মুক্তমনা কিংবা উদারপন্থী- সবার মাথাব্যথা শুধুই দ্বীন ইসলাম নিয়ে


সমাজে এমন কতিপয় শ্রেণীর লোক বের হয়েছে যারা নিজেদেরকে উপদারপন্থী, প্রগতীশীল, মুক্তমনা, অসাম্প্রদায়িক হিসাবে দাবী করে থাকে। কিন্তু প্রকৃতপক্ষে এরা নিজেদেরকে মুক্তমনা হিসাবে দাবী করে থাকলেও মূলত এদের কাজই হলো- পবিত্র দ্বীন ইসলাম উনার সম্পর্কে কটুক্তি করে এবং পবিত্র দ্বীন ইসলাম উনার বিভিন্ন পবিত্র বিষয় বিকৃতভাবে উপস্থাপন করে তৃপ্তির ঢেকুর তোলে। এরা মুক্তমনা নয়, এরা কাফিরদের ক্ষুদ-কুড়া খেয়ে ইসলামবিদ্বেষীতা করে থাকে। কারন পশ্চিমা মার্কিন শক্তি এসব মুক্তমনাদের পবিত্র দ্বীন ইসলাম উনার বিরুদ্ধে বলার জন্য, লেখালেখির এবং বিভিন্ন কর্মকা- পরিচালনার জন্য অর্থ দিয়ে থাকে। আর এই অর্থের সাহায্যেই এরা এসব ইসলাম বিদ্বেষী লেখালেখি এবং সভা-সেমিনার পরিচালনা করে থাকে। সন্ত্রাসবাদী আমেরিকা, জার্মান এসব ইসলাম বিদ্বেষী কাফির দেশ থেকে সারাবিশ্বে বিশেষ করে মুসলিম বিশ্বে ইসলামবিদ্বেষী কর্মকান্ড পরিচালনা করার জন্য, নাস্তিক তৈরী করা ও পোষার জন্য বিভিন্ন এনজিও এবং সংগঠন পরিচলানা করে থাকে। এসব সংগঠনের মধ্যে রয়েছে বিভিন্ন এনজিও। এসব দালাল এনজিও সারা বিশ্বে ইসলামবিদ্বেষী ব্লগার, লেখকদের জন্য প্রায় মিলিয়ন মিলিয়ন ডলার ব্যয় করেছে। এই টাকা গুলো ব্যয় করা হয় ইসলাম বিদ্বেষী বই, আর্টিকল, ম্যাগজিন, ওয়েব সাইট ও ব্লগে লিখালেখির জন্যে।
এখানে চিন্তার বিষয় হলো এরা যদি নিজেদেরকে মুক্তমনা এবং প্রগতীশীল হিসাবে দাবী করেই থাকে তাহলে শুধু পবিত্র দ্বীন ইসলাম নিয়েই তাদের এত মাথা ব্যাথা কেন? আরও তো অনেক ধর্ম রয়েছে, সেগুলোর বিরুদ্ধে তো তারা কোন সময় কোন বুলি ছাড়ছে না বা অনলাইনে লেখালেখি করছে না! উত্তরটা সহজ, কারন অন্য ধর্মের লোক বলতে ইহুদী, খ্রিষ্টান এবং মুশরিকদেরই বোঝায়। আর এই খ্রিষ্টান এবং মুশরিকরাই টাকা দিয়ে এসব মুক্তমনা নামধারী ইসলাম বিদ্বেষী লেখক তৈরী করে ইসলাম উনার বিরুদ্ধে লেখার জন্য। অন্য কোন ধর্মের বিরুদ্ধে লেখার জন্য নয়।

Views All Time
1
Views Today
2
শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে