মহাসম্মানিত পবিত্র আহলি বাইতি রসূলিল্লাহি ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনাদের সুমহান বেমেছাল শান-মান মর্যাদা ফযীলত মুবারক জানা শুনা এবং সে অনুযায়ী আমল করা প্রত্যেক ঈমানদার বান্দা-বান্দী উনাদের জন্য ফরযে আইন।


মহাসম্মানিত পবিত্র আহলি বাইতি রসূলিল্লাহি ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনাদের সুমহান বেমেছাল শান-মান মর্যাদা ফযীলত মুবারক জানা শুনা এবং সে অনুযায়ী আমল করা প্রত্যেক ঈমানদার বান্দা-বান্দী উনাদের জন্য ফরযে আইন।
*********************************************************************
পূর্ব প্রকাশিতের পর —
**********************
খালিক্ব মালিক রব মহান আল্লাহ পাক তিনি পবিত্র কালামুল্লাহ শরীফ উনার মাঝে ইরশাদ মুবারক করেন-
قل لا اسئلكم عليه اجرا الا المودة فى القربى (سورة الشورى ২৩ )
 
উক্ত পবিত্র আয়াত শরীফ উনার ব্যাখ্যায় পবিত্র হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে বর্ণিত হয়েছে-
سأل حضرت ابن عباس رضى الله تعالى عنها فقال يا رسول الله صلى الله عليه وسلم من قرابتك هؤلاء الذين وجبت علينا مؤدته؟ فقال رسول الله صلى الله عليه وسلم حضرت على عليه السلام و حضرت فاطمة عليها السلام وولدهما عليهما السلام. (طبرانى)
অর্থ: হযরত আবদুল্লাহ ইবনে আব্বাস রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহুমা তিনি সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, নূরে মুজাস্্সাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনাকে জিজ্ঞাসা করলেন- ইয়া রসূলাল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম! আপনার হযরত আহলু বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম উনারা কারা? যে সমস্ত ব্যক্তিত্ব মুবারক উনাদের খিদমত মুবারক করা আমাদের জন্য আবশ্যক? (ফরয-ওয়াজিব করা হয়েছে)। নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ইরশাদ মুবারক করলেন- হযরত কাররামাল্লাহু ওয়াজহাহূ আলাইহিস সালাম, হযরত যাহরা আলাইহাস সালাম এবং উনার পূত-পবিত্র সম্মানিত সন্তানদ্বয় আলাইহিমাস সালাম উনারা হলেন আমার সম্মানিত হযরত আহলু বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম। সুবহানাল্লাহ!
 
সম্মানিত হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক হয়েছে,
عَنْ حَضْرَتْ اَبِـىْ هُرَيْرَةَ رَضِىَ اللهُ تَعَالـٰى عَنْهُ قَالَ قَالَ رَسُوْلُ اللهَ صَلَّى اللهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ خَيْرُكُمْ خَيْرُكُمْ لِاَهْلِىْ مِنْۢ بَعْدِىْ.
অর্থ: “হযরত আবূ হুরায়রা রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু উনার থেকে বর্ণিত। তিনি বলেন, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, তোমাদের মধ্যে ওই ব্যক্তি সর্বাধিক উত্তম, শ্রেষ্ঠ, ফযীলতপ্রাপ্ত, তোমাদের মধ্যে ওই ব্যক্তি সর্বাধিক উত্তম, শ্রেষ্ঠ, ফযীলতপ্রাপ্ত, যে ব্যক্তি আমার পরে আমার হযরত আহলু বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম উনাদের নিকট সর্বাধিক উত্তম।” সুবহানাল্লাহ! (আস সুন্নাহ লিইবনে আবী ‘আছিম ২/৬১৬, আবূ ইয়া’লা শরীফ ১০/৩৩০, মুস্তাদরকে হাকিম শরীফ ৩/৩৫২, মু’জাম লিইবনিল আ’রাবী ১/৩৭৩, আল মাক্বছদুল ‘আলী ৩/১৯৭, মাজমাউয যাওয়ায়িদ শরীফ ৯/১৭৪, আল ফাতহুল কাবীর ২/৯৬, আল ঈমা’ ৬/৪৮৯, আছ ছওয়া‘ইকুল মুহরিক্বহ ২/৫৪৪ ইত্যাদি)
(ইনশাআল্লাহ চলবে)
 
শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে