মসজিদ উচ্ছেদ বা ভাঙ্গার ঘোষণাকারীরা ইবলীসের চেলা


মসজিদ শব্দের উৎপত্তি সাজদাহ থেকে এবং পবিত্র কুরআন শরীফ উনার মধ্যে মসজিদ সাজদাহ অর্থাৎ সিজদা অর্থেও ব্যবহৃত হয়েছে।
যেমন পবিত্র সূরা আ’রাফ শরীফ উনার ২৯নং পবিত্র আয়াত শরীফ উনার মধ্যে মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন-
قُلْ أَمَرَ رَبِّي بِالْقِسْطِ ۖ وَأَقِيمُوا وُجُوهَكُمْ عِنْدَ كُلِّ مَسْجِدٍ وَادْعُوهُ مُخْلِصِينَ لَهُ الدِّينَ .
অর্থ: “আমার হাবীব ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম! আপনি বলুন, আমার যিনি মহান রব তিনি আমাকে ইনসাফ প্রতিষ্ঠার আদেশ মুবারক করেছেন। উনার আদেশ মুবারক এই যে, তোমরা প্রত্যেক সিজদাকালে তোমাদের লক্ষ্য ঠিক রাখো এবং মহান আল্লাহ পাক উনার সন্তুষ্টি মুবারক হাছিলের উদ্দেশ্যেই অর্থাৎ একনিষ্ঠ বা ইখলাছের সাথে ইবাদত-বন্দেগী করো।”
উল্লেখ্য, সিজদা করা যিনি খ¦ালিক্ব মালিক রব মহান আল্লাহ পাক উনার আদেশ মুবারক। মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন-
يَا أَيُّهَا الَّذِينَ آمَنُوا ارْكَعُوا وَاسْجُدُوا وَاعْبُدُوا رَبَّكُمْ وَافْعَلُوا الْخَيْرَ لَعَلَّكُمْ تُفْلِحُونَ
অর্থ: “হে ঈমানদারগণ! তোমরা তোমাদের যিনি রব মহান আল্লাহ পাক উনার উদ্দেশ্যে রুকূ করো, সিজদা করো এবং ইবাদত বন্দেগী করো এবং তোমরা নেক কাজ করো। অবশ্যই তোমরা কামিয়াবী হাছিল করবে।”
একইভাবে মহান আল্লাহ পাক তিনি বানী আদম সৃষ্টির আগে হযরত ফেরেশতা আলাইহিমুস সালাম উনাদেরকে হযরত আদম আলাইহিস সালাম উনাকে সিজদা করার জন্য আদেশ মুবারক করেন। কিন্তু দেখা গেল সমস্ত হযরত ফেরেশতা আলাইহিমুস সালাম উনারা উক্ত আদেশ মুবারক মান্য করে সিজাদ করলেন একমাত্র ইবলীস সিজদা করতে অস্বীকার করলো। ফলে সে চির লা’নতগ্রস্ত হয়ে গেলো। নাউযুবিল্লাহ!
কাজেই, সিজদা করার স্থানকেই বলা হয় মসজিদ। যারা মসজিদ ভাঙ্গার চক্রান্ত করছে বাস্তবে তারা সিজদা করতেই প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করছে। এরা চির লা’নতগ্রস্ত ইবলীসেরই দোষর, চেলা এবং অনুসারী।
দেশবাসী, শহরবাসী, এলাকাবাসী ও মহল্লাবাসী ঈমানদারদের জন্য ফরয সিজদাবিরোধী মসজিদ বিরোধী ইবলীসের চেলাদের কঠোর হস্তে দমন করা।

Views All Time
1
Views Today
1
শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে