মুজাদ্দিদে আ’যম হযরত মুর্শিদ ক্বিবলা আলাইহিস সালাম-উনার ক্বওল শরীফ।


মুজাদ্দিদে আ’যম হযরত মুর্শিদ ক্বিবলা আলাইহিস সালাম-উনার ক্বওল শরীফ।
**********************************************************
মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, ‘মহান আল্লাহ পাক তিনি চান হযরত আহলে বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম উনাদের থেকে অপবিত্রতা দূর করতে এবং উনাদেরকে পবিত্র করার মতো পবিত্র করতে। অর্থাৎ উনাদেরকে পবিত্র করার মতো পবিত্র করেই সৃষ্টি করেছেন।’ সুবহানাল্লাহ!
 
আজ সুমহান মহাপবিত্র ২রা যিলহজ্জ শরীফ-
 
ইবনু রসূলিনা ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম সাইয়্যিদুনা হযরত রাবি’ আলাইহিস সালাম উনার সুমহান মহাপবিত্র বিলাদতী শান মুবারক প্রকাশ দিবস।
 
এ সুমহান মহাপবিত্র দিনটি কুল-কায়িনাত সকলের জন্যই অন্যতম শ্রেষ্ঠ ঈদ বা খুশির দিন।
 
তাই সারাবিশ্বের মুসলিম উম্মতের জন্য দায়িত্ব ও কর্তব্য হচ্ছে- উনার সম্মানার্থে উনার পবিত্র সাওয়ানেহ উমরী মুবারক আলোচনা করে অর্থাৎ উনার সম্মানার্থে পবিত্র ওয়াজ শরীফ, পবিত্র মীলাদ শরীফ ও পবিত্র ক্বিয়াম শরীফ এবং দোয়ার মাহফিলের আয়োজন করে সর্বাত্মক ঈদ বা খুশি প্রকাশ করা।
 
আর সরকারের জন্য দায়িত্ব এবং কর্তব্য হচ্ছে- পবিত্র মাহফিল উনার সার্বিক আনজাম দেয়ার সাথে সাথে উনার পবিত্র জীবনী মুবারক সমস্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের সিলেবাসে অন্তর্ভুক্ত করা এবং উনার পবিত্র বিলাদতী শান মুবারক প্রকাশ দিবস উপলক্ষে ছুটি ঘোষণা করা।
যামানার লক্ষ্যস্থল ওলীআল্লাহ, যামানার ইমাম ও মুজতাহিদ, ইমামুল আইম্মাহ, মুহইউস সুন্নাহ, কুতুবুল আলম, মুজাদ্দিদে আ’যম, ক্বইয়ূমুয যামান, জাব্বারিউল আউওয়াল, ক্বউইয়্যূল আউওয়াল, সুলত্বানুন নাছীর, হাবীবুল্লাহ, জামিউল আলক্বাব, আওলাদে রসূল, মাওলানা সাইয়্যিদুনা হযরত ইমামুল উমাম আলাইহিস সালাম তিনি বলেন, নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম সম্মানিত হযরত আওলাদ আলাইহিস সালাম অর্থাৎ ইবনু রসূলিনা, আশবাহুল খলক্বি বিরসূলিল্লাহ, সাইয়্যিদুল বাশার, আল মুবাশ্শির সাইয়্যিদুনা হযরত রাবি’ আলাইহিস সালাম তিনি পবিত্র যিলহজ্জ শরীফ মাস উনার ২ তারিখ মহাপবিত্র বিলাদতী শান মুবারক প্রকাশ করেন। আর আজই হচ্ছেন সেই সুমহান বরকতময় মহাপবিত্র ২রা যিলহজ্জ শরীফ। সুবহানাল্লাহ!
 
মুজাদ্দিদে আ’যম, সাইয়্যিদুনা হযরত ইমামুল উমাম আলাইহিস সালাম তিনি বলেন, সাইয়্যিদুনা হযরত রাবি’ আলাইহিস সালাম তিনি ৮ম হিজরী সনের ২রা যিলহজ্জ শরীফ লাইলাতুল জুমুয়াহ বা জুমুয়াবার রাতে দুনিয়ার যমীনে মহাসম্মানিত বরকতময় বিলাদতী শান মুবারক প্রকাশ করেন। সুবহানাল্লাহ! দুনিয়াবী জিন্দেগী মুবারক অনুযায়ী তখন নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার সম্মানিত বয়স মুবারক ছিলো ৬১ বছর। সুবহানাল্লাহ! নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি উনার সম্মানিত আওলাদ আলাইহিস সালাম উনার নাম মুবারক রাখেন- সাইয়্যিদুনা হযরত ‘ইবরাহীম’ আলাইহিস সালাম। সুবহানাল্লাহ! তিনি উনার সম্মানিত বিলাদতী শান মুবারক প্রকাশের সপ্তম দিনে উনার পক্ষ থেকে দুইটি সম্মানিত দুম্বা সম্মানিত আক্বীক্বাহ মুবারক দেন এবং উনার সম্মানিত মাথা মু-ন মুবারক করান। সুবহানাল্লাহ!
 
মুজাদ্দিদে আ’যম, সাইয়্যিদুনা হযরত ইমামুল উমাম আলাইহিস সালাম তিনি বলেন, নূরে মুজাস্সাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার আওলাদ আলাইহিমুস সালাম এবং আওলাদ আলাইহিন্নাস সালাম উনারা ছিলেন মোট ৮ (আট) জন। সম্মানিত বিলাদতী শান মুবারক প্রকাশ উনার ধারাবাহিকক্রমে উনাদের সম্মানিত নাম মুবারক হচ্ছেন:- (১). সাইয়্যিদুনা হযরত ক্বাসিম আলাইহিস সালাম, (২). সাইয়্যিদুনা হযরত যায়নাব আলাইহাস সালাম, (৩). সাইয়্যিদুনা হযরত ত্বইয়িব আলাইহিস সালাম, (৪). সাইয়্যিদুনা হযরত ত্বাহির আলাইহিস সালাম, (৫). সাইয়্যিদাতুনা হযরত রুক্বইয়্যাহ আলাইহাস সালাম, (৬). সাইয়্যিদাতুনা হযরত উম্মু কুলছুম আলাইহাস সালাম, (৭). সাইয়্যিদাতুনা হযরত যাহরা আলাইহাস সালাম এবং (৮). সাইয়্যিদুনা হযরত ইব্রাহীম আলাইহিস সালাম। সুবহানাল্লাহ!
 
মুজাদ্দিদে আ’যম, সাইয়্যিদুনা হযরত ইমামুল উমাম আলাইহিস সালাম তিনি বলেন, সাইয়্যিদুনা হযরত ইব্রাহীম আলাইহিস সালাম তিনিই শুধু উম্মুল মু’মিনীন হযরত মারিয়াহ ক্বিবতিয়াহ আলাইহাস সালাম উনার মাধ্যমে দুনিয়ার যমীনে সম্মানিত বিলাদতী শান মুবারক প্রকাশ করেন। আর অন্য সকল আওলাদ আলাইহিমুস সালাম উনারা এবং আওলাদ আলাইহিন্নাস সালাম উনারা উম্মুল মু’মিনীন সাইয়্যিদাতুনা হযরত কুবরা আলাইহাস সালাম উনার মাধ্যেমে দুনিয়ার যমীনে সম্মানিত বিলাদতী শান মুবারক প্রকাশ করেন। সুবহানাল্লাহ! সাইয়্যিদুনা হযরত রাবি’ আলাইহিস সালাম তিনি হচ্ছেন নূরে মুজাস্সাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার সম্মানিত আবনা আলাইহিমুস সালাম উনাদের মধ্যে “আর রাবি’ তথা চতুর্থ”। আর সম্মানিত আওলাদ আলাইহিমুস সালাম এবং আওলাদ আলাইহিন্নাস সালাম উনাদের মধ্যে ‘আছ ছামিন তথা অষ্টম’। সুবহানাল্লাহ!
 
মুজাদ্দিদে আ’যম, সাইয়্যিদুনা হযরত ইমামুল উমাম আলাইহিস সালাম তিনি বলেন, ইবনু রসূলিল্লাহ সাইয়্যিদুনা হযরত রাবি’ আলাইহিস সালাম তিনি দশম হিজরী সনের সাইয়্যিদুশ শুহূর মহাসম্মানিত রবীউল আউওয়াল শরীফ মাস উনার ১০ তারিখে সম্মানিত বিছালী শান মুবারক প্রকাশ করেন। সুবহানাল্লাহ! তিনি দুনিয়ার যমীনে কতদিন অবস্থান মুবারক করেছিলেন- এই সম্পর্কে সম্মানিত হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে বিভিন্ন মত পরিলক্ষিত হয়। কোনো বর্ণনায় ১৬ মাস, কোনো বর্ণনায় ১৭ মাস আর কোনো বর্ণনায় ১৮ মাস বলে উল্লেখ আছে। তবে ‘১৬ মাস’ এ মতটিই মশহুর ও ছহীহ। সাইয়্যিদুনা হযরত রাবি’ আলইহিস সালাম উনার পবিত্র রওযা শরীফ সম্মানিত ‘জান্নাতুল বাক্বী’ শরীফ উনার মধ্যে অবস্থিত। নূরে মুজাস্সাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহ আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি উনার সম্মানিত কাফন মুবারক, সম্মানিত জানাযা উনার নামায মুবারক এবং উনাকে সম্মানিত রওযা শরীফ উনার মধ্যে রাখা ইত্যাদি নিজ তত্ত্বাবধানে সম্পন্ন করেন। সুবহানাল্লাহ!
 
মুজাদ্দিদে আ’যম, সাইয়্যিদুনা হযরত ইমামুল উমাম আলাইহিস সালাম তিনি বলেন, মূলকথা হলো- সুমহান মহাপবিত্র ২রা যিলহজ্জ শরীফ- ইবনু রসূলিনা ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম সাইয়্যিদুনা হযরত রাবি’ আলাইহিস সালাম উনার সুমহান মহাপবিত্র বিলাদতী শান মুবারক প্রকাশ দিবস। এ সুমহান মহাপবিত্র দিনটি কুল-কায়িনাত সকলের জন্যই অন্যতম শ্রেষ্ঠ ঈদ বা খুশির দিন। তাই সারাবিশ্বের মুসলিম উম্মতের জন্য দায়িত্ব ও কর্তব্য হচ্ছে- উনার সম্মানার্থে উনার পবিত্র সাওয়ানেহ উমরী মুবারক আলোচনা করে অর্থাৎ উনার সম্মানার্থে পবিত্র ওয়াজ শরীফ, পবিত্র মীলাদ শরীফ ও পবিত্র ক্বিয়াম শরীফ এবং দোয়ার মাহফিলের আয়োজন করে সর্বাত্মক ঈদ বা খুশি প্রকাশ করা। আর সরকারের জন্য দায়িত্ব এবং কর্তব্য হচ্ছে- পবিত্র মাহফিলসমূহের সার্বিক আনজাম দেয়ার সাথে সাথে উনার পবিত্র জীবনী মুবারক সমস্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের সিলেবাসে অন্তর্ভুক্ত করা এবং উনার পবিত্র বিলাদতী শান মুবারক প্রকাশ দিবস উপলক্ষে ছুটি ঘোষণা করা।
Views All Time
1
Views Today
4
শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

  1. মামদূহ মুর্শিদ কিবলা আলাইহিস সালাম ও উনার সম্মানিত আহলু বাইয়িত শরীফ উনাদের কদম মুবারকে ভিক্ষা চাই উনাদের মুবারক নিসবত …আমীন

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে