মহান আল্লাহ পাক তিনি স¦য়ং উনার পবিত্র বিছাল শরীফ উনার সময় উনার মর্যাদা ও মর্তবার প্রমাণ পেশ করলেন। সুবহানাল্লাহ!


পবিত্র কুরআন শরীফ, পবিত্র হাদীছ শরীফ, পবিত্র ইজমা শরীফ ও পবিত্র ক্বিয়াস শরীফ উনাদের মধ্যে যে সমস্ত হক্কানী-রব্বানী ওলীআল্লাহ উনাদের ছানা-ছিফত, শান-মান, বুযুর্গী ফযীলতের নিখুঁত বর্ণনা রয়েছে উনাদের মধ্যে হযরত সুলত্বানুল হিন্দ, খাজা গরীবে নেওয়াজ, হাবীবুল্লাহ রহমতুল্লাহি আলাইহি তিনি হচ্ছেন অন্যতম। সুবহানাল্লাহ!

পবিত্র শাহরুল্লাহিল হারাম রজবুল আছাম্ম উনার ৬ তারিখে সুলত্বানুল হিন্দ, হাবীবুল্লাহ হযরত খাজায়ে  সানজরী আজমিরী রহমতুল্লাহি আলাইহি উনার পবিত্র বিছালী শান মুবারক প্রকাশের সুমহান দিবস।বর্বর অসভ্য হিন্দু বা মুশরিক অধ্যুষিত ভারতবর্ষে যখন বিভিন্ন জাতি ভেদের যাঁতাকলে পিষ্ট হয়ে মানবতা, সভ্যতা ভূলুণ্ঠিত হচ্ছিলো, তখন মহান আল্লাহ পাক তিনি এবং নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনারা দয়া করে, রহম করে হযরত সুলত্বানুল হিন্দ রহমতুল্লাহি আলাইহি উনাকে এই ভারতবর্ষে পাঠান।সুবহানাল্লাহ!

এক কোটিরও বেশি বিধর্মী উনার হাত মুবারক-এ হাত রেখে পবিত্র দ্বীন ইসলাম কবুল করেন, তিনি  পবিত্র সুন্নত উনার পরিপূর্ণ ও সূক্ষ্মাতিসূক্ষ্ম অনুসরণ করতেন। এজন্য উনার পবিত্র বিছালী শান মুবারক প্রকাশের পর উনার কপাল মুবারক-এ কুদরতীভাবে লিখে দেয়া হয়, ‘হাযা হাবীবুল্লাহ মা-তা ফী হুব্বিল্লাহ’ অর্থাৎ তিনি মহান আল্লাহ পাক উনার হাবীব আর উনার মুহব্বতেই তিনি পবিত্র বিছালী শান মুবারক প্রকাশ করেছেন।’ সুবহানাল্লাহ! কাজেই উনার মর্যাদা-মর্তবা কতটা বেমেছাল যা বলার অপেক্ষাই রাখে না। মহান আল্লাহ পাক তিনি স¦য়ং উনার পবিত্র বিছাল শরীফ উনার সময় উনার মর্যাদা ও মর্তবার প্রমাণ পেশ করলেন। সুবহানাল্লাহ!

 

Views All Time
1
Views Today
1
শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে