মোবাইল ফোন বিস্ফোরণ ঠেকাতে কী করবেন ?


স্মার্টফোন বিস্ফোরণের ঘটনা একেবারে নতুন নয়। মাঝে মাঝে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ফোনের বিস্ফোরণের খবর পাওয়া যায়। বিভিন্ন নামি-দামি ব্র্যান্ডের ফোন যেমন- শাওমি, স্যামসাং ইত্যাদি হঠাৎ বিস্ফোরিত হয় যা একেবারেই অনাকাঙ্খিত। স্মার্টফোন বিস্ফোরণ বা আগুন লাগার এ ধরনের ঝুঁকি এড়াতে নিজে থেকে সাবধান হতে হবে। প্রযুক্তির যুগে সকলেই স্মার্টফোন নির্ভর, এতে দ্বিমত নেই৷ কিন্তু, কীভাবে এড়াবেন এধরণের ঘটনা? জেনে নিন কিছু পরামর্শ:

১. প্রকৃত কেবল বা অ্যাডাপটার ছাড়া থার্ড পার্টির চার্জিং কেবল বা অ্যাডাপটার ব্যবহার করবেন না। আসল চার্জার নিরাপদ। স্মার্টফোন কেনার সময় প্রকৃত চার্জার বা অ্যাডাপ্টার দেওয়া হচ্ছে কি না, তা দেখে কিনবেন। ওয়ারেন্টির বিষয়টি নিশ্চিত হয়ে নেবেন।

 

২. আপনার ডিভাইসের যদি ব্যাটারি পরিবর্তন করতে হয়, তবে যে প্রতিষ্ঠানের ডিভাইস, তাদের তৈরি ব্যাটারি কিনুন। তা না হলে ব্যাটারি কিছুদিন পরে ঠিকমতো কাজ করবে না।

 

৩. স্মার্টফোন, ট্যাবলেট বা লিথিয়াম-আয়ন ব্যাটারিযুক্ত ডিভাইসে অতিরিক্ত চার্জ দেবেন না। যদি ফোনে শতভাগ চার্জ দেন এবং দীর্ঘক্ষণ শতভাগ চার্জ ধরে রাখেন, তা ব্যাটারির আয়ুর ওপর নেতিবাচক প্রভাব ফেলবে। স্মার্টফোনের ব্যাটারির চার্জ ৩০ থেকে ৫০ শতাংশ থাকলে তার আয়ু থাকে বেশি দিন।

 

৪. দাহ্য পৃষ্ঠের আসবাব, বিছানা, কাগজের কাছাকাছি ডিভাইস রেখে চার্জ দেবেন না। অনেক সময় অতিরিক্ত গরম হয়ে দুর্ঘটনা ঘটতে পারে।

 

৫. ঘুমানোর সময় বালিশের নিচে স্মার্টফোন রেখে চার্জ দেবেন না।

 

৬. সরাসরি সূর্যের আলোতে বেশিক্ষণ স্মার্টফোন বা ডিভাইস রাখবেন না।

 

৭. স্মার্টফোন বা ডিভাইস সারাতে অননুমোদিত কোনো দোকানে যাবেন না। এতে যন্ত্রাংশ নষ্ট হওয়ার আশঙ্কা বেশি থাকে। অথরাইজড সেন্টার থেকে সেবা নিন।

 

৮. চার্জে থাকা অবস্থায় ডিভাইসের ওপর যাতে বাড়তি চাপ না পড়ে, সেদিকে খেয়াল রাখবেন।

 

৯. স্মার্টফোন বা ডিভাইস চার্জ দেওয়ার সময় পারলে এর কেস খুলে নিন।

 

১০. ফোন চার্জের সময় ইয়ারফোন ব্যবহার করবেন না বা ফোনে কথা বলার সময় চার্জ দেবেন না।

 

১১. অনেকে সস্তায় খোলা বাজারের পাওয়ার ব্যাংক ব্যবহার করেন। পাওয়ার ব্যাংক মোবাইলের ব্যাটারি নষ্ট করে দিতে পারে। ঘটাতে পারে বিস্ফোরণ।

 

১২. মোবাইল ব্যবহার করতে করতে ব্যাটারি একটু ফুলে গেলে সঙ্গে সঙ্গে ব্যাটারি চেঞ্জ করা দরকার।

 

শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে