মাদরাসা শিক্ষার উপর এমন এক চরম চক্রান্ত চলছে; যা এদেশের কথিত উলামা-মাশায়েখরা বুঝতে অপারগ


শিক্ষাই জাতির মেরুদণ্ড। একটি জাতিকে ধ্বংস করতে হলে সেই জাতির শিক্ষা ব্যবস্থা ধ্বংস করতে হবে। ধূর্ত ইংরেজ বেনিয়ারা এদেশে বাণিজ্যের উদ্দেশ্যে এসে শঠতার মাধ্যমে পুরা দেশটিকেই দখল করে নেয়। এরপর চলে এদেশ ও জাতিকে পঙ্গু করার সব কৌশল। প্রথমে ইংরেজ নৌদস্যুরা শিক্ষা ব্যবস্থায় হাত দিল। মুসলমানগণের দরদী সেজে এদেশে সর্বপ্রথম শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলে কলকাতার আলিয়া মাদরাসা। বর্তমান মাদরাসা শিক্ষার শুরু এই আলিয়া মাদরাসা। দেশীয় হক্কানী-রব্বানী আলিমদের বাদ দিয়ে পাদ্রীরা হলো শিক্ষক। ঢেলে সাজালো শিক্ষা কার্যক্রম। মাদরাসা একটি ধর্মীয় শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। কুরআন শরীফ, হাদীছ শরীফ, ইজমা ও কিয়াস এবং প্রাসঙ্গিক ভাষা আরবী, উর্দু, ফার্সী ভাষা হবে মূল শিক্ষার বিষয়। অন্য বিষয়গুলো থাকবে সাধারণ জ্ঞানদানের উপযোগী।
মাদরাসা একটি বিশেষায়িত প্রতিষ্ঠান। এখান থেকে বের হবে উলামায়ে কিরাম- যারা সাধারণ মানুষকে ইসলাম দ্বীন শিখাবে। যেহেতু এখন খিলাফত প্রতিষ্ঠিত নয়. তাই সরকারি পদের উপযোগী শিক্ষা দেয়ার প্রয়োজন হবে না। এ ধরনের শিক্ষা ইহুদী-নাছারার দেশেও আছে। যেখানে শুধু ধর্মতত্ত্ব শিক্ষা দেয়া হয়। কিন্তু আমাদের মাদরাসা নিয়ে সেই শুরু থেকেই ষড়যন্ত্র শুরু হয়, যা আজ পর্যন্ত চলতে থাকে।
প্রথমেই বাদ পড়েছে ইলমে তাছাউফ। এখন এক গভীর ষড়যন্ত্র চলছে। ধীরে ধীরে ধর্মীয় বিষয়গুলো কম প্রাধান্য পাচ্ছে। অধর্মীয় সাধারণ শিক্ষায় বেশি ঝোঁক। ফলে মাদরাসা থেকে বেরিয়ে এরা না হয় দ্বীনী আলিম, না হয় কর্মক্ষম কোনো পেশাদার। এখন মাদরাসা শিক্ষাকে সাধারণ শিক্ষার সমমানে উন্নীত করার নামে ষড়যন্ত্র চলছে। এটা ইহুদী-নাছারাদের এক চরম চক্রান্ত। ওদের অপপ্রচারণা যে, মাদরাসাতেই তালেবান (সন্ত্রাসী) তৈরি হয়। সুতরাং মাদরাসা শিক্ষা ব্যবস্থা পরিবর্তন করলে তাদের মতে সমস্যার সমাধান হবে।
পরিতাপের বিষয়, দেশীয় আলিম সমাজ ও নেতা-নেত্রীরা এই সূক্ষ্ম চাল না বুঝে ইসলামের শত্রুদের পাতা ফাঁদে পা দিচ্ছে। মাদরাসা শিক্ষা নিয়ে বাস্তব কথা কারো কোনো চিন্তা নেই। শুধু মুজাদ্দিদ আ’যম রাজারবাগ শরীফ-এর মামদূহ হযরত মুর্শিদ ক্বিবলা আলাইহিস সালাম তিনি মাদরাসা শিক্ষার চক্রান্তের বিরুদ্ধে বলিষ্ঠ প্রতিবাদী কণ্ঠ। মুসলমানদের ঈমানী দায়িত্ব-এ চক্রান্ত থেকে মাদরাসা শিক্ষা রক্ষা করার জন্য কঠিন প্রতিবাদ করা ও এ চক্রান্ত দেশবাসীকে বুঝিয়ে দেয়া।

-লে. কর্নেল মুহম্মদ আনোয়ার হুসাইন খান, পিএসসি (অব.), ঢাকা

Views All Time
1
Views Today
1
শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে