যারাই থার্টি ফার্স্ট নাইটে বেল্লেল্লাপনা করে তারাই সুন্নতী বাল্যবিবাহের বিরোধীতা করে!


১লা ফাল্গুন, ১লা বৈশাখ,১লা জানু,৩১শে ডিসেম্বর নাইট,১৪ ফেব্রুয়ারি
সবই ভ্যালেন্টাইন্স ডে এর রূপভেদ!
বেহায়াপনা-বেলেল্লাপনা করার দিন!
স্বাভাবিক প্রকৃতি বিকৃত করার দিন!
আর বিশেষভাবে থার্টি ফার্স্ট নাইট তো বেহায়াপনার চরম উৎকর্ষ লাভের দিন,রাত!
যারা বাল্যবিবাহের বিরোধীতা করে
তারা কি উক্ত দিনগুলোতে সৃষ্ট অশোভন ঘটনার বিরোধীতা করে?? নাকি প্রফুল্লচিত্তে অংশগ্রহণ করে???
উত্তর দ্বিতীয়টি।
কেননা বাল্যবিবাহ যত রোধ করা যাবে
বেহায়াপনা করার দিবস ততোই বৃদ্ধি করা যাবে!!!!
নাঊযুবিল্লাহ!
যেহেতু বাংলাদেশ মুসলিম রাষ্ট্রপ্রধান দেশ
সেহেতু এদেশের জনগণের দ্বারা এরূপ অপসংস্কৃতি নিয়ে মাতামাতি করা এবং বাল্যবিবাহের বিরুদ্ধাচরণ করা অস্বাভাবিক!!!
কিন্তু আফসোস এটাই আজ স্বাভাবিক রূপ ধারণ করতে চাচ্ছে! নাঊযুবিল্লাহ!
মুসলমানদের সম্মান-মর্যাদা মুসলমানদের নির্ধারিত জীবন বিধানের জন্যই
তাই নিজ মর্যাদা এবং স্বকীয়তা অক্ষুন্ন রাখতে, সর্বোপরি নিজেকে জাহান্নামের আগুন থেকে রক্ষা করতে
একদিকে এসব অপসংস্কৃতির বিরোধীতা, অপরদিকে সুন্নতী বাল্যবিবাহের বিরুদ্ধাচরণ করা থেকে দূরে থাকা এবং দূরে রাখাই মুসলমানগণের জন্য আজ অন্যতম প্রধান দায়িত্ব হিসেবে দাঁড়িয়েছে।
So,#Say_No_To_Dirty_first_Night!!!

Views All Time
1
Views Today
1
শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে