মুহব্বতই মূল,মুহব্বতেই সব


হযরত ছাহাবায়ে কিরাম রদ্বিয়াল্লাহু
তায়ালা আনহুম উনারা হুযুর পাক ছল্লাল্লাহু
আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনাকে
হাক্বীক্বীভাবে মুহব্বত মুবারক করতে
পেরেছিলেন বলেই উনারাই প্রকৃত সত্য পথ প্রাপ্ত
হয়েছিলেন এবং মহান আল্লাহ পাকের
হাক্বীক্বী সন্তুষ্টি মুবারক হাছিল করতে
পেরেছিলেন।সুবহানাল্লাহ!
যার কারণে হযরত ছাহাবায়ে কিরাম
রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহুম উনাদের দোষত্রুটি
অন্বেষণ করা কারো জন্য কখনো তো জায়িজ হবেই
না বরং কুফরী হবে।
উনারা ছিলেন বেমেছাল মর্যাদা মর্তবার
অধিকারী। তাই ইরশাদ মুবারক হয়েছে,হযরত
ছাহাবায়ে কিরাম রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা
আনহুম উনারা এক মুদ বা অর্ধ ছটাক গম দান
করে যে ফযীলত হাছিল করতে পেরেছেন এই উম্মত
উহূদ পাহাড় পরিমাণ স্বর্ণ দান করেও সে
ফযীলত লাভ করতে পারবে না।
যারা প্রকৃতই হক্ব পথের অনুসারী তাদের জন্য
তাই ফরয হযরত ছাহাবায়ে কিরাম রদ্বিয়াল্লাহু
তায়ালা আনহুম উনাদের অনুসরণ করে, উনারা
যেভাবে হুযুর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া
সাল্লাম উনাকে মুহব্বত মুবারক করেছিলেন
সেভাবেই মুহব্বত মুবারক করার সর্বাত্মক চেষ্টা
করা।
কেউ যদি হুযুর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া
সাল্লাম উনাকে সত্যিই মুহব্বত করে তবে তার
বহি:প্রকাশও ঘটবে।
তার মধ্যে একটি হচ্ছে হুযুর পাক ছল্লাল্লাহু
আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার অনুসরণ তথা
সুন্নত মুবারকের ইত্তিবা (অনুসরণ) করবে।
যার আমলে সুন্নত নাই অথচ মুহব্বতের দাবীদার
সে মূলত ধোঁকাবাজ।
সে হয় অন্যকে ধোঁকা দিচ্ছে,নতুবা নিজেকেই ধোঁকা
দিচ্ছে।
বিষয়টি খেয়াল করতে হবে!
মালিক পাক যেন আমাদের সকলকেই সমস্ত সুন্নত
মুবারক পালন করে হাক্বীক্বী সন্তুষ্টি মুবারক
হাছিল করার তৌফিক দান করেন।
আমীন।

Views All Time
1
Views Today
1
শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে