ভিন্ন সুরে যৌতুক লাভের বাসনার প্রকাশ….


” আমরা মানুষের মতো লোক ঠকাবো
না।বিয়েতে মেয়ের সাথে যা দেয়া
প্রয়োজন সব দিবো!”
সাউন্ড কেমন???
মানুষের কথার মধ্যেও বিভিন্ন সুর
থাকে!!!
একটা মেয়ের বিয়ের সময় তারা
বাবা-মা যদি সব না দেয় তবে কি সেই
বাবা-মা পাত্রপক্ষকে ঠকালো!!!??????
উল্লেখ্য,”সব” বলতে কি বুঝায় আমার
জানা নাই!
খুব সম্ভবত,অনেক কিছুই বুঝানো হয় যা
চোখে পড়ার মত!
এখন কথা হচ্ছে,আপনি যদি নিজেকে
হাক্বীক্বী মুসলমান দাবী করেন
তাহলে আপনি কোন ভিত্তিতে
এধরনের কথাবার্তা মাথায় রাখেন!?!
এই আপনাকেই যদি বলা হয়,দ্বীন
ইসলামে মেয়েরে বাবা বিয়েতে
কিছু দিতে চাইলে নিষেধ নাই,তবে
তার কাছে কিছু চাওয়া যাবে না।
উপরন্তু সে যে মেয়েকে পেলে পুষে বড়
করেছে এই জন্য সে যদি পাত্র পক্ষের
নিকট কিছু চায় তখন পাত্রপক্ষকে
চাহিবা মাত্র বাহককে দিতে বাধ্য
থাকিবে!!!! আপনি কি তখন
দিবেন???????????
দিবেন না,তখন আপনিই চু-চেরা করবেন।
তখন আপনারই চেহারা ছাই বর্ণ ধারণ
করবে!
মুসলমানের মতো মুসলমান হোন।যৌতুক
নেন না ভালো কথা,তবে মনে মনে
আশা পোষণ করেন কেন???
লোক দেখানোর ইচ্ছা!!!?
সাবধান হয়ে যান,এটা আপনারই
অশান্তির কারণ হবে!!!!!
আর দেখে আসছি,যাদের আছে তারা
চায় না,আশাও করে না,যাদের নাই
তারাই চায় ছেলের বিয়েতে
মেয়েপক্ষ দ্বারা আমার ঘর ভরে যাক!!!
আর যারা লোভী তাদের ক্ষেত্রেই
এমন হয়।
সময় থাকতেই শুধরে যান,কেউ খুশিমনে
কিছু দিলে খুশি হোন যদিও তা
নিম্নমানের হোক!
আর মনের বিরুদ্ধে কিছু আনালে
সেটাও হয়তো কোনো কোনো বাবা
দিবে তবে কষ্ট দিয়ে আনার কারণে
হাক্কুল ইবাদ নষ্ট হবে!
মহান আল্লাহ পাক সকলকেই হক্ব বুঝার
তৌফিক দান করুন।
আমীন।

Views All Time
1
Views Today
1
শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে