মুসলিমদের উপর হামলার সময় ১৩ হাজার ফোন পেয়েও নিষ্ক্রিয় ছিলো পুলিশ


ভারতের রাজধানী দিল্লিতে মুসলিমবিরোধী হামলার পর স্থানীয় পুলিশ কাছে ১৩ হাজার ২০০টি ফোন কল পেয়েও দিল্লী পুলিশের পক্ষ থেকে কোনো ব্যবস্থা নেয়া হয়নি বলে নতুন করে অভিযোগ উঠেছে। ফোন কলের মাধ্যমে মূলত পুলিশের কাছে সংঘর্ষের বিষয়ে জানানো হয়েছিল।
কোথাও গুলি, কোথাও গাড়ি পোড়ানো আবার কোথাও নির্বিচারে মানুষ হত্যা, হামলা ও নির্যাতনের বিষয়ে ফোন কলের মাধ্যমে পুলিশে অভিযোগ দেয়া হয়েছিল। অভিযোগ পাওয়া সত্ত্বেও কোনো ব্যবস্থা নেয়নি দিল্লি পুলিশ। পাশাপাশি যারা ফোন করেছিলো উল্টো তাদের গালমন্দের প্রমাণও পাওয়া গিয়েছে।
অভিযোগের বিষয়ে নিশ্চিত হতেই একটি সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যম পুলিশ কন্ট্রোল রুমের কল লগ খতিয়ে দেখতেই এমন তথ্য পায়।
পুলিশের কল লগে দেখা যায়, গত রোববার বিক্ষোভের প্রথম দিন সন্ধ্যায় ৭০০ ফোন কল যায় পুলিশের কাছে। পরদিন ২৪ ফেব্রুয়ারি যায় সাড়ে ৩ হাজার ৫০০। ২৫ ফেব্রুয়ারি সাড়ে ৭ হাজার ৫০০ ফোন পায় পুলিশ। ২৬ ফেব্রুয়ারি দেড় হাজার ফোন কল যায় পুলিশের কাছে।
ভজনপুরা থানার আট পাতার কল রেজিস্টার থেকে দেখা যায়, যমুনা বিহার থেকেই ওই থানায় ২৪-২৬ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত ৩ থেকে সাড়ে ৩ হাজার ফোন আসে। কী অভিযোগ এবং তার প্রেক্ষিতে কী ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে, তার জন্য রেজিস্টারে আলাদা আলাদা কলাম রয়েছে। শুধু কোথা থেকে ফোন এসেছিল, কী অভিযোগ তা-ই লেখা রয়েছে ওই খাতায়। অর্থাৎ অভিযোগের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়নি বলেই সেখানে তা উল্লেখ নেই।
হামলার শিকার হওয়ার মুসলিম পাড়াগুলোর কয়েকজন জানান, আমরা পুলিশকে ফোন করেছিলাম। কিন্তু তারা আমাদের নিয়ে হাস্যরসে মেতে উঠেছিলো।

শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে