মুসলমানদের ক্ষতিসাধন করাই বিধর্মীদের মূল ধর্ম


ফিলিস্তিনে মুসলমানদের নৃশংস্য ভাবে হত্যা করছে কারা? উত্তরঃ ইহুদীরা

ভারতের আসাম-গুজরাটের দাঙ্গায় মুসলমানদের নির্মমভাবে শহীদ করছে কারা? উত্তরঃ হিন্দুরা

চীনের উইঘুরে মুসলমানদের নির্যাতন করছে কারা? উত্তরঃ কমিউনিষ্টরা

মায়েনমারে হাজার হাজার মুসলমানদেরকে হত্যা করছে কারা? উত্তরঃ বৌদ্ধরা

আফগানিস্তান, ইরাক, সিরিয়া ইত্যাদি দেশে অগণিত মুসলমানদেরকে শহীদ করছে কারা? উত্তরঃ খৃষ্টানরা

সুতরাং সকল অমুসলিমদের প্রধান ধর্মই হচ্ছে মুসলমানদের নির্যাতন করা, শহীদ করা।

এ প্রসঙ্গে মহান আল্লাহ পাক তিনি কালামুল্লাহ শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক করেন, “তোমরা তোমাদের সবচেয়ে বড় শত্রু হিসেবে পাবে ইহুদী অতঃপর মুশরিকদেরকে।” (পবিত্র সূরা মায়িদা শরীফ: পবিত্র আয়াত শরীফ ৮২)

মহান আল্লাহ পাক তিনি অন্যত্র ইরশাদ মুবারক করেন, “আহলে কিতাব তথা ইহুদী-নাছারাদের অধিকাংশই তাদের হিংসাবশত এই কামনা (ষড়যন্ত্র) করে যে, ঈমান আনার পর তোমাদেরকে কাফির বানানোর জন্য।” (পবিত্র সূরা বাক্বারা শরীফ: পবিত্র আয়াত শরীফ ১০৯)

মহান আল্লাহ পাক তিনি আরো ইরশাদ মুবারক করেন, “ইহুদী-নাছারারা তথা কাফির-মুশরিকরা কখনো তোমাদের (মুসলমানদের) প্রতি সন্তুষ্ট হবে না যতোক্ষণ পর্যন্ত তোমরা তাদের ধর্ম গ্রহণ না করবে বা অনুগত না হবে।” (পবিত্র সূরা বাক্বারা শরীফ: পবিত্র আয়াত শরীফ ১২০)

মহান আল্লাহ পাক তিনি আরো ইরশাদ মুবারক করেন,“হে ঈমানদারগণ, তোমরা ইহুদী ও খ্রিস্টানদেরকে বন্ধু হিসেবে গ্রহণ করোনা। তারা একে অপরের বন্ধু। তোমাদের মধ্যে যে তাদের সাথে বন্ধুত্ব করবে সে তাদেরই অন্তর্ভুক্ত।” (পবিত্র সূরা মায়িদা শরীফ: পবিত্র আয়াত শরীফ ৫১)

উপরোক্ত আয়াত শরীফগুলো দ্বারা স্পষ্টতই বুঝা যায় যে, ইহুদী, নাছারা, হিন্দু, বৌদ্ধ, খৃষ্টান, মজুসী, মুশরিক, নাস্তিক সহ সকল বিধর্মীই মুসলমানদের প্রধান শত্রু । তাদের ধর্মের মুল ভিত্তিই হচ্ছে ইসলাম ধর্মের বিরোধীতা করা, মুসলমানদের নির্যাতন করা, ক্ষতিসাধন করা ইত্যাদি। তাই সকলের মুসলমানদেরকে তাদের শত্রু চিনতে হবে এবং তাদের কাছ থেকে বেঁচে থাকতে হবে।

Views All Time
1
Views Today
3
শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে