মুসলিম এই দেশে মহান আল্লাহ পাক উনার ঘর মসজিদকে ভাঙ্গার দুঃসাহস দিলো কে?


বাংলাদেশ মুসলিমপ্রধান দেশ। আর ঢাকা শহরকে বলা হয় মসজিদের শহর। অথচ এই মুসলিম দেশে মসজিদের শহর ঢাকায় একের পর এক মসজিদ ভাঙ্গা শুরু হয়েছে। নাউযুবিল্লাহ!
(১). ঢাকার মুহম্মদপুরে মসজিদ ভেঙ্গে রবীন্দ্রপূজারী গায়িকা রেজওয়ানা চৌধুরী বন্যাকে জমি দেবে সরকার। সে সেখানে রবীন্দ্র সঙ্গীতের স্কুল করবে। নাউযুবিল্লাহ!
(২). ঢাকার মালিবাগে একটি মসজিদ ভাঙ্গতে গিয়েছিল সরকারি প্রশাসন। খবরে প্রকাশ, প্রায় দেড় হাজার মুসল্লীর ধারণক্ষমতা সম্পন্ন এই মসজিদের স্থানটিকে সম্প্রতি স্বর্ণেন্দু শেখর ম-ল নামক এক সাম্প্রদায়িক প্রকৌশলী রাস্তার জন্য নকশায় স্থান দিলে এমন ঘটনা ঘটে। আর প্রশাসন ওই সাম্প্রদায়িক হিন্দু প্রকৌশলীর নকশা মেনেই মসজিদটি ভাঙ্গতে লোক পাঠায়।
তারা সরকারি জায়গার দোহাই দেয়। প্রশ্ন হলো সরকারের আবার জায়গা আছে নাকি? জায়গা তো জনগণের, আর বাংলাদেশের জনগণ হলো মুসলমান। তাহলে মুসলমানের মসজিদ ভাঙ্গে কোন্ দুঃসাহসে? মসজিদ কি সরকারের ঘর, নাকি জনগণের? মসজিদ হলো মহান আল্লাহ পাক উনার ঘর। তাহলে সে ঘরে আঘাত হানে কোন্ দুঃসাহসে?
যদি রাস্তার প্রয়োজন হয়, তাহলে রাস্তা ঘুরায়ে দিক। কিন্তু মসজিদ ভাঙ্গা যাবে না; সরানো যাবে না। সরকার হাতিরঝিলে একটা মন্দির রক্ষা করতে রাস্তা বাঁকা করে প্রকল্পের সৌন্দর্য নষ্ট করতে পারলে মসজিদ রক্ষা করতে কেন পারবে না? এমনকি রাস্তা বানাতে গিয়ে যেন হিন্দুদের মন্দির, বাড়িঘর বা শশ্বানঘাট ক্ষতিগ্রস্ত না হয়, সেজন্য হিন্দুদেরকে আশ্বস্ত ও তোয়াজ করেছে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। এ সম্পর্কে গত ১৯শে জানুয়ারী-২০১৭ তারিখে ‘পরিবর্তন ডট কম’-এ একটি খবর ছাপা হয়।
হিন্দুদের মন্দির, বাড়িঘর রক্ষার জন্য রাস্তা ঘুরে যায়; কিন্তু মসজিদের ক্ষেত্রে তারা বলে- ‘জনকল্যাণে মসজিদ ভাঙ্গা যেতে পারে’! নাউযুবিল্লাহ! কথা হলো- মসজিদ হচ্ছে মহান আল্লাহ পাক উনার ঘর; তা আবার জনকল্যাণে কি করে ভাঙ্গা যায়?
মুসলিম দেশে মসজিদ ভাঙ্গা কিছুতেই বরদাস্তযোগ্য নয়। যেসব লোক মসজিদ ভাঙ্গায় অংশগ্রহণ করছে, অনুমতি দিচ্ছে, এলাকাবাসী যারা প্রতিবাদ জানায়নি, তাদের মনে রাখা উচিত- তারা অতিসত্বর খোদায়ী লা’নতে পড়বেই পড়বে (ইনশাআল্লাহ!), যেমন লা’নতে পড়ে ধ্বংস হয়েছে যালিম খ্রিস্টান আবরাহা।

শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে