চলে যেতে হবে। এমনকি মূর্তিপূজারী-বিধর্মী এলাকায় মুসলিমদের জমি-বাড়ি কেনার উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করা হবে। মুসলমানরা যদি বাড়ি খালি না করেন তবে, জোর করে তাদের উচ্ছেদ করে, দরকার হলে অস্ত্র নিয়ে চড়াও হওয়ার কথা শোনা গেছে তার গলায়।
এছাড়াও ভারতের যোগী রামদেব নামে এক উগ্র নেতা বলেছে, ভারতীয় জনতা পার্টি (বিজেপি) মোদীর নেতৃত্বে আসন্ন নির্বাচনে জিতে ক্ষমতায় আসলে পাকিস্তান, বাংলাদেশ এবং আফগানিস্তান অখন্ড ভারতের অধীনে আসবে। রামদেবের এইসব প্রলাপ অস্বাভাবিক নয়, বরং এটাই হচ্ছে পশুশুলভ স্বভাবজাত চরিত্র। ভারতের উগ্র মূর্তিপূজারী-বিধর্মীদের এখন মুগুর খাওয়ার সময় হয়েছে। তারা যেভাবে গ্রীষ্মকালীন তেলাপোকার মতো উড়াউড়ি শুরু করেছে, এই আস্ফালন তাদের নির্ঘাত মৃত্যু ডেকে আনবে। এবং অতিসত্বর ভারত থেকে তাদের হয় পালাতে হবে; নচেৎ মুসলমানদের হাতে সেখানেই তাদের অসভ্যতা ও বর্বরতার সমাপ্তি ঘটবে। ইনশাআল্লাহ!

শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে