মধ্যপ্রাচ্যের বিষফোঁড়া ইসরাইলের সাথে মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোর গলাগলি সম্পর্ক


সৌদিআরব, বাহরাইন, আরব আমিরাত এবং মিসরের সঙ্গে মধ্যপ্রাচ্যের বিষফোঁড়া ইসরাইলের যে গলাগলি সম্পর্ক চলছে, এর ফলে ফিলিস্তিনের আকাশে কেবলই কালোমেঘ ঘন হচ্ছে। সাম্প্রতি নিউইয়র্ক থেকে ইহুদিদের উচ্চ পর্যায়ের প্রতিনিধি দল এসে বাহরাইন ঘুরে গেছে।
বাহরাইনে পাওয়া সম্মান ও আতিথেয়তায় উৎফুল্ল প্রতিনিধি দলটির নেতা যাওয়ার বেলায় বলে গেছে, আমি অনুরোধ করছি, প্রত্যেক ইহুদি যেন এই বাহরাইন ঘুরে যায়।’ অথচ নয়মাসের বেশি সময় ধরে কাতারিদের জন্য বাহরাইনে প্রবেশ নিষিদ্ধ রয়েছে। ইসরাইলের জেরুজালেম পোস্টসহ অন্যান্য পত্রিকায় এই সফরের খবরাখবর ছাপা হয়েছে।
এর আগে যখন ভারতীয় বিমানসংস্থাকে সৌদিআরবের আকাশসীমা ব্যবহার করে ইসরাইলে যাওয়ার অনুমতি দেয় তখন সৌদিআরবের গণমাধ্যম খবরটি প্রকাশে লজ্জা পেলেও খোদ ইসরাইলের পত্রিকা হার্টজ তা প্রকাশ করে। আর এদিকে গত ২৭৬ দিন ধরে সৌদির আকাশসীমায় কাতার এয়ারওয়েজের প্রবেশ ও চলাচল নিষিদ্ধ রয়েছে।
ইসরাইলের সঙ্গে বন্ধুত্বের প্রতিযোগিতায় পিছিয়ে নেই মিসরও। নিজেরা খেতে না পারলেও গত মাসে যখন প্রেসিডেন্ট সিসি ইসরাইলের কাছ থেকে গ্যাস কেনার চুক্তি করে, তখন ইসরাইলের প্রধানমন্ত্রী এক টুইটে দিনটিকে ঈদের দিন হিসেবে ঘোষণা করে।
প্রতিবেশী দেশ কাতারের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করে, ফিলিস্তিনের হামাসকে সন্ত্রাসী আখ্যা দিয়ে ইসরাইলের হাতে হাত রেখে যে পথে হাঁটছে সৌদি এবং তার মিত্রগোষ্ঠী, এর পরিণতি কতোটা করুণ ভয়ঙ্কর, তা টের পাওয়ার মতো বোধ ও বুদ্ধি এই দেশগুলোর শাসকদের থাকলে আজ আরব দুনিয়ার এই পরিণতি হতো না।
ট্রাম্প আর নেতানিয়াহুর মুখে এক চিলতে হাসি দেখার জন্য এই শাসকদের দৌড়ঝাঁপের সিকিভাগও যদি স্বজাতির জন্য হতো, তবে সিরিয়া, ইয়েমেন ও ইরাক এবং লিবিয়ার এই দুর্দশা আজ দেখতো হতো না আমাদের।

Views All Time
1
Views Today
3
শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে