মুসলমানদের ১৩০ ফরজের বিবরণ


ফরজের সংখা নিয়ে আলিম-উলামা, ইমাম-মুজতাহিদ, ফক্বিহ-মুহাদ্দিছগণের মধ্যে কিছু মতভেদ রযেছে। তবে অধিকাংশ উলামায়ে কিরামের মতামতের ভিত্তিতে ১৩০ ফরজের  বর্ণনা দেয়া হলো :

 

(ক). মুসলমানের পাচ রোকনে ৫ ফরজ:

১। কালিমা

২। নামাজ

৩। রোজা

৪। হজ্জ

৫। যাকাত।

 

(খ). চার কুরসীতে ৪ ফরজ:  

১। সাইয়্যিদুনা হযরত আব্দুল মান্নাফ আলাইহিস সালাম-এর পুত্র হযরত হাশেম আলাইহিস সালাম ।

২। সাইয়্যিদুনা হযরত হাশেম আলাইহিস সালাম-এর পুত্র হযরত আব্দুল মুতালিব আলাইহিস সালাম।

৩। সাইয়্যিদুনা হযরত আব্দুল মুতালিব আলাইহিস সালাম-এর পুত্র হযরত আব্দুল্লাহ যাবীহুল্লাহ আলাইহিস সালাম।

৪। সাইয়্যিদুনা হযরত আব্দুল্লাহ যাবীহুল্লাহ আলাইহিস সালাম-এর পুত্র হযরত মুহাম্মদ রসূলুল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম।

 

(গ). হক্কানী তথা সুন্নী আলিমগণের মতে চার মাযহাবে ৪ ফরজ:

১। হানাফী মাযহাব

২। শাফেয়ী মাযহাব

৩। হাম্বলী মাযহাব

৪। মালেকী মাযহাব

 

(ঘ). পাঁচ ওয়াক্ত নামজের নিয়তে ৫ ফরজ:

১। ফজর

২। জোহর

৩। আসর

৪। মাগরিব

৫। ইশা

নামাযের নিয়ত।

 

(ঙ). পাঁচ ওয়াক্ত নামাজের সতেরো রাক্আতে ১৭ ফরজ:

১। ফজরের ২ রাক্আত

২। জোহরের ৪ রাক্আত

৩। আসরের ৪ রাক্আত

৪। মাগরিবের ৩ রাক্আত

৫। ইশার ৪ রাক্আত।

 

(চ). ঈমানের ৭ ফরজ:

১। মহান আল্লাহ পাকের উপর ঈমান আনা।

২। তাঁর প্রেরিত নবী-রাসূলের উপর ঈমান আনা।

৩। মহান আল্লাহ পাকের ফেরেশতাদের উপর ঈমান আনা।

৪। মহান আল্লাহ পাকের কিতাবসমূহের উপর ঈমান আনা।

৫। তাকদীরের উপর ঈমান আনা।

৬। মৃত্যুর পর পুনর্জীবিত হওয়ার উপর ঈমান আনা ও

৭। ক্বিয়ামতের উপর ঈমান আনা।

 

(ছ). অজুতে ৪ ফরজ:

১। সমস্ত মুখমন্ডল ধৌত করা

২। উভয় হাত কনুই পর্যন্ত ধৌত করা

৩। মাথার এক-চতুর্থাংশ মাসাহ করা

৪। উভয় পায়ের গিরাসহ ধৌত করা।

 

(জ). গোসলে ৩ ফরজ:

১। কুলি করা।

২। নাকের ছিদ্রের ভিতরে পানি পৌঁছানো।

৩। সর্বাঙ্গ উওমরূপে ধৌত করা।

 

(ঝ). পাঁচ কালিমায় ৫ ফরজ:

১। কালিমায়ে তাইয়েবা

২। কালিমায়ে শাহাদাত

৩। কালিমায়ে তামজীদ

৪। কালিমায়ে তাওহীদ

৫। কালিমায়ে রদ্দে কূফর।

 

(ঞ). তায়াম্মুমে ৩ ফরজ:

১। নিয়ত করা

২। সমস্ত মুখমন্ডল মাসাহ করা

৩। উভয় হাতের কনুই পর্যন্ত মাসাহ করা।

 

(ট). নামজের পূর্বে আরকানে ৬ ফরজ:

১। জায়গা পাক

২। শরীর পাক

৩। পোশাক পাক

৪। সতর ঢাকা

৫। কেবলামুখি হয়ে দাঁড়ানো

৬। নিয়ত করা।

 

(ঠ). নামাজের ভিতর সাত আহকামে ৭ ফরজ:

১। তাকবীরে তাহরীমা বাঁধা

২। ক্বিয়াম করা অর্থাৎ দাঁড়িয়ে নামাজ পড়া

৩। নামজের ভিতর কেরআত পাঠ করা

৪। রুকুতে যাওয়া

৫। সিজদা করা

৬। আত্তাহিয়াতু পাঠ করার সময় বসা

৭। সালামের সাথে নামাজ শেষ করা।

 

(ড). ত্রিশ রোজায় ৬০ ফরজ:

১। ত্রিশ রোজায় ৩০ ফরজ

২। ত্রিশ রোজার নিয়তে ৩০ ফরজ।

 

 

Views All Time
4
Views Today
6
শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

২টি মন্তব্য