মুসলমানদের বিয়ে-শাদীতে দেনমোহর ‘মোহরে যাহরায়ী’ হওয়া উচিত


মুসলমানদের বিয়েতে দেনমোহর ধার্য করা ফরয। বিয়ের পর সেই দেনমোহর পরিশোধ করে দেয়াও ফরয। সম্মানিত দ্বীন ইসলাম উনার নিয়ম অনুযায়ী এটা একজন স্ত্রীর হক্ব। কিন্তু এখন দেখা যায়- মুসলমানের বিয়েতে দেনমোহর কার থেকে কে বেশি ধার্য করবে- এটার প্রতিযোগিতা শুরু হয়ে যায়। আমার পরিচিতদের মধ্যে কয়েকজন তাদের বিয়েতে দেনমোহর ধরেছে ২০ লক্ষ, ৫০ লক্ষ, আবার কেউ ১ কোটি পর্যন্ত ধরেছে। এদেরই মধ্যে একজন তার বিয়ের পর থেকে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে অনেক কারণেই বনিবনা হচ্ছে না। বর্তমানে তার স্ত্রী বাপের বাড়িতে অবস্থান করছে। মেয়ের মা-বাবা চাচ্ছে তাদের মেয়েকে একেবারেই নিয়ে যেতে। কিন্তু ছেলে পক্ষকে ২০ লক্ষ টাকা দেনমোহর দিতে হবে। কঠিন একটা অবস্থা। কিন্তু যাদের মধ্যে সম্মানিত দ্বীন ইসলাম উনার কোনো জ্ঞান নেই তারা অনেকেই সেই দেনমোহর দেয়ার বিষয়টি খেয়াল করে না। বিয়ের পর স্ত্রীকে দেনমোহরের টাকাটা না দিলে স্বামীর সাথে স্ত্রীর থাকাটা হালাল হবে না। দেখা যায়, অনেকেই স্ত্রীকে মাফ করে দেয়ার জন্য বলে। এটাও জায়িয নেই। মোহরের টাকাটা যদি কেউ একেবারেই দিতে না পারে তাহলে পর্যায়ক্রমে দিলেও হবে। আর যদি কোনো স্ত্রী নিজের থেকে মাফ করে দেয় সেটা আলাদা কথা। সম্মানিত দ্বীন ইসলাম উনার মধ্যে সব বিষয় মহান আল্লাহ পাক তিনি সমস্ত বান্দা-বান্দীর জন্য সহজ করে দিয়েছেন। এখন মানুষ না জানার কারণে সব কঠিন হয়ে যায়।
সম্মানিত ইসলামী শরীয়ত উনার নিয়ম অনুযায়ী দেনমোহর কত হওয়া উচিত? মূলত, প্রত্যেক মুসলমানদের দেনমোহর মোহরে যাহরায়ী হওয়া উচিত। মোহরে যাহরায়ী হচ্ছে পাঁচশত দিরহাম অর্থাৎ একশত সোয়া একত্রিশ (১৩১.২৫) ভরি রূপার মূল্য। সাইয়্যিদাতু নিসায়ি আহলিল জান্নাহ, উম্মু আবীহা হযরত যাহরা আলাইহাস সালাম উনার জন্য এই দেনমোহর ধার্য করা হয়েছিলো। সুবহানাল্লাহ!

Views All Time
1
Views Today
1
শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে