মহাপবিত্র সাইয়্যিদুল আ’ইয়াদ শরীফ উনার বিরোধীরা আবু লাহাবের চেয়ে কোটি কোটিগুণ নিকৃষ্ট এবং জাহান্নামের কীট


আবু লাহাব একাধারে বারো বছর নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার বিরোধিতা করেছিল। মহান আল্লাহ পাক তিনি আবু লাহাব ও তার স্ত্রীসহ পরিবারের সকলের ধ্বংসের ব্যাপারে পবিত্র সূরা লাহাব শরীফ নাযিল করেছেন এবং তারা আযাবে-গযবে ধ্বংস হয়ে জাহান্নামের কীটে পরিণত হয়ে গেছে। তার কুফরী-শিরকী সারা জীবনের সমস্ত আমলকে বরবাদ করে দিয়েছিলো একটি আমল ব্যতীত। আর সেই আমলটি হচ্ছে- নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লালাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার বিলাদত শরীফ উপলক্ষে খুশি হয়ে তার বাঁদী হযরত ছুয়াইবা আলাইহাস সালাম উনাকে নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার খিদমত করার জন্য আযাদ করে দেয়া। এতোটুকুই ছিল তার আমল। সে কিন্তু সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন হিসেবে দুনিয়াতে তাশরীফ মুবারক নেয়াতে খুশি প্রকাশ করেনি, বরং সে তার ভ্রাতুষ্পুত্র হিসেবে উনার বিলাদত শরীফ উপলক্ষে খুশি প্রকাশ করেছিল। তার এই আমলের জন্য তাকে জাহান্নামের মধ্যে বিশেষ নিয়ামতের ব্যবস্থা করা হয়েছে; যার ফলে সে প্রতি সোমবার শরীফ-এ ঠান্ডা পানি পেয়ে থাকে, যা পান করার কারণে বিগত সপ্তাহের আযাব-গযব অনুভূত হয় না।

এখন ফিকিরের বিষয় হচ্ছে, বর্তমান যামানার যে সমস্ত মাওলানা, মুহাদ্দিছ, মুফাসসির, শাইখুল হাদীছ, ছূফী, দরবেশ, ইসলামী চিন্তাবিদ দাবিদাররা মহাপবিত্র সাইয়্যিদুল আ’ইয়াদ শরীফ উনার বিরোধিতা করে যাচ্ছে তারা মূলত আবু লাহাবের চেয়ে কোটি কোটিগুণ নিকৃষ্ট। কারণ আবু লাহাব ইচ্ছায়-অনিচ্ছায় দুনিয়ার বুকে সর্বশ্রেষ্ঠ আমল নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার পবিত্র বিলাদত শরীফ অর্থাৎ সাইয়্যিদুল আ’ইয়াদ শরীফ উনার উপলক্ষে খুশি প্রকাশ করেছিল। কিন্তু বর্তমান যামানার জাহান্নামের নিকৃষ্ট কীট উলামায়ে ‘সূ’রা পবিত্র সাইয়্যিদুল আ’ইয়াদ শরীফ পালন তো দূরের কথা, বরং পবিত্র সাইয়্যিদুল আ’ইয়াদ শরীফ পালন বিদয়াত, নাজায়িয ফতওয়া দিয়ে যাচ্ছে। নাঊযুবিল্লাহ!

মহান আল্লাহ পাক তিনি এবং উনার রসূল, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনারা আমাদেরকে মামদূহ হযরত মুর্শিদ ক্বিবলা আলাইহিস সালাম এবং মহাসম্মানিত হযরত আহলে বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম উনাদের নেক দৃষ্টি ও দোয়াতে এ সকল নিকৃষ্ট কীটের ওয়াসওয়াসা থেকে হিফাযত করুন এবং অনন্তকাল ধরে পবিত্র সাইয়্যিদুল আ’ইয়াদ শরীফ পালন করার তাওফীক দান করুন। আমিন।

শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে